এপির রিপোর্ট

দেশে ফিরতে অনীহা রোহিঙ্গাদের

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১০

মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো প্রক্রিয়ায় সাড়া দিয়েছেন হাতেগোনা কয়েকটি মুসলিম রোহিঙ্গা পরিবার। বাকিরা কোনো সাড়াই দেয়নি। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক এজেন্সি ইউএনএইচসিআর এবং বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধিদের কাছে এমন মনোভাব প্রকাশ করেছে রোহিঙ্গারা। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি।  

এ বিষয়ে শরণার্থী বিষয়ক বাংলাদেশের কমিশনার আবুল কালাম মঙ্গলবার বলেছেন, বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া শরণার্থী প্রত্যাবর্তন প্রক্রিয়ায় বাছাই করা হয়েছে ১০৫৬ জনকে। তার মধ্যে মাত্র ২১টি পরিবার ফরম পূরণ করে তা জমা দিয়েছে। তারা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তারা জানিয়েছেন ফিরে যেতে চান কিনা।
এ বিষয়ে আবুল কালাম বলেন, সব পরিবারই বলেছে, তারা দেশে ফিরে যাবে না।
গত বছর ইউএনএইচসিআর, বাংলাদেশ ও মিয়ানমার একই রকম উদ্যোগ নিলে তা ব্যর্থ হয়। তখনও কোনো শরণার্থী স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে অস্বীকৃতি জানায়।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

রিপন

২০১৯-০৮-২১ ২১:১২:৩৭

কেন অনীহা, নিশ্চয়ই তা প্রকাশ করতে দেয় নি সরকার এই প্রতিবেদনে। তাতে কী? তথ্যপ্রবাহের জোয়ার রুখবে সেই সাধ্য সরকারের নেই। আমরা জানি, নাগরিকত্ব ইস্যুসহ নিরাপত্তাবিষয়ক কিছু ইস্যুর সমাধান না হলে কোন উদ্বাস্তুই ফিরে যেতে চাইবে না। বহির্বিশ্বের প্রচার মাধ্যমে বিষয়টি যথাযথভাবে বিশ্লেষিত হচ্ছে। আওয়ামি লিগ কী করে রুখবে সেসব?

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

ইন্ডিপেন্ডেন্টের রিপোর্ট

করোনার টিকা: জেএন্ডজের সিঙ্গেল-ডোজ পরীক্ষা শুরু

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

সিএনএনের রিপোর্ট

জো বাইডেনকে সমর্থন সিন্ডি ম্যাককেইনের

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

নিক্কি এশিয়ান রিভিউয়ের প্রতিবেদন

চীন থেকে বাংলাদেশকে দূরে রাখতে ‘প্রতিরক্ষা কূটনীতি’ ব্যবহার করছে যুক্তরাষ্ট্র

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



আরব নিউজের প্রতিবেদন

৪ অক্টোবর শুরু হচ্ছে ওমরাহ