গাজীপুরে ভোটের মাঠে আওয়ামী লীগ মামলার জালে এলাকাছাড়া বিএনপি

এক্সক্লুসিভ

ইকবাল আহমদ সরকার, গাজীপুর থেকে | ৭ ডিসেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৫
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করেই নির্বাচনে জয়ের লক্ষ্যে জেলার ৫টি আসনেই আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ কৌশলে গণসংযোগসহ  নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত রয়েছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকে শিডিউল করে নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন ইউনিয়ন, ওয়ার্ড এমন কি পাড়া-মহল্লায় নিজেরা ছুটছেন। দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি নানা কৌশলে স্ত্রী-সন্তানসহ স্বজনদের মাঠে নামিয়েছেন। আচরণ বিধির দিকে তাকিয়ে না থেকে সবক’টি আসনেই শক্ত ভাবে নির্বাচনী মাঠে নেমে পড়েছেন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। অন্যদিকে, আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দল বিএনপি’র প্রাথমিক বা চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়ার পরও প্রার্থীরা মামলায় জর্জরিত হয়ে ও গায়েবি মামলায় গ্রেপ্তার আতঙ্কে এখনো এলাকা ছেড়ে আছেন। কেউ কেউ উচ্চ আদালতের জামিন কিংবা পুলিশি হয়রানি থেকে বাঁচতে আইনের আশ্রয় নিচ্ছেন। শুধু যে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া নেতৃবৃন্দ এলাকার বাইরে আছেন তাই নয়, জেলার বিভিন্ন স্তরের নেতারাও আছেন এলাকা ছেড়ে। তারাও ভিড়তে পারছেন না এলাকায়।
নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর এলাকার বাইরে উত্তরা কিংবা ঢাকায় থেকেও গ্রেপ্তার হয়েছেন এ জেলার শীর্ষ পর্যায়ের কযেকজন যুব ও ছাত্রনেতা। এ অবস্থায় দুজন প্রার্থী নিজেরা সশরীরে উপস্থিত না হয়ে, তাদের প্রতিনিধির মাধ্যমে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। নির্বাচনী মাঠে নামার পর, গ্রেপ্তার হবেন না- এমন কোনো সিগন্যাল না পেয়ে মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ার পরও মাঠে নামছেন না কেউ কেউ। আওয়ামী লীগের মতো তারা নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়ানো তো দূরের কথা, ঘরোয়া কর্মসূচি দিতেও সাহস পাচ্ছেন না বিভিন্ন আসনের নির্বাচনী এলাকায়। এমনকি ভয়ে, আতঙ্কে প্রকাশ্যে কথাও বলছেন না কেউ কেউ। আওয়ামী লীগের কোথাও কোথাও বিরোধ থাকলেও অধিকাংশ স্থানেই নির্বাচনী মাঠ গুছানো আছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মাকে খুঁজছে অবুঝ সানিন

যুক্তরাষ্ট্র চাইলে আরেকটি ‘কিউবার মিসাইল সংকটের’ জন্য প্রস্তুত রাশিয়া

বাড়াবাড়ি করলে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নির্দেশ

টার্গেটে বিশ্বের সব থেকে বড় বাংলা ব্লগ

সিলিন্ডার গ্যাসের বিকল্প খুঁজছি: কাদের

ডিএনএ টেস্টের জন্য রক্ত সংগ্রহ করছে সিআইডি

গ্যাস সংকটে চকবাজারের বাসিন্দারা

ইসলামিক স্টেটের ১৩ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে ইরানী গোয়েন্দারা

৩০শে ডিসেম্বর বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হয়নি

বাদ জুমা অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের জন্য মোনাজাত

‘আইএস-বধূ’ শামিমার নাগরিকত্ব বাতিলের সমালোচনায় করবিন

‘চুড়িহাট্টার পোড়া ভবনে কেমিক্যাল ছিল’

টেকনাফে শীর্ষ ডাকাত মাষ্টার জুবাইর কথিত বন্দুক যুদ্ধে নিহত

‘এর জন্য অপেক্ষাতো করতেই হবে’

কোথাও বাবাকে খুঁজে পাননি নাসরিন

এ যেন কেয়ামত