ওয়াশিংটনে ইমরান খান যা বললেন

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৬

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর প্রথম যুক্তরাষ্ট্র সফরে রয়েছেন ইমরান খান। রোববার তিনি ওয়াশিংটনে ক্যাপিটল ওয়ান এরিনাতে বিশাল এক সমাবেশে ভাষণ দিচ্ছিলেন। কিন্তু সেখানে বক্তব্যের মাঝামাঝি সময় পাকিস্তান বিরোধী স্লোগানের মুখোমুখি হন তিনি। ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআই বলছে, বেলুচিস্তানের অধিকারকর্মীদের স্লোগানে ইমরান খানের বক্তব্য বিঘিœত হয়। ইমরান খান তার বক্তব্যের মাঝামাঝি, এমন সময় তিনজন বেলুচ অধিকারকর্মী স্লোগান দেয়া শুরু করেন। এ বিষয়ক একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ছড়িয়ে পড়েছে।

ওদিকে মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট এবং অন্য সংখ্যালঘুদের গ্রুপগুলোও ইমরান খানের সফরের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটনে বিক্ষোভ করেছে। এসব বিষয় এড়িয়ে গেছে পাকিস্তানের গণমাধ্যম।
তারা শুধুই ইমরান খানের জনসমাবেশে বক্তব্যের ওপরই জোর দিয়েছে। পাকিস্তানের পত্রিকা ডন নিউজ রিপোর্টে ইমরান খানের ‘নয়া পাকিস্তান’ বিষয়ক বক্তব্যকে জোরালোভাবে তুলে ধরেছে। ইমরান বলেছেন, নির্বাচনী প্রচারণার সময় যেসব স্লোগান দেয়া হয়েছিল তার মূল ও অন্যতম হলো নয়া পাকিস্তান। এই নয়া পাকিস্তান তাদের সামনেই সৃষ্টি করা হয়েছে।

ওয়াশিংটনের ওই বক্তব্যে পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আরো অনেক বিষয়ে কথা বলেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ, শাহিদ খাকান আব্বাসি সহ বিরোধী নেতাদের বিরুদ্ধে সরকার যে ব্যবস্থা নিয়েছে সে বিষয়ে তিনি বক্তব্য রাখেন। উল্লেখ্য, শাহিদ খাকান আব্বাসিকে সম্প্রতি গ্রেপ্তার করে জাতীয় জবাবদিহিতা বিষয়ক ব্যুরো (এনএবি)। ইমরান বলেন, এটা হলো সেই নয়া পাকিস্তান, যেখানে রাজনীতিকদের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হয় এবং জবাবদিহি করতে হয়। এসব মানুষকে এর আগে কোনোদিন কোনো প্রশ্নের মুখোমুখি করা হয় নি। বক্তব্যে ইমরান খান মেধাতন্ত্রের পক্ষে কথা বলেন। তিনি এক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট টিমকে উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরেন। বলেন, অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট সারা বিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করেছে। এর কারণ তারা মেধার ওপর ভিত্তি করে অগ্রসর হয়।

নিজের সরকারের বিরুদ্ধে কোনো প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে আচরণ করার বিষয় প্রত্যাখ্যান করেন ইমরান। তিনি বলেন, রাজনীতিকদের বিরুদ্ধে যে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হচ্ছে তা নিয়ে পুরনো মামলা ছিল। সেই মামলার কার্যক্রমই চলমান। তিনি আরো বলেন, পিটিআই সরকার নতুন কোনো মামলা দেয় নি। ইমরান খানের ভাষায়, আমরা যেটা করেছি তা হলো প্রতিষ্ঠানগুলোকে স্বাধীনতা দিয়েছি।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

হিন্দুস্তান টাইমসের রিপোর্ট

‘বাংলাদেশ ও মিয়ানমারে একসঙ্গে কাজ করতে চায় ভারত-জাপান’

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

পদত্যাগ করলেন আমাল ক্লুনি

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ইউরোপে সংক্রমণ বাড়ছে

সোমবার থেকে মাদ্রিদে লকডাউন

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

হারেৎসের রিপোর্ট

ইসরাইলের সঙ্গে কুয়েতও কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করবে!

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত