রাজনীতির নতুন সমীকরণ

ভেঙে যাচ্ছে জাবির সম্মিলিত শিক্ষক জোট

দেশ বিদেশ

জাবি প্রতিনিধি | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ হওয়ার পর আওয়ামী লীগের একাংশ, বিএনপি ও বামপন্থি শিক্ষকদের জোট সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ ভেঙে যাচ্ছে। মূলত এই জোটের আওয়ামী অংশের দল পরিবর্তনে অবিশ্বাস থেকে জোট থেকে সরে দাঁড়াতে চায় বিএনপিপন্থি অংশ। সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের বিভিন্ন অংশের কয়েকজন নীতিনির্ধারকের সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। সম্প্রতি জোটের আওয়ামী অংশ সাবেক ভিসি শরীফ এনামুল কবিরপন্থি ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ’-এর শতাধিক (১১৩ জন) শিক্ষক বর্তমান ভিসি ফারজানা ইসলামপন্থি ‘বঙ্গবন্ধু আদর্শের শিক্ষক পরিষদ’-এ যোগ দেয়ায় এই জোট দুর্বল হয়ে পড়ে। একই কারণে শরিকদের মধ্যে অবিশ্বাস জন্ম নেয়ায় জোট ভেঙে যাচ্ছে।
জাতীয়তাবাদী শিক্ষক সমাজের অন্যতম নীতিনির্ধারক জোটের যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক শামসুল আলম সেলিম বলেন, ‘জাবির শিক্ষক রাজনীতির বর্তমান পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। আমরা দলীয়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। শিগগিরই দলের সাধারণ সভা ডেকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’ তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির দুজন নীতিনির্ধারক বলেন, ‘সাবেক ভিসি শরীফ এনামুল কবিরপন্থি শিক্ষকরা তাদের নেতাদের ওপর আস্থা রাখতে পারেননি। তাদেরকে আমরা কীভাবে বিশ্বাস করব।
আমরা আমাদের স্বতন্ত্র রাজনীতি করব।
সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের সদস্য সচিব বিএনপিপন্থি শিক্ষক অধ্যাপক জামাল উদ্দীন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে নিয়ে সোচ্চার হতে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ গঠন করা হয়েছিল। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতি আমরা পর্যবেক্ষণ করছি।’ সম্মিলিত শিক্ষক সামজে আওয়ামীপন্থি অংশে মুখপাত্র হিসেবে পরিচিত ছিলেন জোটের আহ্বায়ক অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদার, অধ্যাপক ফরিদ আহমেদ (পদার্থ বিজ্ঞান), সহযোগী অধ্যাপক ফরিদ আহমেদ (দর্শন), অধ্যাপক কৌশিক সাহা, অধ্যাপক আলমগীর কবিরসহ প্রমুখ। এছাড়া এই অংশের বুদ্ধিজীবী বলে পরিচিত অধ্যাপক লায়েক সাজ্জাদ এন্দেল্লাহ, অধ্যাপক শাহেদুর রশিদ। তাদের মধ্যে সহযোগী অধ্যাপক ফরিদ আহমেদ (দর্শন) রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছেন এবং বাকিরা বর্তমান ভিসিপন্থি  ‘বঙ্গবন্ধু-আদর্শের শিক্ষক পরিষদ’-এ যোগ দিয়েছেন। ফলে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের আওয়ামী অংশের দায়িত্বশীল সূত্রের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের নতুন সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক খবির উদ্দীন বলেন, ‘আমি সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের কেউ না। তবে এই জোট বিশ্ববিদ্যালয়ের বৃহত্তর স্বার্থে গঠন করা হয়েছে। আশা করি জোট এবং জোটের কার্যক্রম বহাল থাকবে। জানা যায়, গত সেপ্টেম্বরে বর্তমান ভিসিপন্থি তৎকালীন  বঙ্গবন্ধু-আদর্শের শিক্ষক পরিষদে ২২০ জন মতো শিক্ষক ছিলেন। এই বছরের জানুয়ারিতে শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হলেও  পরাজিত প্রার্থীরা দলের ব্যানারে গড়ে ২৪০টি ভোট পায়। