‘এমপি’ মাশরাফিতে মুগ্ধ আসাদুজ্জামান নূর

বাংলাদেশ কর্নার

স্পোর্টস রিপোর্টার, ব্রিস্টল থেকে | ১২ জুন ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:২৬
ব্রিস্টলে বৃষ্টির কারণে খেলা হয়নি গতকাল। তাই ইংল্যান্ডের পর্যটনের অন্যতম আকর্ষণ ‘সাসপেনশন ব্রিজে’ বেড়াতে এসেছিলেন আসাদুজ্জামান নূর। এক সময়ের জনপ্রিয় নাট্য ব্যাক্তিত্ব এখন পুরোপুরি রাজনৈতিক নেতা। বতর্মান সরকারের সাবেক সংষ্কৃতি মন্ত্রী ও বর্তমান এমপি। সেই সঙ্গে তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেটের একজন দারুণ ভক্তও। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের এবারের আসর হচ্ছে ইংল্যান্ডে। তাই তিনি পরিবার নিয়ে চলে এসেছেন। তার দেখতে আসা তিনটি ম্যাচের শেষটি অবশ্য গতকাল ব্রিস্টলের মাঠে দেখা হয়নি।
বৃষ্টির কারণে একটি বলও মাঠে গড়ায়নি। স্থানীয় সময় ১ টা ৫৮ মিনিটে শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটি পরিত্যাক্ত ঘোষণা হয়। সেই সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নিতে হয় লঙ্কানদের সঙ্গে।

তাই মন খারাপ আর ভিষণ হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়েন সব টাইগার ভক্তরা।  অন্যদিকে নাট্যকার নূরের বিষণœ মন নিয়ে বেরিয়ে পড়েন বাড়াতে সাসপেনশন ব্রিজে। সেখানেই কথা হয় খেলা নিয়ে। বিশেষ করে বর্তমান জাতীয় সংসদে তার সহকর্মী হিসেবে আছে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এবার তার শেষ বিশ্বকাপ। এরপর রাজনৈতিক কারণে খেলা আর কতটা চালিয়ে যেতে পারবেন তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন নূর। তিনি বলেন, ‘সংসদ সদস্য হিসেবে আগামীতে ক্রিকেট খেলা তার জন্য সহজ হবে কিনা জানি না। হয়ত কঠিনই হয়ে যাবে। তবে মাশরাফি আমাদের বাংলাদেশের ক্রিকেটে অনেক বড় অবদান রেখেছে। অধিনায়ক হিসেবে এবং একজন খেলোয়াড় হিসেবে, সর্বপরি ক্রিকেটার হিসেবে বাংলাদেশকে অসাধারণ নেতৃত্ব দিয়ে একটা বড় জায়গায় নিয়ে গেছে। তার প্রতি অভিনন্দন এবং আজকে তাকে সংসদে একজন সহযাত্রী হিসেবে পেয়ে আমি গর্বিত।’

ক্রিকেটার হিসেবে মাশরাফির জনপ্রিয়তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণে এখন মাশরফির সমালোচনায় কম নয়। তবে এমপি হিসেবে মাশরাফিকে নিয়ে ভিষণ আশা নূরের। তিনি বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে তো সংসদ সদস্য হিসেবে ভূমিকা পালন করার সুযোগ সেভাবে এখনও পায়নি। তবে আশা করি ক্রিকেটে যেমন সাফল্য দেখিয়েছে সংসদ সদস্য হিসেবে তেমন সাফল্য তিনি দেখাবেন।’



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিশেষ বরাদ্দের চাল-গমের জন্য তদবিরবাজদের ভিড়

বিজয়নগরে স্বতন্ত্র প্রার্থী নাছিমা বিজয়ী

ভাগ্নে অপহরণের ‘তদন্তে’ সোহেল তাজ

দুই মামলায় আটকে আছে খালেদার মুক্তি

ইফায় অচলাবস্থা, ডিজির পদত্যাগ দাবি কর্মকর্তাদের

কমিউনিটি ক্লিনিকে আরো ১২০০০ কর্মী নিয়োগ হচ্ছে

ক্রাইম পেট্রোল দেখে খুন, অতঃপর...

৫ স্কুলছাত্রীসহ ৭ নারী ধর্ষিত

ধর্ষণ মামলার প্রতিবেদন বিলম্বে দেয়ায় চিকিৎসককে তলব

অর্থমন্ত্রী বাসায় ফিরেছেন

বিচারাধীন মামলা ৩৫ লাখ ৮২ হাজার

মধ্যপ্রাচ্যে আরো ১০০০ সেনা মোতায়েন করছে যুক্তরাষ্ট্র

এক মাসের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ

রাষ্ট্র ও বিচার ব্যবস্থার ওপর জনগণের আস্থা হারিয়ে গেছে

রংপুরে জেলা পরিষদের প্রায় অর্ধকোটি টাকা লুটপাট