মাইমল রকির কৌশলেই পরাস্ত ছোটন

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার, বিরাটনগর নেপাল থেকে | ২১ মার্চ ২০১৯, বৃহস্পতিবার
ভারতের মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে ৪-২-৪ ফরমেশনে খেলাটাই বুমেরাং হয়েছে বাংলাদেশের। বাংলাদেশের অতি আক্রমণাত্মক মনোভাবটাই কাজে লাগিয়েছে ভারত। ম্যাচে বাংলাদেশের হজম করা চারটি গোলই হয়েছে পাল্টা আক্রমণ থেকে। বাংলাদেশের আক্রমণগুলো নিস্তেজ হয়েছে ভারতের বক্সের সামনে এসেই। ওই বল লম্বা করে কখনও সাঞ্জু কখনও রত্মা বালা দেবীর উদ্দেশে ফেলেছে ভারতীয় রক্ষণভাগ। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে গোল আদায় করেছে ভারত। এরপরেও নিজেদের কৌশলে ভুল ছিল বলে স্বীকার করেননি বাংলাদেশের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তার মতে কৌশলে নয় মেয়েদের ছোটখাটো ভুলেই ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছে বাংলাদেশ।
ভারতের কোচ মাইমল রকি বলেন, এই ম্যাচের জন্য বেশ কিছু পরিকল্পনা করেছিলাম, মেয়েরা সেগুলো খুব ভালোভাবে বাস্তবায়ন করেছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলা অনেক সময় কঠিন হয়ে যায় কিন্তু এই ম্যাচে তারা পেরেছে। তাই এই জয় এসেছে।
গতকাল বিরাটনগরের চার গোলে হারা ম্যাচের সংবাদ সম্মেলনে একাই এসেছিলেন গোলাম রব্বানী ছোটন। সেখানে ম্যাচের বিশ্লেষণ করতে গিয়ে নারী দলের এই কোচ বলেন, প্রথম ১৭ মিনিট পর্যন্ত দেখবেন আমরাই এগিয়ে ছিলাম। এরপর আবার সেই নিজেদের ভুল থেকেই গোল খেয়ে আসলে ছন্নছাড়া হয়ে গেছি। ভুলে গোল খাওয়ার পর আর মেয়েরা খেলায় ছিল না। ভারতের বিপক্ষে আগের নয় ম্যাচে ৩৯ গোল হজমের বিপরীতে বাংলাদেশ দিতে পেরেছে মাত্র চার গোল। চলতি আসরের শুরুর দুই ম্যাচে ভারত দিয়েছে ১১ গোল। এমন শক্তিশালী দলের বিপক্ষে শুরুতেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলা বুমেরাং হয়েছে কিনা জানতে চাইলে ছোটন বলেন, এটা বুঝতে হবে ভারত অনেক পরিপক্ব দল। আমি আগেও বলেছি। আসলে গোল খাওয়ার পর দল নার্ভাস হয়ে যায়। এই জায়গাটায় উন্নতি করতে হবে। গোল খাওয়ার আগ পর্যন্ত সবকিছু ঠিক ছিল, গোল খাওয়ার পর ব্রেক হয়ে গেছে। তাছাড়া আমাদের মেয়েদের যেখানে থাকার কথা ছিল, সেখানে তারা ছিল না। একসঙ্গে হয়ে যাওয়ায় প্রতিপক্ষের ১২ নাম্বার (ইন্দুমতি) ফ্রি হয়ে গেছে এবং এ কারণে গোল হয়েছে। নেপালের কাছে তিন গোল এবং ভারতের কাছে চার গোলে হারার পরও দল ভালো খেলেছে বলে দাবি করেন ছোটন। ‘মিয়ানমারে ভারতের কাছে ৭-১ গোলে হেরেছিলাম। সেখানে আমরা দাঁড়াতেই পারেনি। আজকের ম্যাচে মেয়েরা ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে এবং খেলার চেষ্টা করেছে। গোল হয়েছে কিন্তু খেলার চেষ্টা করেছে- এটাও আপনাদের দেখতে হবে’-বলেন তিনি। ভারতের কোচ মাইমল রকি বলেন, আমরা শুরুর ১০-১৫ মিনিট খুবই সংগ্রাম করেছি। এরপর মেয়েরা গতির সঙ্গে অভ্যস্ত হয়ে গোল পেয়েছে এবং প্রথমার্ধেই তিন গোল করে এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশ আসলেই খুব ভালো খেলেছে। বাংলাদেশের ম্যাচ নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা ছিল জানিয়ে রকি বলেন, আমরা বাংলাদেশের আগের দুই ম্যাচ দেখেছি। সেটা দেখেই আমরা এই পরিকল্পনা সাজিয়েছি। মেয়েরা সেগুলো খুব ভালোভাবে বাস্তবায়ন করেছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলা অনেক সময় কঠিন হয়ে যায় কিন্তু এই ম্যাচে তারা পেরেছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

চিরঘুমে জায়ান

সিপিডির বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য

শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৯

কার্যকর গণতন্ত্রে মানবাধিকার ও মিডিয়ার স্বাধীনতা গুরুত্বপূর্ণ

সাংবাদিকদের চোর বলিনি

প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে রিট

আইসিডিডিআর’বিতে ঘণ্টায় ৩৬ নতুন রোগী

বাংলাদেশে ঝুঁকি এড়াতে সতর্কতার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

ইউক্রেনে ডিটেনশন সেন্টারে ২০৮ বাংলাদেশি

দেশবাসীকে সজাগ ও সতর্ক থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

যুক্তরাষ্ট্রে সিপ্রোহেপটাডিন রপ্তানির অনুমোদন পেলো বেক্সিমকো ফার্মা

শেখ হাসিনা মিষ্টি পাঠান মমতা পাঠান কুর্তা

৩০শে এপ্রিল শাহবাগে ঐক্যফ্রন্টের গণজমায়েত

পুলিশের ৪ সদস্যের গাফিলতি খুঁজে পেয়েছে তদন্ত কমিটি

হুমকির অভিযোগ মিজানুরের

প্রতিবাদ আর কান্নায় পালিত হলো রানা প্লাজার ৬ষ্ঠ বার্ষিকী