বিছনাকান্দিতে দুই-ই মেলে

ষোলো আনা

মারুফ কিবরিয়া, সিলেট থেকে ফিরে | ২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার
ছবিঃ সংগ্রহীত
 বিছনাকান্দি। চায়ের রাজ্য সিলেট ভ্রমণে গেলে ভ্রমণ পিয়াসীরা একবার হলেও ঢুঁ মেরে আসেন সেখানে। পিয়াইন নদীর বুক চিরে ওঠা ছোট-বড় পাথরের এই মনোরম দৃশ্য যেন চোখজুড়ায় সবার। চারপাশেই উঁচু-নিচু মেঘালয় পাহাড়। যেন প্রকৃতির সব সৌন্দর্য এখানেই। বিছানাকান্দির এই অপরূপ সৌন্দর্য যে কারো ভ্রমণকে রোমাঞ্চিত করে তোলে। পাহাড়ে হেলান দিয়ে সাদা মেঘ, মাঝে ঝর্ণাধারা। যতদূর চোখ যায় শুধু পাথর আর পাহাড়ের অপরূপ দৃশ্য।

জলধারায় ঘুরে বেড়িয়ে যে স্থানটি ভ্রমণে ভিন্নমাত্রা যোগ করে তা হলো নদীর বুক চিরে গড়ে ওঠা ছোট্ট বাজার। প্রকৃতির এই সৌন্দর্য দেখার পাশাপাশি পর্যটকদের সুযোগ থাকে কেনাকাটার। তরুণ-বৃদ্ধ অনেকেই সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত হরেক রকমের পণ্য নিয়ে বসেন। ছোট্ট এই বাজারে কি-না পাওয়া যায়! অবশ্য এই বাজারে দেশি পণ্যের চেয়ে ভারতীয় পণ্যই বেশি। যা সাধারণ বাজারগুলোর চেয়ে বেশ কমমূল্যে বিক্রি হয়। চকলেট, সাবান, শ্যাম্পু, খেলনা, কসমেটিক, আচারসহ আরো অনেক কিছু। ফলে প্রকৃতির দর্শন ও কেনাকাটা দুই-ই পূরণ হচ্ছে দর্শনার্থীদের।

পাথর আর পাহাড়ের সৌন্দর্য দেখতে আসা সাদিয়া রাশা বলেন, বিছনাকান্দিতে প্রথম না। আরো কয়েকবার এসেছি। এই সুন্দর দৃশ্য একবার দেখে কখনো মন ভরে না। আমারও তাই ঘটেছে। এ নিয়ে চতুর্থবার আসা। তবে বিছনাকান্দিতে এলেই এখানকার বাজারে একটু হলেও ঢুঁ মারি। কিছু না কিছু কিনে নিয়ে যাই। এখানে অনেক ভালো ভালো চকলেট অল্প দামে পাওয়া যায়। কিছু ভারতীয় কসমেটিকস আইটেমও পাচ্ছি। ব্যাপারটা দারুণ উপভোগ্য। ঘোরাও হলো টুকটাক কেনাকাটাও হলো। মহিম নামের এক বিক্রেতা বলেন, আমরা এখানে অনেকদিন ধরেই ব্যবসা করছি। চলকলেট, চিপ্‌স আর কিছু কসমেটিকস পণ্য আছে। বেড়াতে আসা মানুষরা কিছু না কিছু কিনে নিয়ে যায়। শুধু পণ্য বিকিকিনি নয়। এই বাজারের পাশেই রয়েছে বেশকিছু খাবারের দোকান। পর্যটকদের দুপুরের খাবারের জন্য এই বাজার সেরা স্থান। ফলে ভ্রমণ পিপাসুদের সঙ্গে করে আনতে হচ্ছে না খাবার।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ছবিতে গ্রামি অ্যাওয়ার্ডস

বন্ধ হয়ে গেল ১৭৮ বছরের প্রতিষ্ঠান থমাস কুক

যুক্তরাষ্ট্রে বিরল সংবর্ধনায় একে অন্যের প্রশংসায় পঞ্চমুখ মোদি-ট্রাম্প

ভারতে দেহব্যবসায় বাধ্য করানো ৮ বাংলাদেশী যুবতীকে উদ্ধার

বাংলাদেশ সফরে ভারতীয় নৌবাহিনী প্রধান

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ‘জঙ্গি বিরোধী’ অভিযান চলছে

বিশ্বনেতারা থাকলেও থাকছেন না ট্রাম্প

যোগদানের দ্বিতীয় দিনেই পদত্যাগ করলেন ইবি’র প্রক্টর

‘কাজটি করতে গিয়ে নিজেই অবাক হয়েছি’

বাড়ির কাজ বন্ধ রাখতে ক্রসফায়ারের হুমকি!

ডেঙ্গু: এবার ‘শক সিন্ড্রোমে’ মৃত্যু বেশি

বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারের নির্দেশনা

অভিযান ইতিবাচক, এতদিন হয়নি কেন?

শামীম ঘুষ দিতো ডলারে

মতিঝিল যেন ক্যাসিনো পল্লী

২ কর্মকর্তা লাপাত্তা