খাদ্যগুদাম কর্মকর্তাকে অস্ত্রের মুখে রেখে ৩৭ লাখ টাকার অগ্রিম চেক লিখিয়ে নিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে | ২১ মে ২০১৯, মঙ্গলবার
বরিশালের গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী অটোরাইস মিলের মালিক মো. ফরহাদ হোসেন মুন্সির বিরুদ্ধে খাদ্যগুদামে চাল না দিয়ে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে অস্ত্রের মুখে ৩৬ লাখ টাকার চেক লিখিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, গতকাল সোমবার সকালে সরকারের বোরো ধান চাল সংগ্রহ কার্যক্রমের আওতায় কৃষকের কাছ থেকে ন্যায্যম্যল্যে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধনকালে চাল ভর্তি তিনটি ট্রাক গুদাম এলাকায় প্রবেশ করায় পৌর মেয়র হারিছুর রহমানের জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে জনসমক্ষে ফাঁস হয়ে যায় খাদ্য গুদাম কর্মকর্তাকে জিম্মি করে ভাইস চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন মুন্সীর দীর্ঘদিন ধরে চালানো সকল অবৈধ কর্মকাণ্ডের ফিরিস্তি। এ সময় গৌরনদী উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্রপাল, গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দা মনিরুন নাহার মেরী, গৌরনদী পৌর মেয়র মো. হারিছুর রহমান, উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান জিনিয়া আফরোজ হেলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন ও গৌরনদী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মনির হোসেন মিয়ার কাছে মৌখিক অভিযোগ করেন, গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী অটো রাইস মিলের মালিক মো. ফরহাদ হোসেন মুন্সি দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে কোন প্রকার নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে, সরকারি নিষেধাজ্ঞাকে উপেক্ষা করে গৌরনদী খাদ্যগুদামে পঁচা চাল ও ছেড়া বস্তা দিয়ে আসছে। তিনি এ গুদামে যোগদান করার পর ভাইস চেয়ারম্যানের এহেন কার্যকলাপে বাঁধা প্রদান করলে তিনি তাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করেন। যা ফুড ইন্সপেক্টর অশোক চৌধুরী অবগত আছেন। এসময় তিনি জানান, এবার দেশব্যাপী ধান সংগ্রহের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুসারে গৌরনদীতে আমরা যখন ধান সংগ্রহের জন্য ব্যস্ত, তখন ফরহাদ হোসেন মুন্সী গত ১৮ই মে আমার কাছে এসে গুদামে চাল দেয়ার প্রস্তাব করেন। আমি তার চাল না নিয়ে এই মুহূর্তে ধান ক্রয় করা সংক্রান্ত প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ বাস্তবায়নের জন্য গুদাম খালি রাখার কথা জানালে, তিনি আমাকে চাপ প্রয়োগ পূর্বক হুমকির মাধ্যমে রুমের মধ্যে অবরুদ্ধ করে রাখে। এক পর্যায়ে আমার রুমের টেবিলের ওপর অবৈধ অস্ত্র রেখে আমাকে ভয় দেখায় এবং আমাকে হুমকি দেয় যে, এ উপজেলায় চাকরি করতে হলে আমার নির্দেশ মানতে হবে। এরপর চাল না দিয়ে সে জোরপূর্বক আমাকে ছত্রিশ লক্ষ সাতশত বিশ টাকার একটি অগ্রিম চেক দিতে বাধ্য করেন। যার চেক নম্বর- ডছঝঈ ২৬৬০৯৫০। জীবনের ভয়ে আমি এ কথা এর আগে কাউকে জানাইনি। গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী এ্যাগ্রো অটো রাইস মিলের মালিক ফরহাদ হোসেন মুন্সীর নানা অপকর্মের ফিরিস্তি তুলে ধরার পর ওই ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহনসহ নিজের চাকরি ও জীবনের নিরাপত্ত্বা চেয়ে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্রপাল গতকাল সোমবার দুপুরে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন এর বরাবরে একটি আবেদন করেছেন। অভিযোগ অস্বীকার করে গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী এ্যাগ্রো অটো রাইস মিলের মালিক ফরহাদ হোসেন মুন্সী বলেন, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্রপালের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘খালেদা জিয়াকে এতো ভয় পান কেন’

বাংলাদেশ দলে পরিবর্তনের ছড়াছড়ি

জাবির সাহসী সাংবাদিকেরা

জননিরাপত্তা আইনে আটক দেখানো হয়েছে ফারুক আবদুল্লাহকে

হাসি হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা প্রাক্তন স্বামীর

পুঁজিবাজারে আমরা সুশাসন আনবো: অর্থমন্ত্রী

পারস্য উপসাগরে আবার উত্তেজনা, যুদ্ধের আশঙ্কা

ফেসবুকে ক্ষমা চেয়েছেন রাব্বানী

বিশ্ববাজারে তেলের দাম বাড়ছে রেকর্ড পরিমাণে

কাশ্মীরে জোরপূর্বক গুম, ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন, গণগ্রেপ্তার

নিঃস্ব হয়ে সৌদি থেকে ফিরলেন ১৭৫ বাংলাদেশী

কঙ্গোতে বোট ডুবে নিখোঁজ ৩৬

যে কারণে শহিদুল আলমকে ভিসা দিল না ভারত

পিরোজপুরে তরুণীকে গণধর্ষণ

চুম্বনের দৃশ্যে আপত্তি!

আজাদ কাশ্মীর দখল করে নেবে ভারত!