জারদারিকে অযোগ্য ঘোষণার ২ আবেদন সুপ্রিম কোর্টে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২১ জানুয়ারি ২০১৯, সোমবার
পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) সহ-সভাপতি আসিফ আলী জারদারিকে অযোগ্য ঘোষণার দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে সোমবার দুটি আবেদন করেছেন ক্ষমতাসীন পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) নেতারা। পিটিশন দাখিলকারীরা হলেন সিন্ধু প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য খুররম শের জামান ও প্রধানমন্ত্রীর যুব বিষয়ক বিশেষ সহকারী উসমান দার। এতে অভিযোগ করা হয়েছে আসিফ আলী জারদারি, পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন ও জাতীয় পরিষদের সচিবকে।

অভিযোগে বলা হয়েছে, জাতীয় নির্বাচনের আগে মনোনয়নপত্রে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে থাকা একটি এপার্টমেন্টের মালিকানার বিষয় উল্লেখ করেন নি জারদারি। এ ছাড়া দুটি বুলেটপ্রুফ গাড়ির কথা প্রকাশ করতে ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। এর মধ্য দিয়ে সংবিধানের ৬২(এফ)(১) এবং ২০১৭ সালের নির্বাচনী আইনের সেকশন ২৩১ লঙ্ঘন করেছেন তিনি। এ ছাড়া তিনি পিপিপির সহসভাপতিত্ব ছাড়াও একাধিক পদে আসীন বলেও অভিযোগ করা হয়। বলা হয়, তিনি পিপিপির পার্লামেন্টারিয়ানেরও সভাপতি।
এর মধ্য দিয়ে তিনি সংবিধানের ৬৩(এ) ধারা লঙ্ঘন করেছেন। এ ছাড়া তিনি সন্দেহজনক ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে শত শত কোটি রুপি পাচারের সঙ্গে যুক্ত বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। এসব অভিযোগে ভিত্তিতে তাকে অযোগ্য ঘোষণার দাবি জানানো হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের গঠন করা যৌথ তদন্ত টিম জারদারির ভুয়া একাউন্টের সন্ধান পাওয়ার পর পিটিআই তাকে অযোগ্য ঘোষণা করার আবেদনের উদ্যোগ নেয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ফিক্সিংয়ের দায়ে প্রোটিয়া ক্রিকেটারের ৫ বছরের জেল

অনুমতি ছাড়াই ফ্রান্সের ৮ নাগরিক খাগড়াছড়িতে

ফরিদপুরে বাবার হাতে ছেলে খুন

নলডাঙ্গায় কলেজ ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

১৬ লাখ টাকার সিসি ক্যামেরা দুই বছরেই অচল

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎকে নিয়ে বিজেপির লাগামহীন কুৎসা

ব্রিজে উঠতে লাগে মই

যুক্তরাষ্ট্র-ভারত প্রতিরক্ষা বাণিজ্য দাঁড়াবে ১৮০০ কোটি ডলারে

শরণখোলায় ১৩ মামলার আসামি গ্রেপ্তার

‘নতুন সম্মেলন মানেই নতুন মুখ’

ভারতে হিন্দু নেতা হত্যা, গ্রেপ্তার দু’মাওলানাসহ ৫

ধামরাইয়ে শিক্ষকের হাতে বলৎকারের শিকার ছাত্র

চার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারীসহ ৬ জন নিহত

বিব্রত ঢাকা, বিজিবির বিরুদ্ধে ভারতে মামলা, তদন্ত শুরু

তিন ঘন্টার চেষ্টায় চট্টগ্রাম হকার্স মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে

কঠিন পরীক্ষায় বরিস জনসন