ইভিএমের ভিভিপ্যাট নিরাপদ কিনা জানতে চেয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৩৮
ইভিএমে ভোট করানো নিরাপদ নয় বলে বেশ কিছুদিন ধরেই অভিযোগ করেছে ভারতের বিরোধী দলগুলি। তবে নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিয়েছে, ব্যালট পেপারে ফেরার কোনও সুযোগ নেই। লোকসভা নির্বাচনের ভোট হবে ইভিএমেই। তবে সব বুথে থাকবে ভিভিপ্যাট (ভেরিফায়েড পেপার অডিট ট্রেইল) যন্ত্র। এর মাধ্যমে ভোটার নিজের ভোট সম্পর্কে নিশ্চিত হবার সুযোগ পাবেন। ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশন ভিভিপ্যাট কিভাবে কাজ করে তা ভোটারদের জানিয়ে তথ্য প্রচার শুরু করেছে।  কিন্তু নির্বাচন কমিশনের দেওয়া আশ্বাসেও আস্থা রাখতে পারেন নি দেশের বিরোধীরা। দেশের ৫০ শতাংশ ইভিএমেই কারচুপি করা সম্ভব বলে ২৩টি রাজনৈতিক দল সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন করেছিল। শুক্রবার সেই পিটিশনের শুনানির শেষে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃতাধীন বেঞ্চ সব ভিভিপ্যাট ঠিক আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নির্বাচন কমিশনকে জানাতে বলেছে। আদালতের নির্দেশ, আগামী ২৫ মার্চ পরবর্তী শুনানির দিন কমিশনের কোনও অফিসারকে শীর্ষ আদালতে গিয়ে এ ব্যাপারে সব কিছু জানাতে হবে। ২৩টি বিরোধী দলের অভিযোগ ছিল, ভিভিপ্যাট যন্ত্র থাকা ইভিএমগুলির ৫০ শতাংশই নিরাপদ নয়। সেগুলি সহজেই ‘হ্যাক’ করা যায়। ফলে, ওই সব ইভিএমের মাধ্যমে ভোটারদের মতামত সঠিক ভাবে প্রতিফলিত হওয়ার সম্ভাবনা কম।এই ২৩টি দলের মধ্যে ৬টি জাতীয় রাজনৈতিক দল, বাকী ১৭টি আঞ্চলিক দল । অভিযোগকারীদের মধ্যে নাম রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নায়ডু, এনসিপি নেতা শারদ পাওয়ার, কংগ্রেসের কে সি বেণুগোপাল, তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন, সমাজবাদী পার্টি নেতা অখিলেশ যাদব, ডিএমকে নেতা এম কে স্ট্যালিন ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ বহু নেতার। উল্লেখ্য, কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, ভোটগ্রহণ কক্ষে ব্যালট ইউনিটের সাথে ভিভিপ্যাট যন্ত্র লাগানো থাকবে। ভিভিপ্যাটে একটি স্বচ্ছ জানালা আকৃতির খোপ থাকবে। সেটির মধ্য দিয়ে ভোট দেবার সময় একটি ছাপানো কাগজের চিরকুট দেখা যাবে। এই চিরকুটে ভোট সাত সেকেন্ড সময় পাবেন নিজে যে প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন তার নাম ও প্রতীক চিহ্ন। এর পরেই সেটি কেটে যাবে। এবং নীচের বাক্সের মধ্যে জমা হবে।   



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘ঢাকায় ছিনতাইকারী নেই, সকলকে ধরে জেলে পাঠানো হয়েছে’

এফআর টাওয়ারে আগুন: নির্মাণে ত্রুটি, দায়ী ৬৭ জন

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ইন্দোনেশিয়ায় নিহত ৬

বালিশ কাণ্ডে নির্বাহী প্রকৌশলী প্রত্যাহার

ম্যাচমেকার শারদ পাওয়ার

ভারতে স্টোর রুমে ২৪ ঘন্টার নজরদারি

১০০ দিনের এজেন্ডা প্রস্তুতের নির্দেশ

খালেদা জিয়াসহ ৫ জনকে প্রাথমিক মনোনয়ন বিএনপির

আজও ক্ষতিপূরণ দেয়নি গ্রিনলাইন, তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের

শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধ-মুসলিম রক্তাক্ত পরিণতির আশঙ্কা ভারতের

ভারতে শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা, কে বসবেন দিল্লির মসনদে?

যৌনতা কমছে দেশে দেশে

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু, উপচেপড়া ভিড় কমলাপুরে

বাংলাদেশে আইএসের নেটওয়ার্কে ঘনিষ্ঠভাবে নজরদারি করছে ভারত

হুয়াওয়ে সংকটের আদ্যোপান্ত

‘চলচ্চিত্রের সময়টা এখন মোটেও ভালো যাচ্ছে না’