চ্যাম্পিয়ন্স লীগের নতুন পরিকল্পনায় বিপাকে লা লিগা

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৭ মে ২০১৯, শুক্রবার
ইউরোপের সর্বোচ্চ ফুটবল সংস্থা উয়েফার প্রস্তাবিত নতুন আঙ্গিকের চ্যাম্পিয়ন্স লীগের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে তা লা লিগার জন্য হুমকি হবে বলে মনে করেন  সংস্থাটির সভাপতি হাভিয়ের তেবাস। ২০২৪ সাল থেকে নতুন আঙ্গিকে ক্লাব ফুটবলের প্রতিযোগিতাগুলো আয়োজনের জন্য ইউরোপের বড় সব ক্লাব নিয়ে গড়া ইউরোপিয়ান ক্লাব অ্যাসোসিয়েশনের (ইসিএ) সঙ্গে কাজ করছে উয়েফা। তবে এখনও প্রস্তাবনা নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি সংস্থাটি। আলোচনা প্রাথমিক পর্যায়ে আছে বলে জানিয়েছে তারা। সংশিষ্ট সূত্র থেকে রয়টার্স জানতে পেরেছে যে নতুন আঙ্গিকের প্রতিযোগিতাটি হবে তিন স্তর বিশিষ্ট এবং ক্লাবগুলো তিন স্তরের মধ্যে ওঠা-নামা করবে। সর্বোচ্চ স্তরের প্রতিযোগিতা হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন্স লীগের মতোই। দল থাকবে ৩২টি, তবে গ্রুপ পর্বে বর্তমানের মতো আট গ্রুপে চারটি করে দলের বদলে তখন থাকবে চার গ্রুপে আটটি করে দল। তার মানে প্রতিটি দল বর্তমানের মতো ছয়টি গ্রুপ ম্যাচ খেলার পরিবর্তে খেলবে ১৪টি ম্যাচ। ২৪টি দল পরের বছর সর্বোচ্চ পর্যায়ে জায়গা ধরে রাখবে, চারটি দল দ্বিতীয় স্তর (বর্তমান ইউরোপা লিগ) থেকে উঠে আসবে প্রথম স্তরে। অবশিষ্ট চারটি জায়গা থাকবে ইউরোপের ৫৪টি ঘরোয়া লীগের চ্যাম্পিয়নদের জন্য। এর ফলে ঘরোয়া প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় জায়গা করে নেওয়ার ঐতিহ্য ভেঙ্গে পড়বে বলে গোল টিভি চ্যানেলকে বলেন তেবাস। ‘চ্যাম্পিয়ন্স লীগ সংস্কারের একটা আলোচনা চলছে। কিন্তু আদতে এটা নতুন একটা প্রতিযোগিতা। ঘরোয়া লীগুগলো চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা করে নেওয়ার পথ হিসেবে কাজ করে। কিন্তু সেটা আর থাকবে না।’ ‘অনেকগুলো ক্লাব সবসময় সেরা ৩২ এর মধ্যেই থাকবে। দশ এর মধ্যে আমার উদ্বেগের মাত্রা সাত থেকে আট।’

“লা লিগা কি হুমকির মুখে পড়বে? হ্যাঁ, কোনো সন্দেহ নেই যে পড়বে। উয়েফা এটা করতে পারে না। আর আমরা অন্য সংস্থাগুলোকেও বোঝাতে চাই যে এটা এগোতে পারে না। আমরা একটা কৌশল দাঁড় করাতে কাজ করছি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

দেশে ফিরেছেন ভূমধ্যসাগরে প্রাণে বেঁচে যাওয়া ১৫ বাংলাদেশি

শাহজালালে সোয়া তিন কোটি টাকার স্বর্ণ জব্দ, যাত্রী আটক

ইউরেনিয়াম উৎপাদন ৪ গুণ বাড়িয়েছে ইরান, বাড়ছে উত্তেজনা

বহিস্কৃত ছাত্রলীগ নেত্রী জারিনের আত্মহত্যার চেষ্টা!

বিশ্ববিদ্যালয় পালানো শিক্ষকরা

ধনবাড়ীতে স্বামীর নির্যাতনে অন্তসত্ত্বা গৃহবধূর মৃত্যু

‘গানে সেই আবেদনটা খুঁজে পাওয়া যায় না’

মধুর ক্যান্টিনের সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রলীগের ৫ জনকে বহিষ্কার

বালিশে ওলটপালট চাকরির বাজার!

ঢাকায় বালিশ প্রতিবাদ

প্রধানমন্ত্রীর সফরে নিরাপত্তা সতর্কতা প্রত্যাহার চাইবে ঢাকা

শিশুটিকে দত্তক পেতে চতুর্মুখী লড়াই

রিকশাচালকের বিরুদ্ধে ২৭ লাখ টাকার চেক মামলা

ব্যাংকে নগদ টাকার সংকট সরকারি আমানত পেতে তোড়জোড়

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দিলো পুলিশ সদস্য

সংসদ যেন একদলীয় করে তোলা না হয়