বিজেপিকে থামাতে...

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৮ মে ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:০৯
বিজেপিকে ক্ষমতায় ফেরা থামাতে কংগ্রেসকে সমর্থন দেবে জনতা দল (সেকুলার) বা জেডি(এস)। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও জেডিএস দলের প্রধান এইচডি দেবে গৌড়া শনিবার বলেছেন, তার দল কংগ্রেসকে দৃঢ়তার সঙ্গে সমর্থন করছে। বিজেপিকে থামাতে তিনি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গঠনের পক্ষে এমন মন্তব্য করেছেন। তবে তিনি এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। দেবে গৌড়া বলেন, লোকসভা নির্বাচনের ফল ২৩ মে ঘোষণা হবে। ওইদিন পুরো দেশের চিত্র পরিষ্কার হবে। এ উপলক্ষ্যে তিনি বলেন, আমরা কংগ্রেসের সঙ্গে আছি।
এ নিয়ে অতিরিক্ত কিছু বলতে চাই না। ২৩ মে সব কিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে।

জন্মদিন উপলক্ষে লর্ড ভেঙ্কটেশ্বর মন্দিরে প্রার্থনার পর এ মন্তব্য করেছেন ভারতের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন পরিবারের সদস্য, কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারাস্বামী। জেডিএস প্রধান দেবে গৌড়া বলেন, তার দল কর্নাটকে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের অংশীদার। জোটবদ্ধভাবেই তারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। বিজেপিকে ক্ষমতা থেকে দূরে রাখার জন্য কংগ্রেসকে সমর্থন করবে তার দল।  

অন্যদিকে ইউপিএ চেয়ারপারসন সোনিয়া গান্ধী এনডিএ দলের সঙ্গে নেই- এমন পার্টির নেতাদের বৈঠক ডেকেছেন ২৩ মে। তবে দেবে গৌড়া বলেছেন, তিনি সোনিয়া গান্ধীর কাছ থেকে এ বিষয়ে কোনো আমন্ত্রণ এখনো পান নি। তা সত্ত্বেও তিনি ওই বৈঠকে যোগ দিতে পারলে খুশি হবেন। দেবে গৌড়া বলেন, এমন বৈঠক আহ্বান করে সোনিয়া গান্ধী রাজনৈতিক পরিপক্বতা প্রদর্শন করছেন।

জেডিএস প্রধান বলেন, কংগ্রেসের সমর্থন ছাড়া কেন্দ্রে আঞ্চলিক দলগুলোর সরকার গঠন করা সম্ভব নয়। তিনি আরো বলেন, অনেক নেতাই প্রধানমন্ত্রী হতে চান। এটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যে, বিভিন্ন দলের প্রধানমন্ত্রীর নামের বিষয়ে একটি ঐকমত্যে পৌঁছা উচিত।

অন্যদিকে মিডিয়ার সঙ্গে আলাপকালে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারাস্বামী বলেছেন, লোকসভা নির্বাচনে ভাল ফল করেছে কংগ্রেস ও জেডিএস। এ রাজ্যে লোকসভা নির্বাচনে আসন মোট ২৮টি। এর মধ্যে কমপক্ষে ১৮ থেকে ১৯টি আসনে বিজয়ী হবে এই জোট। কংগ্রেসকে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় পর্যায়ে সমর্থন দিয়ে যাবে জেডিএস।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০১৯-০৫-২১ ০১:৫৮:২০

ভারতে সাম্প্রদায়িক অশান্তি দূর করতে ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ফিরিয়ে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল করতে বিজেপি সরকার পরিবর্তন জরুরি । যদি আবার বিজেপি সরকার গঠন করে তবে ভারত অনেক পিছিয়ে পরবে। লাগামহীন সাম্প্রদায়িক অশান্তি ছড়িয়ে পড়বে।

আপনার মতামত দিন

কবি সুফিয়া কামাল যখন গুগল ডুডল!

উন্নয়নের সঙ্গে পরিবেশ রক্ষায় গুরুত্ব দেয়াও জরুরি: প্রধানমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন ভূপাতিত করার দাবি ইরানের

যে রক্ষিতার এক রাতের উপার্জন ২০০০ পাউন্ড

সোনাগাজীতে অটোরিকশা চালককে গলা কেটে হত্যা

শিংনগর সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে বাংলাদেশী নিহত

৬৪ বাংলাদেশী সহ অভিবাসীদের বোট নোঙরের অনুমতি দিয়েছে তিউনিশিয়া

দেশে ফিরেছেন প্রেসিডেন্ট

রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সেভেন স্টার গ্রুপ লিডার নিহত

‘ঈদের দিন থেকে দর্শকরা এতেই ডুবে আছেন’

১১ দিন পর সোহেল তাজের ভাগ্নে সৌরভকে উদ্ধার

সাইফউদ্দিনকে ছাড়াই কী খেলতে হবে?

রবিন হুডের শহরে বড় আশায় মাশরাফি

আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

হঠাৎ বদলে গেল আয়াজের জীবন

পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘর্ষ চীনা শ্রমিক নিহত