পশ্চিমবঙ্গের সব বুথকে স্পর্শকাতর ঘোষণার দাবি বিজেপির

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪০
পশ্চিমবঙ্গের সব বুথকে স্পর্শকাতর ঘোষণার দাবি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। বুধবার দিল্লিতে কমিশনের ফুল বেঞ্চের সঙ্গে দেখা করে বিজেপির কেন্দ্রীয় ও রাজ্য নেতারা দাবি করেছেন, পশ্চিমবঙ্গে প্রতিটি বুথে চাই কেন্দ্রীয় বাহিনী। আর স্থানীয় প্রশাসনিক আধিকারিকদের পরিবর্তে বাহিনী মোতায়েন নিয়ে যাবতীয় সিদ্ধান্ত নির্বাচন কমিশনের পর্যবেক্ষকদের নেবার দাবি জানিয়েছে। বিজেপির এই সব দাবির কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার দলীয় প্রার্থীদের সঙ্গে বৈঠকের পরে সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, বিজেপি বাংলার মানুষকে অপমান করছে। বিজেপির মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে। বিজেপি মিথ্যা কথা বলছে। মমতার অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গে অস্থিরতা তৈরির চেষ্টা করছে বিজেপি।
মমতা দেশে বিজেপি সুপার ইমার্জেন্সি চালাচ্ছে। বলেছেন, বাংলার সব বুথকে কেন অতি স্পর্শকাতর ঘোষণা করা হবে? ওরা কী ভাবছে, আমাকে নিয়ন্ত্রণ করবে? বিজেপি নেতারা নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে দেখা করে একটি স্মারকলিপিও দিয়েছেন। বিজেপির প্রতিনিধিদলে ছিলেন বিজেপি নেতা রবিশঙ্কর প্রসাদ, কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও ভূপেন যাদব। এছাড়া ছিলেন রাজ্যের বিজেপি নেতা মুকুল রায়ও। কমিশনের কাছে বিজেপি নেতারা পশ্চিমবঙ্গে আলাদা করে মিডিয়া পর্যবেক্ষক নিয়োগেরও দাবি জানিয়েছে। কমিশনের অফিস থেকে বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেছেন, আমরা কমিশনের কাছে গোটা পশ্চিমবঙ্গকে স্পর্শকাতর ঘোষণার দাবি জানিয়েছি। সঙ্গে নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে প্রতিটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়েছি কমিশনের কাছে। তিনি আরো বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গে শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের ইতিহাস নেই। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ১০০ জনের বেশি মানুষ হিংসার বলি হয়েছেন। বিরোধী দলগুলোর জয়ী প্রার্থীরা পশ্চিমবঙ্গে ঢুকতে পারছেন না। পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের কপ্টার অবতরণের অনুমতি পাচ্ছে না। বিজেপি দাবি করেছে, রাজ্য সরকারের পাঠানো রং মাখানো রিপোর্ট নয়, কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকদের রিপোর্টের ভিত্তিতে পদক্ষেপ নিতে হবে কমিশনকে। এমনকি আধাসেনা মোতায়েন করতে হবে পর্যবেক্ষকদের নির্দেশে। এছাড়া রাজ্যে যে সমস্ত আধিকারিকদের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ রয়েছে তাদের নির্বাচন প্রক্রিয়ার বাইরে রাখার আর্জি জানানো হয়েছে। বিজেপির দাবির প্রতিক্রিয়ায় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ও কলকাতার মেয়র ফিলহাদ হাকিম বলেছেন, বাংলার মানুষকে বিজেপি অপমান করছে। রাজ্যে শান্তির বাতাবরণ রয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মুফতি তাকি উসমানীর গাড়িবহরে গুলিবর্ষণ, নিহত ২

লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর

বিয়ে করলেন মোস্তাফিজ

ছেলে-মেয়ের সংবর্ধনা একসঙ্গে আয়োজন করায় শিক্ষক খুন

আশার বীজে জল সঞ্চার করেছে তাদের রক্ত, আবেগময়ী ভাষণে ক্রাইস্টচার্চের ইমাম

পশ্চিমবঙ্গে দলছুট সবাইকে প্রার্থী করলো বিজেপি

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সুলতান মনসুরের শ্রদ্ধা

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মেনন

ইতালিতে স্কুলবাস ছিনতাই করে আগুন, চালক গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে অপহরনের তিনদিন পর ক্লিনিক ম্যানেজারের লাশ উদ্ধার

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি

বাস-মাহিন্দ্রা মুখোমুখি সংঘর্ষে শিক্ষার্থীসহ নিহত ৬

আজ থেকে মাঠে নামছে বিজিবি

ফেরি ডুবে ইরাকে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

‘হৃদয় ভেঙ্গেছে তবুও ভেঙ্গে পড়িনি’