নন্দীগ্রামে বাল্যবিবাহ বন্ধ করলেন ইউএনও

বাংলারজমিন

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি | ১০ আগস্ট ২০১৯, শনিবার
 বগুড়ার নন্দীগ্রামে পৌরসভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেলো আমিনা খাতুন (১৫) নামের স্কুলছাত্রী। বৃহস্পতিবার রাতে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বেলঘরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আমিনা খাতুন ওই গ্রামের আমিনুল ইসলামের মেয়ে ও কাজী আবদুল ওয়াজেদ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আমিনা খাতুনের বিয়ে একই গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে সাকিব হোসেন (১৫) সঙ্গে ঠিক করেন তার পরিবারের লোকজন। বৃহস্পতিবার রাতে এ বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। সে উপলক্ষে কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল। সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছা. শারমিন আখতার পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে হাজির হন। তারা সেখানে গিয়ে কনের বাবা-মা এবং পরিবারের সকলকে বিয়ের কুফল সম্পর্কে অবহিত করলে ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত তারা মেয়ের বিয়ে দিবে না বলে মুচলেকা দেন। এদিকে বিয়ের বাড়িতে ইউএনওর উপস্থিতির খবর পেয়ে বর পক্ষের লোকজন পথিমধ্য থেকে ফিরে যান।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নানা চোখে জয়শঙ্করের ঢাকা সফর

ভয়াল ২১শে আগস্ট আজ

জন্মের পরই ডেঙ্গু যন্ত্রণায়

ডেঙ্গু পরীক্ষায় ব্যস্ত কর্মী এখন নিজেই ডেঙ্গু রোগী

এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়

ডেঙ্গুর সমাধান খুঁজতে ৩ সংস্থার প্রতিনিধি ঢাকায়

ধর্ষণের পর হত্যা

সড়কে আর কত মৃত্যু?

সবজি রপ্তানি করতে কার্গো বিমান কিনতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

লার্ভার ডেঞ্জার জোন সিলেটের কদমতলী

ছাগল ছিনতাইয়ের মামলায় ছাত্রলীগ নেতার জামিন

সোনারগাঁয়ে নৃত্যশিল্পীকে গণধর্ষণ

ইন্দোনেশিয়ার সেনাপ্রধান ও সশস্ত্র বাহিনী কমান্ডারের সঙ্গে সেনাপ্রধানের সাক্ষাৎ

ডেঙ্গু নির্মূলে ডিএনসিসির বিশেষ ‘চিরুনি অভিযান’ শুরু

দক্ষিণ সিটির ১২শ’ বাড়িতে এডিসের লার্ভা

মিন্নিকে কেন জামিন নয়- হাইকোর্ট