টাকার অভাবে চোখের চিকিৎসা বন্ধ সুমাইয়ার

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার
সুমাইয়া জাহান। শিবালয় উপজেলার কৃঞ্চাদিয়া গ্রামে বাড়ি। বাবা অন্যের খেতে কৃষি কাজ করেন। মা গৃহিণী। দুই ভাই ৪ বোনের মধ্যে উপার্জনক্ষম এক ভাই গার্মেন্টে চাকরি করেন। ২০১৪ সালে বাড়িতে খড় শুকানোর কাজ করছিলেন ৭ম শ্রেণি পড়ুয়া সুমাইয়া। কাজের এক ফাঁকে অন্যের আড়ালির খোঁচায় মারাত্মক আঘাত পান চোখে। প্রথমে স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা নিলেও ঢাকায় রেফার করে চিকিৎসক।
ফার্মগেইটের ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতাল থেকে পাঠানো হয় আগারগাঁওয়ের চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটে। সেখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা জানান, প্রাপ্ত বয়ষ্ক হলে অপারেশন করা যাবে। কিছু ওষুধ দিয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয় গ্রামে। সে বছর কোনো রকম ৭ম শ্রেণির পরীক্ষা দিলেও ৮ম শ্রেণির পরীক্ষা দেয়া হয়নি তার। বই পড়া বা দীর্ঘক্ষণ তাকিয়ে থাকলে চোখ ও মাথা ব্যথা করে সুমাইয়া জাহানের। তাই ২০১৪ সাল থেকে ১৯ সাল পর্যন্ত দিনের অধিকাংশ সময় ঘুমিয়েই কাটে তার। সম্প্রতি চোখের যন্ত্রণা বেড়ে যাওয়ায় তাকে নিয়ে আসা হয় আগারগাঁও চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটে। তবে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন পরীক্ষা নিরিক্ষা বাদে শুধু চোখের অপরেশনের জন্যই লাগবে ৫০ হাজার টাকা। দ্রুত অপারেশন না হলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে দু’টি চোখই। কিন্তু নুন আনতে পানতা ফুরানো সুমাইয়ার পরিবারের পক্ষে এতো টাকা জোগাড় করা অসম্ভব ব্যাপার। তাই বিত্তবান ও হৃদয়বানদের কাছে সাহায্য চেয়েছেন সুমাইয়া জাহান এবং তার পরিবার। সাহায্য পাঠানোর বিকাশ ও যোগাযোগ নম্বর ০১৬৪৬৩৩২৩৮২( সুমাইয়ার মা দিল আফরোজ)।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কেন্দুয়ায় পানিতে পড়ে ৩ শিশুর মৃত্যু

নববধূকে সিগারেটের আগুনে ছ্যাঁকার অভিযোগ, মামলা

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

৩০ এপ্রিলের মধ্যে বিএনপির বাকিরাও শপথ নেবেন : হানিফ

লাবণ্যকে বহনকারী মোটরবাইক চালক আটক

সরকারের চাপে শপথ নিচ্ছে বিএনপির নির্বাচিতরা

‘গেট আউট’ মোকাব্বির যোগ দিলেন গণফোরামের কাউন্সিলে

‘সাংগ্রি-লা হামলায় নিহত হয়েছে জাহরান হাশমি’

শ্রীলঙ্কায় হামলার আশঙ্কা, মসজিদ বা গির্জায় প্রার্থনা না করার আহ্বান

নড়াইলে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

ইরাকে ৪৫ বাংলাদেশী শ্রমিক উদ্ধার

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে মিছিল

কথিত বাংলাদেশী অভিবাসী ইস্যুতে উত্তপ্ত ভারতের সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ

‘মাসের ত্রিশ দিনই ক্যামেরার সামনে থাকতে হচ্ছে’

বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতিকে শোকজ

কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত