কাশ্মির হামলাকে ভয়াবহ আখ্যা দিলেন ট্রাম্প

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:০২
ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পালওয়ামায় জৈশ ই মোহাম্মদের জঙ্গি  হামলাকে ভয়াবহ বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। ঘটনা সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জেনে  বিবৃতি দেয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে সুসম্পর্কের ওপরও গুরুত্ব দিয়েছেন ট্রাম্প। গত  সপ্তাহের পালওয়ামায় জঙ্গি হামলায়  প্রাণ হারিয়েছেন ৪০ জনেরও বেশি সিআরপিএফ জওয়ান। কাশ্মীরের  ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে  বড় হামলা। ঘটনার পর স্বাভাবিকভাবেই ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে  নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক দুনিয়ায়  পাকিস্তানকে চাপে  ফেলতে মরিয়া হয়ে উঠেছে দিল্লি। আবার পাকিস্তানও চুপ করে বসে নেই। তারা শুরু করেছে কূটনৈতিক তৎপরতা। এরই মধ্যে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী ৫ দেশের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বৈঠক করেছে পাকিস্তান। তাদেরকে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, পালওয়ামা হামলায় কোনোভাবেই পাকিস্তান জড়িত নয়। সর্বশেষ সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের পাকিস্তান সফর শেষ হওয়ার পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কড়া সুরে কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, ভারত যদি আগে হামলা চালায় তাহলে তার প্রতিশোধ নেবে পাকিস্তান। তবে তিনি আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু তার বক্তব্যকে অন্যভাবে দেখা হচ্ছে ভারত থেকে। এ সম্পর্কে হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে  সুসম্পর্ক হলে সবদিক থেকেই  ভাল হবে। তিনি বলেন, ঘটনাটি আমি দেখেছি। এটি একটি ভয়াবহ ব্যাপার।এ নিয়ে আমার কাছে  অনেক রিপোর্টও জমা পড়েছে। উপযুক্ত সময় এলে  প্রতিক্রিয়া দেব। কিন্তু ভারত  এবং পাকিস্তানের সম্পর্ক যদি ভাল  হয় তাহলে  তা হবে দারুণ ব্যাপার।
জঙ্গি হামলা নিয়ে ট্রাম্প এখন মুখ খুললেও তার প্রশাসনের তরফে আগেই কড়া বার্তা এসে পৌঁছেছে। জঙ্গি  হানায় ৪০ জনেরও বেশি সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যুর  পর  মার্কিন  নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন  বল্টন ভারতের প্রধান নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালকে বলেছেন, ভারতের আত্মরক্ষার অধিকার আছে। পাশাপাশি  পাকিস্তানের প্রতি তারা  যে স্পষ্ট বার্তা দিয়েছেন সেটাও জানান জন বল্টন। হামলার পর থেকেই আমেরিকা বলে আসছে, সন্ত্রাসবাদকে  মদত দেওয়া বন্ধ করুক  পাকিস্তান। জন বল্টনের বক্তব্য প্রকাশিত হওয়ার আগে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও জানান, সন্ত্রাসবাদকে শেষ  করতে  পাকিস্তানকে  উদ্যোগ নিতে  হবে।  টুইটারে মাইক লেখেন, সন্ত্রাস মোকাবিলায় আমরা ভারতের  পাশে  আছি। সন্ত্রাসবাদ যাতে  পাকিস্তানের মাটিকে ব্যবহার না  করতে পারে  তার ব্যবস্থা তাদেরকেই করতে  হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘ঢাকায় ছিনতাইকারী নেই, সকলকে ধরে জেলে পাঠানো হয়েছে’

এফআর টাওয়ারে আগুন: নির্মাণে ত্রুটি, দায়ী ৬৭ জন

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ইন্দোনেশিয়ায় নিহত ৬

বালিশ কাণ্ডে নির্বাহী প্রকৌশলী প্রত্যাহার

ম্যাচমেকার শারদ পাওয়ার

ভারতে স্টোর রুমে ২৪ ঘন্টার নজরদারি

১০০ দিনের এজেন্ডা প্রস্তুতের নির্দেশ

খালেদা জিয়াসহ ৫ জনকে প্রাথমিক মনোনয়ন বিএনপির

আজও ক্ষতিপূরণ দেয়নি গ্রিনলাইন, তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের

শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধ-মুসলিম রক্তাক্ত পরিণতির আশঙ্কা ভারতের

ভারতে শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা, কে বসবেন দিল্লির মসনদে?

যৌনতা কমছে দেশে দেশে

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু, উপচেপড়া ভিড় কমলাপুরে

বাংলাদেশে আইএসের নেটওয়ার্কে ঘনিষ্ঠভাবে নজরদারি করছে ভারত

হুয়াওয়ে সংকটের আদ্যোপান্ত

‘চলচ্চিত্রের সময়টা এখন মোটেও ভালো যাচ্ছে না’