লোহমর্ষক হামলার ভিডিওটি না দেখার পরামর্শ মনোবিদের

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার, ৫:০৫
নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দু’টি মসজিদে বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় যে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে তা না দেখার পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ড. ইয়ান ল্যামবি। কারণ ভিডিওটি  মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বিশেষ করে শিশুদের এই ভিডিও থেকে দূরে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরের ঘটনাটির পর নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এক বার্তায় খ্যাতনামা এই মনোবিদ বলেন, ভিডিওটি দেখবেন না। এটি দেখে কোনো লাভ হওয়ার বদলে আপনাকে ট্রমাক্রান্ত করবে। সন্ত্রাসীর পৈশাচিক আনন্দ একেবারে ভয়াবহ।  
 ভিডিওটি দেখার ফলে মানসিক যে প্রতিক্রিয়া হতে পারে তা তুলে ধরে ইউনিভার্সিটি অব অকল্যান্ডের সহযোগী অধ্যাপক ল্যামবি বলেন, উদ্বেগ কাজ করবে, ঘর থেকে বেরোতে মন চাইবে না, দৈনন্দিন কাজে আগ্রহ চলে যাবে এবং ঘুম ব্যাহত হবে, যাতে মানিয়ে নেয়া যাবে না নিজেকে।

ভিডিওটি বিশেষ করে শিশুদের ভোগাবে বলে সতর্কতা দিয়ে তিনি বলেন, এই ঘটনায় শিশুদের ঘুম ব্যাহত হবে। অন্ধকার দেখলেই ভয় পাবে এবং খাবার খেতে চাইবে না।
তাই তাদের স্বাভাবিক করার জন্য সবচেয়ে ভালো মানসিক সহায়তা দিতে হবে।
উল্লেখ্য আজ দুপুরে জুম্মার নামাজের সময় সেন্ট্রাল ক্রাইস্টচার্চের আল নুর ও লিনউড মসজিদে বন্দুকধারীদের হামলায় ৪৯ জন নিহত হন। হামলার এই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরে এই ভিডিওটি টুইটার ও ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের মাধ্যম থেকে তুলে নিতে শুরু করে।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সৌম্যই পারলেন

নিজের বাড়ি ফিরতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান ব্যারিস্টার তুরিনের মা

বিশ্বকাপের ২শ ছক্কা

২০ কিলোমিটার পথ পেরুতেই লাগছে ৬ ঘন্টা

টুঙ্গিপাড়ায় ৫টি মামলায় পুরুষশূন্য এলাকা

পরিবাগে বহুতল ভবনে আগুন

সাকিব কেন ২০১৯ বিশ্বকাপের সেরা তার ব্যাখ্যা দিয়েছে ট্রেলিগ্রাফ

এশিয়া-প্যাসিফিকে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ বাংলাদেশ- এডিবি

ঝিনাইদহে ৬৩ শতক জমি নিয়ে বিরোধ তুঙ্গে

ধর্ষণ মামলা করে বিপাকে প্রতিবন্ধী যুবতীর পরিবার

যশোরে বাসচাপায় মেধাবী দুই স্কুলছাত্র নিহত

‘নাগরিকত্ব ও সম্মান নিয়ে মিয়ানমারে ফিরতে চায় রোহিঙ্গারা’

চৌদ্দগ্রামে দুই লাশ উদ্ধার

মারা গেলেন স্বামীর দেয়া আগুনে দগ্ধ সাজেনূর

লতিফ সিদ্দিকী কারাগারে

অর্থনৈতিক স্বপ্নে পৌঁছতে হলে স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে ভাবতে হবে