নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

‘যেকোনো দলকে হারাতে পারে বাংলাদেশ’

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১০ নভেম্বর ২০১৮, শনিবার
সাম্প্রতিক নৈপুণ্য নিয়ে এবারের নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষদের সমীহ পাচ্ছে বাংলাদেশ। আর দল নিয়ে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সালমা খাতুনও। ওয়েস্ট ইন্ডিজে আসর শুরুর আগে সংবাদ সম্মেলনে সালমা খাতুন বলেন, যে কোনো দলকে হারানোর সামর্থ্য আছে বাংলাদেশের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে নামার আগে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সালমা খাতুন বলেন, বিশ্বের যে কোনো দলের বিপক্ষে ভালো খেলার সাহস ও সামর্থ্য আছে আমাদের। আমি মানছি, আসরের কিছু দল ভালো। তবে নিজেদের দিনে বাংলাদেশও বিশ্বের যে কোনো দলকে বিপদে ফেলতে পারে। আমি খুবই ইতিবাচক ও আত্মবিশ্বাসী। আর তথাকথিত বড় দলগুলোর সঙ্গে আমাদের খুব বেশি পার্থক্য দেখি না।

সর্বশেষ এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাই প্রতিযোগিতার শিরোপা জিতে নিজেদের সামর্থ্যের জানান দিয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। আর বিশ্বকাপে খেলতে নামার আগে সালমা-রুমানাদের প্রস্তুতিটাও খারাপ নয়। চলতি বছরে বাংলাদেশ দল জিতেছে ১৩টি ম্যাচে। এর মধ্যে ৯টি জয়ই এসেছে পরে ব্যাটিং করে। রান তাড়া করার সময় ধৈর্য্য ও একাগ্রতার পরিচয় দিয়েছে বাংলাদেশ। শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপের ফাইনালে ১৪২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপের ফাইনাল ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে একদম শেষ বলে জয় নিয়ে নিজেদের মানসিক দৃঢ়তারও পরিচয় দিয়েছে বাংলাদেশ দল।
গত ১২ মাসে ভারত ছাড়া আর কোনো দলই বাংলাদেশের চেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেনি। এ সময়ে তারা ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছে।  যারা এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও খেলবে। আর টুর্নামেন্ট শুরুর আগে গ্রেনাডায় সপ্তাহব্যাপী অনুশীলন ক্যাম্পে স্থানীয় ছেলেদের দলের বিপক্ষেও খেলেছে সালমা-রুমানারা।
উইকেট কিংবা বল বাকি থাকার হিসেবে নিজেদের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় তিনটি জয়ই চলতি বছরে পেয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের ভারতীয় কোচ অঞ্জু জৈন মনে করেন নিজেদের মধ্যে দারুণ বোঝাপড়াটা বাংলাদেশ দলের সাম্প্রতিক সাফল্যের অন্যতম কারণ। শিষ্যদের নিয়ে কোচ অঞ্জু জৈন বলেন, তাদের সঙ্গে কাজ করা সহজ হয়েছে মূলত তাদের আত্মবিশ্বাস এবং ভালো করার তীব্র ইচ্ছার কারণে। আমি মনে করি স্কিল বা সামর্থ্যের দিক দিয়ে বড় দলগুলোর চেয়ে পিছিয়ে নেই আমরা। পুরো ব্যাপারটাই আসলে মানসিক। কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া এক জিনিস এবং ভালো খেলার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামা আরেক জিনিস। আমরা এই বিশ্বাস নিয়েই মাঠে নামি যে, যে কোনো দলকেই হারাতে পারি আমরা।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জয়ের স্মৃতি নেই বাংলাদেশের। তবে এশিয়া কাপে দুইবার হারিয়েছে শক্তিধর ভারতকে। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও এসেছে জয়। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় না পেলেও তাদের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা কাজে দেবে বলে মনে করেন অলরাউন্ডার রুমানা আহমেদ। তিনি বলেন, যখন আপনি হারলেন তার মানে এই না যে সব হারিয়ে ফেললেন। হার থেকেও শিখতে পারি। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে আমরা সব ম্যাচ হারলেও সেটি আমাদের জন্য খুবই উপকারী ছিল। কারণ আমরা ওখানে কঠিন কন্ডিশনে খেলেছি। আমরা জানতাম যে আমরা সেখানে ভালো খেলেছি। সেই সফর শেষে আমরা এশিয়া কাপ খেলেছি এবং চ্যাম্পিয়নও হয়েছি। শিরোপাধারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লড়াই দিয়ে এবারের নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে বাংলাদেশ। আসরের দ্বিতীয় দিনে আজ রাত ২টায় মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা। গতকাল ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে পর্দা ওঠে ষষ্ঠ নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসরের।

বাংলাদেশের সূচি

১২ই নভেম্বর প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড, রাত ২টা গ্রস আইলেট
১৪ই নভেম্বর প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, রাত ২টা গ্রস আইলেট
১৯শে নভেম্বর প্রতিপক্ষ দ. আফ্রিকা, ভোর ৬টা গ্রস আইলেট




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অপরাধীদের শুধু শাস্তি নয় পুনর্বাসনও জরুরি

জাবিতে ‘মাদক পার্টিতে’ তুলকালাম

৩ শিশু ধর্ষিত

নাটোরে কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা

চলতি মাসেই মামলা: অর্থমন্ত্রী

ওনারা ধান ভানতে শিবের গীত গাইছেন

ঐক্যফ্রন্টের বিজয়ীরা এককভাবে কি সংসদে যেতে পারবেন?

গণমাধ্যমের বিকাশ শেখ হাসিনার হাত ধরেই

আইন সংশোধন ছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের কেউ এমপি হতে পারবেন না

শারীরিক জটিলতা বেড়েছে সিঙ্গাপুর গেলেন এরশাদ

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১

ওবায়দুল কাদেরের প্রশ্ন নিখুঁত নির্বাচন কোথায় হয়

হত্যার পরও মুক্তিপণ দাবি করছিল খুনিরা

জল্পনার জবাব দিলেন আরিফ

নতুন নৌপ্রধান আওরঙ্গজেব

ডিপিডিসি পরিচালকের ঢাকাতেই ৫ বাড়ি!