ঘাটাইলে কামারশালায় ব্যস্ততা

বাংলারজমিন

এবিএম আতিকুর রহমান, ঘাটাইল, টাঙ্গাইল থেকে | ১১ আগস্ট ২০১৯, রোববার
 ঘাটাইলের কামাররা কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে খুবই ব্যস্ত সময় পার করছেন। দিন যতই ঘনিয়ে আসছে টুংটাং শব্দে কামারদের ব্যস্ততা ততই বাড়ছে। ভোর  থেকে গভীর রাত পর্যন্ত তারা টুংটাং শব্দে একটানা কাজ করে যাচ্ছেন।
কোরবানির পশু কাটতে দা, বঁটি ও ছুরি অবশ্যম্ভাবী।  সেজন্য বেড়েছে এর কদর। কয়লার চুলায় দগদগে আগুনে গরম লোহার পিটাপিটিতে টুংটাং শব্দে মুখর হয়ে ওঠেছে কামারশালাগুলো। একই সঙ্গে সামনে আগুনের শিখায় তাপ দেয়া, হাতুড়ি পেটানোর টুংটাং শব্দে তৈরি হচ্ছে দা, বঁটি, চাপাতি ও ছুরি। কামারদের দম ফেলারও ফুরসত নেই। নাওয়া-খাওয়া ভুলে কাজ করছেন তারা। কাকডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত একটানা কাজ করে যাচ্ছেন। সারা বছর তেমন কাজ না থাকলেও কোরবানির ঈদকে কেন্দ্র করে কয়েকগুণ ব্যস্ততা বেড়ে গেছে।
টাঙ্গাইল শহরের পার্ক বাজারে দা-ছুরি বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, চাকু প্রতি পিস ৫০-১৫০ টাকা, দা ৪০০-৬০০ টাকা, চাপাতি ৬০০-৮০০ টাকা, ছুরি ৮০০-১০০০ টাকা এবং বঁটি ৩০০-৪৫০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও পুরনো যন্ত্রপাতি শান দিতে গুনতে হচ্ছে ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত।
ঘাটাইলের বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায় সকাল থেকে রাত পর্যন্ত একটানা কাজ করে যাচ্ছেন বিভিন্ন এলাকার কামাররা। কারিগর মুকুল কর্মকার বলেন, স্বাভাবিকভাবে কোরবানি ঈদ এলে আমাদের কাজের ব্যস্ততা বেড়ে যায়। এ সময় সকাল ৯টা থেকে রাত ১২টা-১টা পর্যন্ত একটানা কাজ করতে হয়। ক্রেতাদেরও কমতি থাকে না। একটু বেশি আয়ের উদ্দেশ্যে দিন-রাত এমন পরিশ্রম করতে হয় বলেও জানান তিনি। দেউলাবাড়ি ইউনিয়নের দা- ছুরি দোকানের কর্মচারী কমল কর্মকার জানান, ঈদ সামনে, তাই অনেক ব্যস্ত কিন্তু সারাবছর স্বল্প আয়ে আমরা কীভাবে পরিবার নিয়ে চলি, তা খোঁজ নেয়ার কেউ নেই। সারাদিনে মহাজনের পাঁচশত টাকা রুজি হলে আমরা তার থেকে কত টাকাই বা পেয়ে থাকি বলেও দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি। চাকু কিনতে আসা মারুফ সরোয়ার বলেন, কোরবানির জন্য ভালো দেখে একটা চাকু কিনলাম। অন্য সময়ের তুলনায় দাম একটু বেশি রাখছে কামাররা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নানা চোখে জয়শঙ্করের ঢাকা সফর

ভয়াল ২১শে আগস্ট আজ

জন্মের পরই ডেঙ্গু যন্ত্রণায়

ডেঙ্গু পরীক্ষায় ব্যস্ত কর্মী এখন নিজেই ডেঙ্গু রোগী

এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়

ডেঙ্গুর সমাধান খুঁজতে ৩ সংস্থার প্রতিনিধি ঢাকায়

ধর্ষণের পর হত্যা

সড়কে আর কত মৃত্যু?

সবজি রপ্তানি করতে কার্গো বিমান কিনতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

লার্ভার ডেঞ্জার জোন সিলেটের কদমতলী

ছাগল ছিনতাইয়ের মামলায় ছাত্রলীগ নেতার জামিন

সোনারগাঁয়ে নৃত্যশিল্পীকে গণধর্ষণ

ইন্দোনেশিয়ার সেনাপ্রধান ও সশস্ত্র বাহিনী কমান্ডারের সঙ্গে সেনাপ্রধানের সাক্ষাৎ

ডেঙ্গু নির্মূলে ডিএনসিসির বিশেষ ‘চিরুনি অভিযান’ শুরু

দক্ষিণ সিটির ১২শ’ বাড়িতে এডিসের লার্ভা

মিন্নিকে কেন জামিন নয়- হাইকোর্ট