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের অপরাংশ শরীফ এনামুল কবিরপন্থি দলে দুই শতাধিক শিক্ষক ছিলেন। কিন্তু কয়েক দিন আগে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপকে এক হতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে নির্দেশনা আসে। নির্দেশের পর আওয়ামী লীগের বর্তমান ভিসিবিরোধী অংশের ১১৩ জন শিক্ষক ভিসিপন্থি দলে যোগ দেয়। এই যোগদান উপলক্ষে ভিসিপন্থিরা দলের নাম কিঞ্চিৎ পরিবর্তন করে ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পর্ষদ’ নামকরণ করেন। পহেলা বৈশাখে  ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পর্ষদ’-এর শুভেচ্ছা বার্তায় ৩৪৩ জন শিক্ষকের নাম রয়েছে। এছাড়া আরও বেশ কয়েকজন শিক্ষক যোগদানের অপেক্ষায় রয়েছেন বলে বিভিন্ন সূত্র নিশ্চিত করেছে। ফলে  বর্তমানে ভিসিবিরোধী আওয়ামী অংশে সর্বসাকুল্যে ৭০-৮০ জন শিক্ষক রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।
নতুন নাম দেয়া বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক বশির আহমেদ বলেন, আমরা চাই আওয়ামী শিক্ষকরা এক জোট হয়ে কাজ করুক। আমাদের আহ্বান সবসময় বহাল থাকবে। এখন ৩৫০ মতো শিক্ষক আমাদের দলে আছে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে আরও বেশ কয়েকজন আমাদের দলে যোগদান করবেন। যোগদান প্রক্রিয়া অব্যাহত আছে।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে আওয়ামী লীগের বিবাদমান দুপক্ষে দূতিয়ালি করা এক শিক্ষক বলেন, আমরা কয়েকজন চেষ্টা করছি দুই দলকে এক করতে। এমনকি এইচটি ইমামের সঙ্গে বৈঠকেও তিনি বলেছিলেন দুই দলকে এক করার বর্ধিত সভায় তিনি নিজে উপস্থিত থাকবেন। কিন্তু একজন সাবেক ভিসি ও একজন প্রো-ভিসির নারাজিতে সেটা হয়ে উঠছে না। কয়েকজন শিক্ষকের সঙ্গে সাবেক ভিসি অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবিরের ঘনিষ্ট সম্পর্কে থাকায় তারা এই মুহূর্তে এক হতে বিব্রতবোধ করছেন। তবে আগামী বছরের শুরুতে অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবির এলপিআরে গেলে সবাই একদলে যোগ দিয়ে একটি দল অবলুপ্ত করার ব্যাপারে আমরা দৃঢ়ভাবে আশাবাদী।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কেন্দুয়ায় পানিতে পড়ে ৩ শিশুর মৃত্যু

নববধূকে সিগারেটের আগুনে ছ্যাঁকার অভিযোগ, মামলা

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

৩০ এপ্রিলের মধ্যে বিএনপির বাকিরাও শপথ নেবেন : হানিফ

লাবণ্যকে বহনকারী মোটরবাইক চালক আটক

সরকারের চাপে শপথ নিচ্ছে বিএনপির নির্বাচিতরা

‘গেট আউট’ মোকাব্বির যোগ দিলেন গণফোরামের কাউন্সিলে

‘সাংগ্রি-লা হামলায় নিহত হয়েছে জাহরান হাশমি’

শ্রীলঙ্কায় হামলার আশঙ্কা, মসজিদ বা গির্জায় প্রার্থনা না করার আহ্বান

নড়াইলে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

ইরাকে ৪৫ বাংলাদেশী শ্রমিক উদ্ধার

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে মিছিল

কথিত বাংলাদেশী অভিবাসী ইস্যুতে উত্তপ্ত ভারতের সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ

‘মাসের ত্রিশ দিনই ক্যামেরার সামনে থাকতে হচ্ছে’

বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতিকে শোকজ

কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত