১১ দফা দাবি আদায়ে আহত শ্রমিকদের অনশন

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, সাভার থেকে | ২৪ এপ্রিল ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৫
ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেককে ৪৮ লাখ টাকা প্রদান, পুনর্বাসন, আজীবন চিকিৎসা সেবা, ২৪শে এপ্রিলকে শোক দিবস ঘোষণা, হতাহত ও নিখোঁজ শ্রমিক পরিবারের শিশুদের লেখাপড়া নিশ্চিত, দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করাসহ ১১ দফা দাবিতে অনশন শুরু করেছে সাভারে বহুতল ভবন ধসে পড়া রানা প্লাজায় আহত শ্রমিকরা। গতকাল দুপুর থেকে রানা প্লাজা সার্ভাইবারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এর ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করেন তারা। এ ছাড়া ২৩শে এপ্রিল সন্ধ্যায় ভবন ধসের স্থানে আহত, নিহত ও নিখোঁজদের স্মরণে তাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় মোমবাতি প্রজ্বালন এবং দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

রানা প্লাজা সার্ভাইবারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এর সভাপতি অনশনরত মাহমুদুল হাসান হৃদয় বলেন, ১১ দফা দাবি আদায়ের জন্য আমরা অনশন শুরু করেছি। যতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের দাবি মেনে নেয়া না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা এখান থেকে সরব না, অনশন চালিয়ে যাবো। এই রানা প্লাজায় আমি জীবনের সবকিছু হারিয়েছি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভবন ধসের ঘটনায় আমি পঙ্গু হওয়ায় হাঁটতে পারছি না। ওষুধ খেতে খেতে এখন ওষুধ দেখলে ভয় লাগে।

প্রস্রাবের রাস্তায় ইনফেকশনসহ বুকে, পিঠে প্রচণ্ড ব্যথা এবং জ্বালাপোড়া করে। অর্থের অভাবে দু-বেলা দু-মুঠো পেট ভরে খাইতে পারি না। দাবি আদায়ে রানা প্লাজার সামনে এলে আমাদের দাঁড়াতে দেয়া হয় না। কালকেও রানার লোকজন এসে আমাদেরকে হুমকি দিয়ে গেছে। কালু নামে একজন নিজেকে রানার লোক পরিচয় দিয়ে আমাদের উঠে যেতে বলে নইলে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে। ক্ষতিপূরণের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকার আমাদের কোনো অনুদান দেয়নি। বিভিন্ন সংস্থা সহায়তার নামে আমাদেরকে নিয়ে ব্যবসা করেছে। নামমাত্র যা অনুদান পেয়েছিলাম তা  চিকিৎসার পেছনে খরচ হয়ে গেছে। তিনি আরো বলেন, রানা প্লাজায় ক্ষতিগ্রস্ত অনেক শ্রমিক ও তার স্বজনেরা ক্ষতিপূরণ থেকে বঞ্চিত হয়েছে। এ ছাড়া যাদের কারণে এত বড় দুর্ঘটনা ঘটলো সেই ভবন মালিকসহ জড়িতদের বিচারকার্য বিলম্বিত করা হচ্ছে। তাই বাধ্য হয়েই এবার রানা প্লাজার ৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে ধসেপরা ভবনের সামনে অনশন করছি। অনশনরত মাহমুদুল হাসান হৃদয় রানা প্লাজার অষ্টম তলায় নিউ স্টাইল লিমিটেড কারখানায় কাজ করতেন। বর্তমানে তিনি পৌর এলাকার ছায়াবিথী মহল্লায় একটি ফার্মেসি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

তেরেসা মে’র চোখে তখন পানি

২৮শে মে শপথ নিতে পারেন নরেন্দ্র মোদি

সরকার এত অমানবিক নয়

খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার

ধারণা পাল্টে দিতে চায় অভিজ্ঞ বাংলাদেশ

গান্ধী পরিবারের রাজনীতির সমাপ্তি?

দোহার-নবাবগঞ্জকে আধুনিক উপজেলায় পরিণত করবো

তৃতীয় দিনেও ট্রেনের টিকিট পেতে ভোগান্তি

মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে এলাম

চট্টগ্রামে মাদক নিয়ন্ত্রণে ‘কিশোর গ্যাং’

বাংলাদেশে মানব পাচার রোধে কাজ করছে আইওএম

মোদির সামনে যেসব চ্যালেঞ্জ

জৈন্তাপুরে এখন নয়া ‘ধান্ধা’ চোরাকারবার

ড্যাবের নির্বাচনে ডা. হারুন-সালাম প্যানেলের নিরঙ্কুশ জয়

ছয় শতাধিক কারখানায় বেতন বোনাস নিয়ে সমস্যা

এক সপ্তাহ আগে মোটরসাইকেলটি কিনেছিলেন মেহেদী