শতবর্ষে ধলাপাড়া জামে মসজিদ

বাংলারজমিন

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | ১৩ অক্টোবর ২০১৮, শনিবার
কালের সাক্ষী হয়ে এখনো দাঁড়িয়ে আছে ধলাপাড়া জামে মসজিদ। দেশের অন্যান্য উপজেলার ন্যায় টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায় রয়েছে নতুন পুরনো অনেক মসজিদ। ঠিক তেমনি শত বছরের পুরনো একটি মসজিদ ধলাপাড়া জামে মসজিদ।
ঘাটাইল উপজেলা সদর থেকে ১৪ কি.মি. দূরে ঘাটাইল-সাগরদীঘি সড়কের পাশে ধলাপাড়া বাজারে মসজিদটি অবস্থিত। দৃষ্টিনন্দন কারুকাজ সমৃদ্ধ মসজিদটির বাইরের পূর্বপাশের ফলকে লেখা থেকে জানা যায়, ১৩২৩ বঙ্গাব্দ, ইংরেজি ১৯১৭ সালে তৎকালীন ধলাপাড়ার জমিদার ছমির উদ্দিন চৌধুরী মসজিদটি নির্মাণ করেন। মসজিদটিতে রয়েছে সুদৃশ্য ৭টি গম্বুজ। মূল অংশের উপরে রয়েছে তিনটি গম্বুজ। মূল অংশের উত্তর ও দক্ষিণ পাশের গম্বুজের চেয়ে মাঝের গম্বুজটি একটু বড়। বারান্দায় রয়েছে চারটি ছোট আকারে গম্বুজ।
গম্বুজগুলো অনেকটা মোগল আমলের মসজিদের গম্বুজের সঙ্গে যথেষ্ট মিল আছে। তাই অনেকে একে মোগল মসজিদও বলে থাকেন। মসজিদটির দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ যথাক্রমে ৩৬ ও ২৭ হাত। প্রতিটি দেয়ালের পুরুত্ব প্রায় আড়াই হাত। মসজিদটির মূল অংশে ও বারান্দায় রয়েছে ৫টি করে দরজা যার উপর রয়েছে লোহার খাঁচকাটা কারুকাজ। বাহির থেকে আলো-বাতাস যেন অনায়াসে প্রবেশ করতে পারে তার জন্যই এ ব্যবস্থা। প্রতিটি দেয়ালে প্রচুর কারুকাজ থাকলেও পশ্চিমের দেয়ালে কারুকাজ রয়েছে বেশি যা সবার দৃষ্টি কাড়ে। জানাযায়, মসজিদটি নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে চুন, সুরকি ও সাদা সিমেন্ট। মসজিদটির পূর্বপাশে রয়েছে সুউচ্চ মিনার যার কারুকাজও চোখে পড়ার মতো। মসজিদটিতে একসঙ্গে প্রায় ২০০ লোক নামাজ আদায় করতে পারে।
শত বছর ধরে ঐতিহ্যের সাক্ষী হয়ে টিকে আছে মসজিদটি। কিন্তু মুসলিম ঐতিহ্যের চোখ জুড়ানো এই শৈল্পিক স্থাপনাটি সংস্কারের অভাবে দিন দিন অনেকটাই মলিন হয়ে যাচ্ছে। মসজিদটির দেখভালের দায়িত্বে থাকা জমিদার ছমির উদ্দিন চৌধুরীর বংশধরের একজন ববিন হায়দার চৌধুরী জানান, আমরা মসজিদটির পূর্বপাশের মিনারের সংস্কার কাজ করেছি কিন্তু মসজিদের ভিতর ও বাইরের সংস্কার কাজ করাটা অনেক ব্যয়বহুল। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার বা মেরামত না করার ফলে ভিতরের আস্তরগুলো খুলে পড়া শুরু করছে। ববিন হায়দার চৌধুরীসহ এলাকার লোকজনের দাবি স্থানীয় প্রশাসন যেন মসজিদটির ঐতিহ্য ধরে রাখতে সংস্কারের ব্যবস্থা করে।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ফেনী সীমান্ত হাটে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট অব্যাহত, ফিরে যাচ্ছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা

ত্রিপুরা-বাংলাদেশ সীমান্তের জিরো লাইনে অবরুদ্ধ ৩১ রোহিঙ্গা

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাবের অভিযান, আটক ১

৪০০০০ দিরহামের পুরস্কার জিতে কাঁদলেন এক বাংলাদেশী

মির্জাপুরে সেই এসআই ক্লোজড, বাকিরা কারাগারে

২৯ বছরে সবচেয়ে মন্থর চীনের বার্ষিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি

ইরান-ইসরাইল হামলা, পাল্টা-হামলা

‘আমাদের বিয়ে নিয়ে আমি নিশ্চিত ছিলাম না’

ক্রিকেট জুয়ায় কাঁপছে দেশ

মামলার প্রস্তুতিতে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীরা

যেমন ছিল নতুন মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক

পেনশনের অপেক্ষায় ১৫০০০ বেসরকারি শিক্ষক

‘ইতিবাচক ধারায়’ ফিরলে ছাত্রদলকে সহাবস্থানের সুযোগ দেবে ছাত্রলীগ

বৈধ অস্ত্রের বাজার ক্রেতা কারা

ডিজিটাল যুগেও ভরসা ঝাড়ফুঁকে

আদালতে খালেদার দেড় ঘণ্টা