জাবি ক্যাম্পাস রণক্ষেত্র, প্রক্টরসহ আহত ১০

অনলাইন

জাবি প্রতিনিধি | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বুধবার, ৯:১০ | সর্বশেষ আপডেট: ৯:১৪
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক  গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার  বিকেল ৫টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা এলাকায় সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহমেদ রাসেলের অনুসারী সাদ্দাম হোসেনসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ও রবীন্দ্রনাথ হলের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সালাম বরকত হলের দিকে বসে থাকা সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চলের অনুসারীদের ধাওয়া দিলে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।
সংঘর্ষ চলাকালে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেয়। দুই পক্ষ থেকে থেমে থেমে ছয় রাউন্ড গুলি করা হয়।  সংঘর্ষের ঘটনায়  প্রক্টরিয়াল বডি এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। সংঘর্ষ থামাতে গেলে প্রক্টরও আহত হন। পরে তিনি সহ আহতদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল থেকে চিকিৎসা দেয়া হয়।

জানা যায়,এর আগে শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক  রাজিব আহমেদ রাসেল ক্যাম্পাসে তার স্ত্রীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসেন। এ সময় বর্তমান সম্পাদক চঞ্চল নেতাকর্মীদের নিয়ে রাসেলকে মারধর করে বলে অভিযোগ পাওয়া যায় ।এ খবর ছড়িয়ে পড়লে রাজিবের অনুসারীরা হল থেকে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র নিয়ে বের হয় এবং বর্তমান সাধারণ সম্পাদকের শহীদ সালাম বরকত হলে হামলা চালাতে যায়।

যোগাযোগ করা হলে সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহমেদ রাসেল বলেন, তিনি ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসলে তাকে এবং তাঁর স্ত্রীকে চঞ্চল লাঞ্ছিত করে।
তবে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল বলেন,রাজীব আহমেদ রাসেল নানাভাবে আমার রাজনীতির মধ্যে ঝামেলা তৈরী করছিল। আমি তাকে এসব না করার অনুরোধ করি। কিন্তু তিনি আমার সঙ্গে বাজে আচরণ করেন। ফলে তার সাথে আমার বাকবিতন্ডা হয়। পরে তার অনুসারীদের দিয়ে সে আমার ছোট ভাইদের উপর হামলা করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর  আ স ম ফিরোজ উল হাসান ১০-১২ জন আহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে। তিনি বলেন আমরা পরিস্থিতি মোকাবেলায় পুলিশ ডাকার কথা চিন্তা করছি। তাছাড়া শিগগিরই হলগুলোতে রেড দেওয়ার কথা ভাবছি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘দর্শক আমাকে অন্যভাবে আবিষ্কার করবে’

আমিই এখন তোমার মা ও বাবা

থমথমে পাহাড় গুলিতে আওয়ামী লীগ নেতা নিহত

সিনেমা হলের সূচনার গল্প

বাবার সামনেই বাস পিষে মারলো আবরারকে

একদিনে সড়কে নিহত ১২

নুরের একাত্মতা, আঘাত এলে দাঁতভাঙা জবাব

খাগড়াছড়িতে বুধবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

এখনো চলছে সেই জাবালে নূর পরিবহন

প্লেসমেন্ট শেয়ার নিয়ে পুঁজিবাজারে অস্থিরতা

‘খালেদা অসুস্থ আদালতে আসার আগেও বমি করেছেন’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন একপেশে প্রত্যাখ্যান করছি

নরসিংদীতে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপে গোলাগুলি, নিহত ২

সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিজয় এনে দিয়েছে

আত্মবিশ্বাসী শতাব্দী রায়, আরো বড় ব্যবধানে জিততে চান

সরকারি হাইস্কুলে তিন বিষয়ে ১৫০৬টি পদ সৃষ্টি হচ্ছে