ইংল্যান্ডের কাছে ৩৫৮ রানও মামুলি!

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৬ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার
অন্য সময় হলে হয়তো ৩০০ রান পার করেই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলত দলগুলো। কিন্তু এবারের বিশ্বকাপে ব্যাপারটা ভিন্ন হবে। ৩৫০ রানের স্কোরও নিরাপদ নাও হতে পারে। কিছুটা আঁচ করা যাচ্ছে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান ওয়ানডে সিরিজে। মঙ্গলবার সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে আগে ব্যাট করতে নেমে ৩৫৮ রান সংগ্রহ করেছিল পাকিস্তান। বড় লক্ষ্যটা এত সহজে টপকে গেল ইংলিশরা যেন ৪০০ রান হলেও ম্যাচটা তারাই জিততো। ৬ উইকেট ও ৩১ বল হাতে রেখে জিতেছ ইংল্যান্ড। যাতে জনি বেয়ারস্টোর অবদান ৯৩ বলে ১২৮! এ জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংলিশরা।
আর টানা ৭ ওয়ানডে ম্যাচে হার দেখলো পাকিস্তান।
মঙ্গলবার টসে জিতে পাকিস্তানকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ইংল্যান্ড। ব্যাট হাতে ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস খেলেন ওপেনার ইমাম-উল-হক। ১৬ চার ও ১ ছক্কায় ১৩১ বলে ১৫১ রানে আউট হন ইমাম। এছাড়াও আসিফ আলী ৫২ রান, হারিস সোহেল ৪২ রান করেন। তাদের ব্যাটে চড়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে পাকিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩৫৮/৯। ইংল্যান্ডের হয়ে বল হাতে সফল ক্রিস ওকস। ৬৭ রান দিয়ে তিনি তুলে নেন ৪ উইকেট। জবাব দিতে নেমে ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জেসন জয় ও জনি বেয়ারস্টোর উড়ন্ত সূচনা এনে দেন। দুজন মিলে ১৫৯ রানে জুটি গড়েন। ৫৫ বলে ৭৬ রানে জেসন রয়কে সাজঘরে ফেরান ফাহিম আশরাফ। কিন্তু অপর প্রান্তে থাকা বেয়ারস্টো বিধ্বংসী মেজাজে ব্যাট করে যান। ৯৩ বলে ১২৮ রানে অনবদ্য ইনিংস খেলেন এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান। ইনিংসটি সাজান ১৫ চার এবং ৫ ছক্কার মারে। এছাড়াও জো রুটের ব্যাট থেকে আসে ৪৩ রান। বেন স্টোকস করেন ৩৭ রান। শেষ পর্যন্ত অধিনায়ক মরগানকে নিয়ে জয় তুলে মাঠ ছাড়েন মঈন আলী। মরগান করেন ১৭* রান। মঈন আলীর ব্যাট থেকে আসে ৪৬* রান। ৪৪.৫ ওভারেই ৩৫৯ রানে লক্ষ্যে পৌঁছায় ইংল্যান্ড। এর আগে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ১২ ম্যাচে জিতেছিল ইংল্যান্ড।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন