আমরা প্রেসের ফ্রিডমকে ইউকে’র পর্যায়ে নিতে চাই

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৩১
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, অনেক দেশের চেয়ে বাংলাদেশে গণমাধ্যম বেশি স্বাধীনতা ভোগ করছে। গতকাল সচিবালয়ে সার্কভুক্ত দেশের প্রেস কাউন্সিল প্রধানদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশে সাংবাদিকদের স্বাধীনতা নেই উল্লেখ করে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, কোনো কাগজে নিউজ আসলে তা যে শতভাগ সত্যি সেটা বলার তো অবকাশ নেই। আমি মনে করি, বাংলাদেশের গণমাধ্যম অনেক দেশের তুলনায় অনেক বেশি ফ্রিডম ভোগ করে। এ প্রসঙ্গে যুক্তরাজ্যের নজির তুলে ধরে তিনি বলেন, যুক্তরাজ্যে ভুল সংবাদ, কোনো অসত্য সংবাদ, ফেব্রিকেটেড সংবাদ কেউ যদি পরিবেশন করে, সেক্ষেত্রে সেই সংবাদ মাধ্যমকে জরিমানা গুনতে হয়।

যুক্তরাজ্যে নিউজ অব দ্য ওয়ার্ল্ডের মতো সংবাদপত্র বন্ধ হয়ে গেছে। তিনি বলেন, ইউকে-তে একজন এমপি’র বিরুদ্ধে ভুল সংবাদ, অসত্য সংবাদ পরিবেশনের কারণে বিবিসি’র প্রধান নির্বাহী থেকে শুরু করে সবাইকে পদত্যাগ করতে হয়েছে। বাংলাদেশে এমন কোনো ঘটনা আজ পর্যন্ত হয়নি।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রেসের ফ্রিডমকে (গণমাধ্যমের স্বাধীনতা) ইউকে’র পর্যায়ে নিতে চাই। একই সঙ্গে প্রেসের দায়িত্বশীলতাও সেই পর্যায়ে নেয়া প্রয়োজন। তথ্য সচিব আবদুল মালেক, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, প্রেস কাউন্সিলের সদস্য মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল ও সার্কভুক্ত দেশের প্রেস কাউন্সিল প্রধানরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘দর্শক আমাকে অন্যভাবে আবিষ্কার করবে’

আমিই এখন তোমার মা ও বাবা

থমথমে পাহাড় গুলিতে আওয়ামী লীগ নেতা নিহত

সিনেমা হলের সূচনার গল্প

বাবার সামনেই বাস পিষে মারলো আবরারকে

একদিনে সড়কে নিহত ১২

নুরের একাত্মতা, আঘাত এলে দাঁতভাঙা জবাব

খাগড়াছড়িতে বুধবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

এখনো চলছে সেই জাবালে নূর পরিবহন

প্লেসমেন্ট শেয়ার নিয়ে পুঁজিবাজারে অস্থিরতা

‘খালেদা অসুস্থ আদালতে আসার আগেও বমি করেছেন’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন একপেশে প্রত্যাখ্যান করছি

নরসিংদীতে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপে গোলাগুলি, নিহত ২

সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিজয় এনে দিয়েছে

আত্মবিশ্বাসী শতাব্দী রায়, আরো বড় ব্যবধানে জিততে চান

সরকারি হাইস্কুলে তিন বিষয়ে ১৫০৬টি পদ সৃষ্টি হচ্ছে