রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সেভেন স্টার গ্রুপ লিডার নিহত

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২০ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১০:২০ | সর্বশেষ আপডেট: ৩:১২
রাজধানীর মোহম্মদপুরে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তানভীর আহমেদ অনিক (৩৬) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন র‌্যাবের দুই সদস্য। বুধবার রাত ৩টার দিকে বছিলা গার্ডেন সিটি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। র‌্যাবের দাবি, নিহত অনিক সন্ত্রাসী গ্রুপ সেভেন স্টারের লিডার।  এ সময় দেশি পিস্তল, বিদেশি রিভলভার ও গুলিসহ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে র‌্যাব-২ এর সদস্যরা।

নিহত তানভীরের বাড়ি মাদারীপুরে। আগারগাঁও এলাকার সন্ত্রাসী গ্রুপ সেভেন স্টারের গ্রুপ লিডার ছিলেন তানভীর। ৭-৮টি মামলায় তিনি পলাতক আসামি ছিলেন।

আজ সকালে র‌্যাব-২ এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে তানভীরকে ধরার জন্য চেষ্টা চালিয়ে আসছিলাম। তানভীর বছিলা এলাকায় আসবে- এমন খবরে আমাদের টহল ও চেকপোস্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। কিন্তু বছিলা গার্ডেন সিটি এলাকা হয়ে বুড়িগঙ্গা নদী পাড় দিয়ে তানভীর যাতায়াত করে সেটা জানতাম না।
ওই এলাকায় টহল দল বছিলা ব্রিজে অবস্থান করছিল।

তিনি বলেন, রাত সাড়ে ৩টার দিকে বছিলা ব্রিজ এলাকায় র‌্যাব সদস্যদের সামনে পড়ে যায় তানভীরসহ তার ৩-৪ সঙ্গী। পালানোর চেষ্টার পাশাপাশি তারা র‌্যাব সদস্যদের উদ্দেশ্যে গুলি করে। র‌্যাব-২ সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। কিছুক্ষণ পর ঘটনাস্থলে তানভীরের মরদেহ দেখা যায়। এছাড়া দেশি পিস্তল, বিদেশি রিভলভার ও গুলিসহ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। একই ঘটনায় র‌্যাব-২ এর আহত দুই সদস্য তালুকদার আবদুর রহমান ও কনস্টেবল শফিককেও ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে   মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান র‌্যাব অধিনায়ক।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ডেঙ্গুজ্বরে হবিগঞ্জ সিভিল সার্জনের মৃত্যু

ওয়াশিংটনে ইমরান খান যা বললেন

ট্যাংকার জব্দ: ইরান-বৃটেন উত্তেজনা অব্যাহত

‘টিভি চ্যানেলগুলো নাচের শিল্পীদের যথাযথ মূল্যায়ন করে না’

বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে

নৈরাজ্য

১৯ জনকে গণপিটুনি নিহত ৩

মার্কিন দূতাবাসের দুরভিসন্ধি

মিন্নির জামিন মেলেনি

পুঁজিবাজারে একদিনেই ৫ হাজার কোটি টাকার মূলধন হাওয়া

মশায় অতিষ্ঠ মানুষ ঘরে ঘরে ডেঙ্গু আতঙ্ক

অর্থনৈতিক কূটনীতির ওপর গুরুত্ব দিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের আন্দোলনে অচল ঢাবি

যে কারণে সিলেটে মহিলা কাউন্সিলর লাকীর ওপর হামলা

৬ ঘণ্টা বিদ্যুৎ ও পানিবিহীন শাহজালাল বিমানবন্দর

সাত দিনের মধ্যে প্রথম কিস্তি পরিশোধের নির্দেশ