মন্ত্রীর সংবর্ধনা, স্বর্ণের নৌকা নিয়ে এলেন পৌরমেয়র

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে | ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৩৪
মন্ত্রীকে স্বর্ণের নৌকা উপহার দিয়ে আলোচনায় এখন আখাউড়া পৌরসভার মেয়র। আর তোরণ বানিয়ে আলোচনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। অবশ্য মন্ত্রী স্বর্ণের নৌকা গ্রহণ করে তা ফিরিয়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য এবং আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ায় অ্যাডভোকেট আনিসুল হককে তার নির্বাচনী এলাকার দুই উপজেলা কসবা ও আখাউড়ায় সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার কসবা উপজেলায় আর গতকাল শুক্রবার আখাউড়া উপজেলায় হয় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। সংবর্ধনাকে কেন্দ্র করে পথে পথে নির্মাণ করা হয় কয়েক শ’ তোরণ। আখাউড়া রেলস্টেশন থেকে উপজেলা পরিষদ পর্যন্ত এক কিলোমিটারেরও কম দূরত্বের মধ্যে নির্মাণ করা হয় ৪০/৪৫টি তোরণ।

আখাউড়া শহরের সড়ক বাজার থেকে কসবা-আখাউড়া সড়কের মনিয়ন্ধ পর্যন্ত এবং রেলস্টেশন থেকে উপজেলা পরিষদ পর্যন্ত এসব তোরণ নির্মাণ করা হয়।
দল ছাড়াও নানা ব্যানারে এবং ব্যক্তি নামে এসব তোরণ নির্মাণ করা হয়। কসবা উপজেলাতেও ছিল তোরণে সয়লাব। তবে তোরণ নির্মাণ করে আলোচিত হয়েছেন আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান। সংবর্ধনাস্থল উপজেলা পরিষদ মাঠে প্রবেশের মুখে আখাউড়া-আগরতলা সড়কের পাশে অফিসার্স ক্লাবের ব্যানারে এই তোরণ নির্মাণ করা হয়। তোরণের দুই পাশে মন্ত্রীর ছবির নিচে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তার ছবি দিয়েছেন।

অফিসার্স ক্লাবের সভাপতি হিসেবে এখানে তার পরিচয় তুলে ধরলেও অফিসের টেবিলে বসা অবস্থার ছবি ব্যবহার করেছেন তিনি সেখানে। আর গতকাল বিকালে সংবর্ধনার প্রথম পর্যায়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো শেষ হলে আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল পৌরসভার পক্ষ থেকে মন্ত্রী আনিসুল হককে স্বর্ণের নৌকা উপহার দেন। কাচের বাক্সে করে আনা স্বর্ণের নৌকাটি আনিসুল হক গ্রহণ করলেও তিনি সেটি নেবেন না বলে মাইকে তাৎক্ষণিক জানিয়ে দেন। নৌকাটি গ্রহণ করেই মন্ত্রী মাইকের সামনে এসে দাঁড়ান। বলেন আপনারা দেখেছেন আমাকে একটি স্বর্ণের নৌকা দেয়া হয়েছে। আমি সেটি পরে ফিরিয়ে দেব। মন্ত্রীকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে দেয়ার জন্য পৌরসভার মেয়র কাজল ৫ ভরি ওজনের স্বর্ণের নৌকা বানাচ্ছেন বলে আগে থেকেই প্রচারিত ছিল মুখেমুখে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন