হাই কমান্ডকে ছাত্রদলের দুই দিনের আল্টিমেটাম

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৫:৩৩
নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে চলমান আন্দোলনের মধ্যেই দলীয় হাইকমান্ডকে দুই দিনের আলটিমেটাম দিয়েছেন ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতারা। দুই দিনের মধ্যে সন্তোষজনক সুরাহা না হলে আগামী রোববারে থেকে কঠোর কর্মসূচিতে মাঠে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা। বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শেষে ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান আসাদ এ হুঁশিয়ারি দেন। এদিন বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। অবস্থান কর্মসূচি শুরুর কিছুক্ষণ পরেই প্রবল বৃষ্টিতে কর্মসূচিতে কিছুটা ব্যাঘাত ঘটে। এসময় ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে অবস্থান নেন। বৃষ্টি শেষে আবারও দলীয় কার্যালয়ের সামনে কর্মসূচি শুরু হয়। এতে প্রায় ৪ থেকে ৫শ নেতাকর্মী অংশ নেন।

কর্মসূচি সফল করার জন্য ছাত্রদলের বিলপ্ত কমিটির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ সবাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, আমাদের যৌক্তিক দাবি মানতে হবে। আগামী শনিবার পর্যন্ত আমরা আল্টিমেটাম দিচ্ছি। এই সময়ের মধ্যে আমাদের দাবি মানা না হলে আগামী রোববার থেকে আমরা যে কোনো প্রকার কঠোর কর্মসূচিতে যেতে বাধ্য হবো। আর এজন্য দলের দালাল সিন্ডিকেট দায়ি থাকবে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিলুপ্ত কমিটির সহ-সভাপতি এজমল হোসেন পাইলট বলেন, কর্মসূচির ব্যাপারে আমরা আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব। কালো পতাকা প্রদর্শন, গণ-অনশনসহ যে কোনো ধরনের শান্তিপূর্ণ কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।
আগামী শনিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাবেন। সেখানে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা যাবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে পাইলট বলেন, আমরা কেউ সেখানে যাব না।
উল্লেখ্য, বয়সের সীমা না রাখা, স্বল্পমেয়াদি কমিটি গঠনসহ তিন দফা প্রস্তাবনার ভিত্তিতে ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠনের দাবিতে গত ১১ই জুন নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিনব্যাপী বিক্ষোভ করেন সংগঠনের বিলুপ্ত কমিটির একাংশের নেতারা। পরে ওইদিন রাতেই দাবি পূরণে সাবেক ছাত্রনেতাদের নিয়ে গঠিত সার্চ কমিটির সদস্যদের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে সাময়িকভাবে আন্দোলন স্থগিত করে বিক্ষুব্ধরা। পরবর্তীতে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরতে সার্চ কমিটির সদস্যরা ছাড়াও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্যের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন আন্দোলনকারীরা। দাবি পূরণে তারাও পুনরায় আশ্বাস দেন আন্দোলনকারীদের। কিন্তু দাবি পূরণে কার্যত এখনও কোনো অগ্রগতিই হয়নি। এর আগে গত ৩রা জুন ছাত্রদলের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে দেয়ার পাশাপাশি কাউন্সিলের মাধ্যমে সংগঠনটির নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের ঘোষণা দেয় বিএনপি। আর কাউন্সিলে প্রার্থী হতে ২০০০ সাল থেকে পরবর্তী যে কোনো বছরে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং অবশ্যই বাংলাদেশের কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী হওয়াসহ ৩টি শর্ত নির্ধারণ করে দেয়া হয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ওয়াশিংটনে ইমরান খান যা বললেন

ট্যাংকার জব্দ: ইরান-বৃটেন উত্তেজনা অব্যাহত

‘টিভি চ্যানেলগুলো নাচের শিল্পীদের যথাযথ মূল্যায়ন করে না’

বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে

নৈরাজ্য

১৯ জনকে গণপিটুনি নিহত ৩

মার্কিন দূতাবাসের দুরভিসন্ধি

মিন্নির জামিন মেলেনি

পুঁজিবাজারে একদিনেই ৫ হাজার কোটি টাকার মূলধন হাওয়া

মশায় অতিষ্ঠ মানুষ ঘরে ঘরে ডেঙ্গু আতঙ্ক

অর্থনৈতিক কূটনীতির ওপর গুরুত্ব দিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের আন্দোলনে অচল ঢাবি

যে কারণে সিলেটে মহিলা কাউন্সিলর লাকীর ওপর হামলা

৬ ঘণ্টা বিদ্যুৎ ও পানিবিহীন শাহজালাল বিমানবন্দর

সাত দিনের মধ্যে প্রথম কিস্তি পরিশোধের নির্দেশ

এ যেন খোঁড়াখুঁড়ির নগরী