কলকাতায় আজীবন সম্মাননা পেলেন কবরী

বিনোদন

কলকাতা প্রতিনিধি | ২১ এপ্রিল ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:১৪
বাংলাদেশের বিশ্ববরেণ্য অভিনেত্রী কবরী সায়োয়ারকে কলকাতায় এক অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। গত শনিবার কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলে বেঙ্গল ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন চেম্বার অব কমার্স (বিএফটিসিসি)-র আজীবন সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান এবং চতুর্থ  বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনে দুই বাংলার ৫ জন বিশিষ্ট মানুষকে আজীবন সম্মাননা এবং একজনকে বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে অতিথি চিত্রনায়ক আলমগীর বলেছেন, আমার ভালো লাগার শহর কলকাতা। এই শহর আমাকে ডাকলেই চলে আসি। গত বছর এই সম্মান নেওয়ার সময় বাংলা চলচ্চিত্র জগতের প্রাণপুরুষ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সান্নিধ্য পেয়েছিলাম। এবার এসে আবার নতুন করে ভালোবাসার আবেগে আপ্লুত হয়েছি। দুই বাংলার প্রিয় অভিনেত্রী কবরী সারোয়ারকে চলচ্চিত্রে অবদান রাখার জন্য  ‘রাজ রাজ্জাক লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ দিয়ে সম্মানিত করা হয়েছে। কবরীর হাতে মানপত্র ও একটি প্লেক তুলে দিয়েছেন বিশিষ্ট সুরকার দেবজ্যোতি মিশ্র ও অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। পুরস্কার নিয়ে কবরী বলেছেন, কলকাতা আমার অন্যতম প্রিয় শহর। 

সময় পেলে ছুটে আসি এই প্রিয় শহরে। আর কলকাতায় এই সম্মান পেয়ে আমি গর্বিত এবং আপ্লুত। এদিনের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বসুন্ধরা শিল্প গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানকে দেওয়া হয়েছে বিশেষ ‘ইনফরমেশন কমিউনিকেশন এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’। আকবর সোবহানের হয়ে এই পুরস্কার গ্রহণ করেছেন বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম। তিনি পুরষ্কার নিয়ে বলেছেন, এই পুরস্কারের ফলে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে। এবং এই সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে উৎসাহিত করবে। এদিনের অনুষ্ঠানে কলকাতার বর্ষীয়ান অভিনেত্রী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়কে হীরালাল সেন নামাঙ্কিত আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হযেছে। পুরস্কার নেবার পর প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেছেন, পুরস্কার পেতে তো সবারই ভালো লাগে। আমারও লাগে। তবে হীরালাল সেনের নামাঙ্কিত পুরস্কার পেয়ে আমি মুগ্ধ।  হীরালাল সেন আমার আদর্শ।

বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা উৎপলেন্দু চক্রবর্তীকে সম্মানিত করা হয়েছে  ‘দেবকী কুমার বসু লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ দিয়ে।  ১১৫ বছরের চলচ্চিত্র প্রতিষ্ঠান অরোরা ফিল্মকে দেয়া হয়েছে ‘বিএন সরকার লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’। সাংবাদিক গৌতম ভট্টাচার্যকে দেওয়া হয়েছে কালীশ মুখোপাধ্যায় লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড। এদিনের অনুষ্ঠানের তনুশ্রীশঙ্করের ট্রুপ পরিবেশন করেন নৃত্য। শুরুতে প্রদীপ জ্বালিয়ে এই অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশের চিত্রনায়ক আলমগীর, বাংলা ছবির জনপ্রিয় নায়ক প্রসেনজিৎ, মন্ত্রী  ব্রাত্য বসু, চলচ্চিত্র পরিচালক শতরূপা সান্যাল ও বিএফটিসিসির সভাপতি ফেরদৌস হাসান। ফিল্ম উৎসবের চেয়ারপারসন শতরূপা সান্যাল বলেছেন, নতুন চলচ্চিত্র নির্মাতাদের উৎসাহিত করার জন্য প্রতিযোগিতা মূল স্বল্পদৈর্ঘ্যরে এই চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। এবছর ১৫০ জন আবেদন করলেও বাছাই করে ৪০টি ছবি উৎসবে দেখানো হচ্ছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ডেঙ্গুতে সারাদেশে ৪ জনের মৃত্যু

জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস আমাজন অভিযোগের তীর সরকারের দিকে

সিরিজ খোয়ালো ইমার্জিং দল

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সর্বোচ্চ সম্মাননা পেলেন মোদি

মিয়ানমারেরও শক্তিশালী বন্ধু আছে: কাদের

রোহিঙ্গাদের দেশে ফেরত পাঠাতে যুক্তরাষ্ট্র চাপ অব্যাহত রাখবে: মিলার

শায়েস্তাগঞ্জে ট্রাকচাপায় শ্রমিক নিহত

ময়মনসিংহে ডেঙ্গুতে শিশুর মৃত্যু

বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরের দায়ে ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে ব্রিজের রেলিং ভেঙে বাস খাদে, নিহত ৮

ধনাঞ্জয়া ১০৯, শ্রীলঙ্কা ২৪৪

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সাইফের সেঞ্চুরি

নাটোরে স্বামী-স্ত্রীর আত্মহত্যা

বঙ্গবন্ধুর কথা ষোলআনা অমান্য করা হচ্ছে: ড. কামাল

বিকেলে জরুরি বৈঠকে বসছে বিএনপির স্থায়ী কমিটি

প্রয়াত ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি