সমালোচনায় কাউকে ছাড়লেন না ড. মিজান (অডিওসহ)

অনলাইন

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার, ১০:৫৮ | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৩২
বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে রোববার রাজধানীতে দিনব্যাপী এক সেমিনারে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান প্যানেল স্পিকার হিসাবে বক্তৃতা করছিলেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও জাতিসংঘের ঢাকা অফিসের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত সেমিনারে তার বিষয় ছিল রাইট টু ডেভেলপমেন্ট। ৪০ মিনিটের বক্তৃতায় তিনি নানা প্রসঙ্গ তুলে আনেন। সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ার মোহাম্মাদ এ আরাফাতের সঞ্চালনায় ওই সেশনে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে যৌন সহিংসতা বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত প্রমীলা প্যাটেন এবং আইন ও সালিশ কেন্দ্রের প্রধান নির্বাহী শিপা হাফিজাও বক্তৃতা করেন। দীর্ঘ বক্তৃতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের অধ্যাপক ও মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মিজান বাংলাদেশের মানবাধিকার প্রশ্নে পশ্চিমা দুনিয়ার যে ধারণা তার সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করেন। একই সঙ্গে তিনি রাজনৈতিক কারণে মানবাধিকারের ‘ব্যাখ্যা’ পরিবর্তনের ভুল নীতির নিন্দা করেন। ব্যাংক এবং হল-মার্কের অর্থ লোপাটকে নিয়ে সাবেক অর্থমন্ত্রীর মন্তব্য ‘৪০০০ কোটি টাকা কিছুই না’ উদ্ধৃত করে তিনি এর সমালোচনা করেন। ৭২-এর সংবিধানে মানবাধিকারের সংজ্ঞায় যে অসম্পূর্ণতা বা অপূর্ণতা ছিল তার সমালোচনা করতেও ছাড়েন নি তিনি। বলেন, আজকে সময় এসেছে অতীতের ভুল শোধরানোর। এ সময় তিনি ড. কামালের প্রসঙ্গও টানেন। বলেন, তিনি বঙ্গবন্ধুকে ভুল বুঝিয়েছিলেন। অবশ্য ড. মিজান সমালোচনায় ড. ইউনূস, গ্রামীণ ব্যাংক থেকে শুরু করে দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী কাউকেই ছাড় দেন নি। বাংলাদেশের ইকোলজিক্যাল রাইটস প্রসঙ্গে তিনি মাগুর ছড়া গ্যাস ফিল্ডে বিস্ফোরণের দুখজনক ঘটনাটি স্মরণ করেন। তিনি তিস্তা চুক্তি না হওয়ার সমালোচনাও করেন। তার বক্তৃতায়  সরকার প্রবর্তিত  বয়স্কভাতা এবং বিধবা ভাতার সুবিধার অপব্যবহারের প্রসঙ্গও বাদ যায়নি। পাঠকদের জন্য তার বক্তৃতার চুম্বক অংশ অডিওসহ তুলে ধরা হল।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Ruhul

২০১৯-০২-১১ ০৪:৪২:০৮

এত কিছুর পর ! উনার নিজের অবস্থান কোথায় ?

আপনার মতামত দিন

ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে সিবিআই

ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরম গ্রেপ্তার

বিএনপি-জামায়াতের পৃষ্ঠপোষকতায় ২১শে আগস্ট হামলা

পরিচ্ছন্নতা অভিযানের পরের দিন আগের চিত্র

কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ

কাশ্মীরের যে এলাকা এখনো মুক্ত

সর্ষের মধ্যে ভূত থাকতে নেই: হাইকোর্ট

ফেসবুক গ্রুপ ‘গার্লস প্রায়োরিটি’র অ্যাডমিন কারাগারে

বিতর্ক দমাতে ফুটেজ চান মেয়র আরিফ

ঢাকা-দিল্লি সম্পর্ক ইতিবাচক পথেই রয়েছে: জয়শঙ্কর

কে হচ্ছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও মুখ্য সচিব

তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য আপিল করা হবে

ডেঙ্গু পরিস্থিতি: রোগী কমে-বাড়ে ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি ১৬২৬

এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় দুই সিটিতে ৩৯০০০০ টাকা জরিমানা

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে নতুন করে অস্থিরতা নিহত ১৯

৫ বছরে আমানত ৫ হাজার কোটি টাকা