সুপার ওভারেও টাই, যে কারণে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড

বিশ্বকাপ ডেস্ক

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯ ১৫ জুলাই ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০৮

লর্ডসে ফাইনাল নিজেদের করে নিলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড। আগে ব্যাট করে ২৪১ রান করে নিউজিল্যান্ড। এরপর জবাবে ইংল্যান্ডও করে ২৪১। খেলা গড়লো সুপার ওভারে।

সুপার ওভারে ইংল্যান্ড করলো ১৫ রান। আবার সেই নিউজিল্যান্ড জবাবে করলো ১৫ রান। অর্থ্যাৎ ফের টাই।

সুপার ওভারের নিয়ম অনুযায়ী, যদি এ ৬ বলেও ম্যাচের ফলাফল না হয়, তা হলে যে দল বেশি বাউন্ডারি মেরেছে, সেই দলকেই জয়ী বলে ঘোষণা করা হয়। দু’দলের মারা বাউন্ডারির সংখ্যা দিয়েও যদি ম্যাচের নিষ্পত্তি না হলে দেখা হবে সুপার ওভারের শেষ বলে কোন দল কত রান করেছে।
যে দল বেশি রান করেছে, নিয়ম অনুযায়ী সেই দলই জিতবে।

নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে আসে ১৪টি চার ও ২টি ছক্কার মার। মোট বাউন্ডারি পায় ১৬টি। অন্যদিকে দ্বিতীয় ইনিংসে ২২টি চারের সঙ্গে ২টি ছয় মারে ইংল্যান্ড। যে কারণে চ্যাম্পিয়ন হয় ইংল্যান্ড।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ওসমান গনী

২০১৯-০৭-১৪ ২৩:৪৭:৪৬

আইসিসির এ বাজে নিয়ম কি করে সবাই মেনে নিলো বুঝলামনা।

মোঃ আবুল কাশেম শিক্ষ

২০১৯-০৭-১৪ ২৩:৩০:৫৮

টাই হওয়ার পর বেশি চার ছক্কার উপর ভিত্তি করে চ্যাম্পিয়ন এটা বাজে নিয়ম।আবার খেলার প্রয়োজন ছিল।

মাসউদুল গনি

২০১৯-০৭-১৫ ১০:৫৩:১৬

 এটা একটা দলের যোগ্যতা যাচাইয়ের পদ্ধতি! আর ভালো কিছু খুঁজে পেলো না!!!

আপনার মতামত দিন



ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯ অন্যান্য খবর



ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯ সর্বাধিক পঠিত