মর্মান্তিক

এক্সক্লুসিভ

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রোববার
নাঙ্গলকোটে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪ এর ১১ হাজার কেভি বৈদ্যুতিক লাইনের একটি তার ছিঁড়ে চলন্ত যাত্রীবাহী সিএনজি চালিত অটোরিকশার উপর পড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ড্রাইভার ও একই পরিবারের তিনজনসহ চারজন নিহত হয়েছেন। গত শুক্রবার দুপুরে  নাঙ্গলকোট-দৌলখাঁর-বক্সগঞ্জ সড়কের মৌকাড়া ইউনিয়নের বাগমারা নামক স্থানে ঘটনাটি ঘটেছে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার জোড্ডা পূর্ব ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের মাওলানা আবু তাহের (৬০), ছেলে ওমান প্রবাসী মাওলানা আবু বায়োজিদ (৪০), মেয়ে জোড্ডা সিদ্দিকিয়া আলিম মাদ্‌রাসার শিক্ষার্থী ফাহিমা আক্তার (১৮), সিএনজি চালিত অটোরিকশার ড্রাইভার একই গ্রামের মৃত আবদুর রহিমের ছেলে গোলাম সরওয়ার (৪০)। এ সময় আবু বায়োজিদের স্ত্রী বিবি মরিয়ম (২০) এবং ছেলে আবদুল্লা আল আমিন (১৮ মাস) সোভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে যান।

স্থানীয়, পরিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শংকরপুর গ্রামের নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের কড়িহাটি ফাজিল মাদ্‌রাসার সহকারী শিক্ষক মাওলানা আবু তাহেরের ওমান প্রবাসী ছেলে মাওলানা আবু বায়োজিদ গত ১৭ই সেপ্টেম্বর সোমবার দেশে আসেন। শুক্রবার আবু বায়োজিদের শ্বশুরবাড়ি পার্শ্ববর্তী জোড্ডা পশ্চিম ইউনিয়নের ঠোল্লাপাড়া গ্রামে আবু বায়োজিদসহ পরিবারের সবাইকে নিমন্ত্রণ করা হয়। গত শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় মাওলানা আবু তাহের পরিবারের লোকজন নিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় ঠোল্লাপাড়ার উদ্দেশে বের হন। শুক্রবার বেলা ১২টা ৫ মিনিটে সিএনজি চালিত অটোরিকশাটি নাঙ্গলকোট-দৌলখাঁর-বক্সগঞ্জ সড়কের বাগমারা সবুজের চা দোকান নামক স্থানে পৌঁছালে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪ এর ১১ হাজার কেভি বৈদ্যুতিক লাইনের একটি তার ছিঁড়ে অটোরিকশার উপর পড়ে। এ সময় অটোরিকশাটি বিদ্যুতায়িত হয়ে আগুন ধরে যায়।
অটোরিকশার ড্রাইভার গোলাম সরওয়ার এবং মাওলানা আবু তাহের, তার ছেলে মাওলানা আবু বায়োজিদ এবং মেয়ে ফাহিমা আক্তার বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এ সময় আগুনে ফাহিমা এবং সিএনজিচালিত অটোরিকশার ড্রাইভার গোলাম সারওয়ারের দুই পা পুড়ে যায়। পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত সিএনজি চালিত অটোরিকশাটি উদ্ধার করেছে।

সন্ধ্যায় পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এমপি থানায় উপস্থিত হয়ে নিহত পরিবারকে সমবেদনা জানান। পরিকল্পনামন্ত্রীর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে অটোরিকশার পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা, উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুউদ্দিন কালু ২৫ হাজার টাকা, পৌর মেয়র আবদুল মালেক ২৫ হাজার টাকা প্রদান করেন। এদিকে চেয়ারম্যান সমিতি থেকে মাওলানা আবু তাহেরের পরিবারকে ৮০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়।

নাঙ্গলকোট থানার ওসি (তদন্ত) আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশের ৪টি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশ উদ্ধার করে আলামত হেফাজতে নেয়া হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। গতকাল সকালে  লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহত মাওলানা আবু তাহেরের ছেলে আবু জাফর ছালেহ বাদী হয়ে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪ এর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান। কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪, নাঙ্গলকোট জোনাল অফিসের ডিজিএম শহীদ উদ্দিন বলেন, এটি একটি দুর্ঘটনা। আমরা এ ঘটনায় মর্মাহত। এ ঘটনায় এজিএম কম মাহফুজুল আলমকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অপারেশন গর্ডিয়ান নট নরসিংদীতে ২ জঙ্গি নিহত

সরকারের দিকে তাকিয়ে ইসি

সিলেট থেকে ঐক্যফ্রন্টের মাঠের কর্মসূচি শুরু

চ্যারিটেবল মামলায় রায় ২৯শে অক্টোবর

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্ত গণমাধ্যমের জন্য বড় হুমকি’

মনোনয়ন জুটবে কার ভাগ্যে

সম্পাদক পরিষদের সাত দফায় একাত্মতা সুপ্রিম কোর্ট বারের

চার দিনের সফরে সৌদি আরবে গেলেন প্রধানমন্ত্রী

৯টি ধারা সংশোধনী চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ

গাজীপুরে ভোটের মাঠে আওয়ামী লীগ, মামলার বোঝা নিয়ে এলাকা ছাড়া বিএনপি

ঢাবি’র ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, বাতিলের দাবিতে অনশন

গ্যাসের দাম বাড়েনি ভর্তুকি দেবে সরকার

জাতীয়করণকৃত কলেজে আত্তীকরণে নতুন প্রস্তাব

‘নির্বাচন কমিশন নিরাপত্তা পরিষদ না’

মহাষ্টমী আজ

‘#মি টু’ এর বিপরীতে ‘#হিম টু’