কেবল নতুন কমিটি দিলেই সংকটের সমাধান হবে না

অনলাইন

তামান্না মোমিন খান | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৩:০৬
ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেছেন, সরকারি দলের  ছাত্র সংগঠন  যখন  সরাসরি দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে যায় তখন কমিটি ভেঙে নতুন করে গড়লেও সংকটের সমাধান হবে না। শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য নয় সরাসরি দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে যাওয়ায় ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এটা ঠিক কাজ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু আমার প্রশ্ন হচ্ছে ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতা প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকে কিভাবে। ছাত্রলীগ যেহেতু ছাত্রদের সংগঠন। ছাত্রলীগের ছাত্ররাই কমিটি ভাঙতে পারে এবং তারাই নতুন কমিটি গড়তে পারে। ছাত্রলীগ এখন ছাত্রদের সংগঠন নয় আওয়ামী লীগের অংশ হয়ে গেছে। এটি একটি অশনি সংকেত।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পে ছাত্রলীগকে অংশ দিতে হবে-এটা কবে থেকে চালু হলো? নিশ্চয় আনেক আগে থেকে চালু হয়েছে। এবার শুধু টাকার পরিমাণটা বেশি ছিল বলেই হয়তো নজরে এসেছে। দেশের ছাত্র রাজনীতি আজ কূলষিত। ছাত্রদের স্বার্থ নিয়ে তারা কাজ না করে সরাসরি দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে গেছে। ছাত্র রাজনীতিকে কূলষমুক্ত করতে হলে ছাত্র সংগঠনগুলো যেন কোনভাবেই প্রশাসনের সঙ্গে জড়িয়ে না পড়ে সেদিকে কঠোর নজর রাখতে হবে। এর দায়িত্ব যেমন প্রধানমন্ত্রীর আছে তেমনি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষেরও আছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

৮৮ পাউন্ডের লুলুলেমন, নির্মাতারা নির্যাতিত

সম্রাটের মুখে কুশীলবদের নাম

বাংলাদেশের ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে ফিফা প্রেসিডেন্ট

ফরিদপুরে মানবজমিন উধাও

সীমান্তে গোলাগুলি বিএসএফ সদস্যের নিহতের খবর ভারতীয় মিডিয়ায়

৩৬০০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করবে সৌদি কোম্পানি

গ্রামীণফোন-রবিতে প্রশাসক নিয়োগে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন

বালিশকাণ্ডের তদন্তে দুদক

ব্রেক্সিট নিয়ে বৃটেন ইইউ সমঝোতা

মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়েও নিরাপত্তাহীনতায়

ভুলে আসামি, ১৮ বছর পর খালাস পেলেন নাটোরের বাবলু শেখ

গ্রামীণফোনের কাছ থেকে ১২৫৮০ কোটি টাকা আদায়ের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

‘ফিরোজের কাছে ফিরে আসবো’

শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী বলেই আবরার হত্যার পর দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে

পদযাত্রায় বাধা, আমরণ অনশনে নন-এমপিও শিক্ষকরা