সাত তরুণের পাশে দাঁড়ালো একটি প্রতিষ্ঠান

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ মে ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:১১
গত ১৫ই মে রাজধানীর মিরপুরের ৬০ ফিট এলাকায় ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে টেক রিভিউয়ার সাত তরুণের প্রতিষ্ঠান ‘এটিসি’র দুই সদস্য। এ সময় তাদের সাথে থাকা প্রায় আড়াই লাখ টাকা মূল্যের ক্যামেরা, লেন্স ও অনান্য তথ্যপ্রযুক্তি পণ্যসহ একটি ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায় মোটরসাইকেলে থাকা দুই ছিনতাইকারী। এ বিষয়ে পরদিন দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার শেষ পাতায় ‘ছিনতাইকারীরা নিয়ে গেল সাত তরুণের স্বপ্ন’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। মানবজমিনের প্রতিবেদন দেখে দেশের অন্যতম প্রধান একটি ব্যবসায়িক গ্রুপ উদ্যোমী সাত তরুণের পাশে দাঁড়ানোর আগ্রহ প্রকাশ করে। পরদিন, ১৭ এপ্রিল বিকালে ব্যবসায়িক গ্রুপটির প্রধান কার্যালয়ে ‘এটিসি’র সদস্যদের হাতে নগদ আড়াই লাখ টাকা তুলে দেয়া হয়। তবে, প্রতিষ্ঠানটি তাদের নাম প্রকাশ না করতে অনুরোধ করে। এটিসির উদ্যোক্তা আশিকুর রহমান তুষার বলেন, সংবাদপত্র দেশের মানুষের জন্য যে কাজ করে তার প্রমাণ পেলাম আমরা। আর আমাদের মতো তরুণরা যে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের পর আবারো ঘুরে দাঁড়াতে পারলাম এটা আমাদের জীবনের টার্নিং পয়েন্ট। তবে যে প্রতিষ্ঠানটি আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে তাদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মোদির বিরুদ্ধে পররাষ্ট্রনীতি লঙ্ঘনের অভিযোগ

‘নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় আটক দু’ভাই জেএমবি’র সদস্য’

ছবিতে এমি অ্যাওয়ার্ডস

শামীমের টাকার ভাগ পেতেন প্রভাবশালী কয়েক নেতা

বন্ধ হয়ে গেল ১৭৮ বছরের প্রতিষ্ঠান থমাস কুক

যুক্তরাষ্ট্রে বিরল সংবর্ধনায় একে অন্যের প্রশংসায় পঞ্চমুখ মোদি-ট্রাম্প

ভারতে দেহব্যবসায় বাধ্য করানো ৮ বাংলাদেশী যুবতীকে উদ্ধার

বাংলাদেশ সফরে ভারতীয় নৌবাহিনী প্রধান

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ‘জঙ্গি বিরোধী’ অভিযান চলছে

বিশ্বনেতারা থাকলেও থাকছেন না ট্রাম্প

যোগদানের দ্বিতীয় দিনেই পদত্যাগ করলেন ইবি’র প্রক্টর

‘কাজটি করতে গিয়ে নিজেই অবাক হয়েছি’

বাড়ির কাজ বন্ধ রাখতে ক্রসফায়ারের হুমকি!

ডেঙ্গু: এবার ‘শক সিন্ড্রোমে’ মৃত্যু বেশি

বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারের নির্দেশনা

অভিযান ইতিবাচক, এতদিন হয়নি কেন?