১০০ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সব জায়গায় শুদ্ধি অভিযান হবে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার
দুর্নীতি দূর করতে স্বাস্থ্য খাতের সব জায়গায় শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। গতকাল সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ‘আগামী ১০০ দিনের কর্মসূচি’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রধানসহ শীর্ষ ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুর্নীতি দূর করতে স্বাস্থ্য খাতে প্রশাসনিক সংস্কার কর্মসূচি নেয়া হবে কিনা- জানতে চাইলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা এ বিষয়ে জানি। কেউ অন্যায় করলে তার বিরুদ্ধে দেশের আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেয়া হবে। ইতিমধ্যে আমরা একজনকে সাসপেন্ড করেছি, আস্তে আস্তে এই শুদ্ধি অভিযান সব জায়গায় হবে ইনশাআল্লাহ। যাতে ভালো পরিবেশ আপনারা পান। অল্প সময়ের মধ্যে তা দেখতে পাবেন।
তিনি বলেন, অপ্রয়োজনীয় কোনো যন্ত্রপাতি ক্রয় করা হবে না। নির্দেশনা ছাড়া কোনো কিছুই ক্রয় করা যাবে না। মন্ত্রী বলেন, প্রতিটি মানুষকে মানসম্পন্ন চিকিৎসাসেবা দেয়াই সরকারের লক্ষ্য। এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, কিছু কিছু জায়গায় সিন্ডিকেট আছে। তবে সব জায়গায় সিন্ডিকেট নেই। দেশে এক বছরের নিচে ও ৬৫ বছরের উপরের ব্যক্তিকে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা দেয়ার বিষয়ে সরকারের ইশতেহারের কথা উল্লেখ করেন মন্ত্রী।
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ১০০ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা: নবগঠিত আওয়ামী লীগ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ ১০০ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। ১০০ দিনের ১২ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করা হয় সংবাদ সম্মেলনে। ঘোষিত কর্মসূচিগুলো হলো-সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষিত কার্যক্রমের ভিত্তিতে কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সেবা সপ্তাহ উদ্‌যাপন, যে সব নতুন প্রকল্পসমূহের ডিপিপি প্রস্তুত হয়েছে সেসব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পর পরিকল্পনা কমিশনে প্রেরণ, মন্ত্রণালয় থেকে মাঠ পর্যায়ের কার্যক্রমের তদারকির প্রক্রিয়া চালু করে বিশেষ করে যন্ত্রপাতি ও জনবল কর্মক্ষেত্রে উপস্থিতি তদারকি। মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও কার্যক্রম পরিদর্শন, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ ও স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিষ্ঠান ও কার্যক্রমসমূহ পরিদর্শনের জন্য বিভাগীয় পর্যায়ে সফর করা, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের বিভিন্ন পদে ইতিমধ্যেই গৃহীত পদোন্নতি প্রক্রিয়া শেষ করা, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে যথাযথ প্রচার প্রচারণা কার্যক্রম গ্রহণ, যে সব হাসপাতালে সহজে দৃশ্যমান সাইনবোর্ডসহ সেখানে নিয়ন সাইনের সাইনবোর্ড স্থাপন করা। প্রতিটি হাসপাতালে প্রদেয় সেবা ও গৃহীতব্য বিভিন্ন ব্যবহারিক চার্জের তালিকা যথাযথভাবে প্রদর্শন, স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে সেবা গ্রহীতাগণ যে সব সমস্যার সম্মুখীন হন সে সব সমস্যা এবং তার সমাধানের বিষয়ে সেবা গ্রহীতাদের পরামর্শ গ্রহণের জন্য ওয়েবসাইট চালু ও হাসপাতাল এম্বুলেন্স ও উপজেলায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের জন্য জিপ গাড়ি প্রদান করা হবে। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব  জিএম সালেহ উদ্দিন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রক্তাক্ত লঙ্কা পেছনে কারা?

দেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি নেই

পাসপোর্ট বইয়ের সংকটে দুর্ভোগ চরমে

দগ্ধ তরুণীকে বাঁচানো গেল না

শেয়ারবাজারে উত্থান পতনের পেছনে কেউ জড়িত

ব্রুনাইয়ের সঙ্গে ৬ সমঝোতা সই

রাজধানীতে নিরাপত্তা জোরদার

ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, চিকিৎসক আটক

ব্যারিস্টার আমিনুল হকের দাফন আজ

কালা মিয়ার কাটা পা এখনো উদ্ধার হয়নি

সঞ্চয়পত্রে ঝোঁক সবার নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা সরকারের

শবেবরাত পালিত

অমিত শাহ বললেন বাংলাদেশি হলেই নাগরিকত্ব!

পশ্চিমবঙ্গে ৯২ শতাংশ বুথে আধা সামরিক বাহিনী

গণআন্দোলনের প্রস্তুতি নিন: মোশাররফ

ঋণখেলাপিদের আরো বড় ছাড় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের