ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

বিলে স্বাক্ষর না করতে প্রেসিডেন্টের প্রতি সাংবাদিক নেতাদের আহ্বান

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩৪
সাংবাদিক সমাজ, সম্পাদক পরিষদ, নাগরিক সমাজ ও দেশি-বিদেশি মানবাধিকার সংগঠনের প্রতিবাদ অগ্রাহ্য করে গণমাধ্যম ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতার বিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংসদে পাসের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এ বিলে স্বাক্ষর না করার জন্য মহামান্য প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজের একাংশসহ ১২টি সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতারা। রাষ্ট্রের অভিভাবক হিসেবে সংবিধান, গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থি বিলটি সংসদে ফেরত পাঠিয়ে গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকারবিরোধী ধারা সংশোধনে প্রেসিডেন্ট ভূমিকা রাখবেন বলে আশা প্রকাশ করেন নেতৃবৃন্দ। বৃহস্পতিবার এক যুক্ত বিবৃতিতে বিএফইউজে ও এর অঙ্গ ইউনিয়নগুলোর নেতৃবৃন্দ এ আহবান জানান। 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারির ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচনের মধ্যদিয়ে গঠিত একদলীয় সংসদে স্টেকহোল্ডারদের আপত্তি ও সংশোধনী প্রস্তাব উপেক্ষা করে পাসকৃত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আমরা ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি। এ আইন সংবিধান ও মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক। গণতান্ত্রিক দেশে তো নয়ই কোনো সভ্য সমাজে এ ধরনের আইনের কথা কল্পনাও করা যায় না। আইনটি সংসদে উপস্থাপনের সময় তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী যে প্রতারণামূলক বক্তব্য দিয়েছেন তা আমাদের স্তম্ভিত করেছে। তিনি সম্পাদক ও সাংবাদিকদের প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে বলে নির্জলা মিথ্যাচার করেছেন।


নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে বলেন, একদিকে প্রায় শত বছরের পুরনো অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের ঔপনিবেশিক এনালগ আইনকে আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির যুগে টেনে আনা হয়েছে। অন্যদিকে বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেপ্তার ও তল্লাশির ক্ষমতা পুলিশকে দিয়ে প্রকারান্তরে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে নিপীড়নের সুযোগ অবারিত করা হয়েছে।
এমনকি গবেষণা কাজও এই আইনের কারণে হুমকির মুখে পড়বে। সাংবাদিক সমাজসহ দেশের বিবেকবান মুক্তচিন্তার মানুষ এই আইনে প্রতিনিয়ত হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হবেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আইনটি পুনর্বিবেচনার জন্য সংসদে ফেরত পাঠাতে প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানান।
বিবৃতিদাতা নেতৃবৃন্দ হচ্ছেন- বিএফইউজে একাংশের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী ও মহাসচিব এম আবদুল্লাহ,  ডিইউজে একাংশের সভাপতি কাদের গণি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিএমইউজে)র সভাপতি শামসুর হক হায়দরী ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহনওয়াজ, রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সরদার আবদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবদুল আউয়াল, মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন-খুলনার সভাপতি আনিসুজ্জমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হিমালয়, সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সভাপতি শহীদ জয় ও সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান, সাংবাদিক ইউনিয়ন বগুড়ার সভাপতি মির্জা সেলিম রেজা ও সাধারণ সম্পাদক গণেশ দাস, সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজারের সভাপতি মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক হাসানুর রশীদ, কুমিল্লা জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাহ আলম শফি ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মনিরুল হক, সাংবাদিক ইউনিয়ন দিনাজপুরের সভাপতি জিএম হিরু ও সাধারণ সম্পাদক মাহফিজুল হক রিপন, সাংবাদিক ইউনিয়ন ময়মনসিংহের সভাপতি সভাপতি আইয়ুব আলী ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এবং সাংবাদিক ইউনিয়ন গাজীপুরের সভাপতি এইচএম দেলোয়ার ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ।

শনিবার  সারা দেশে বিক্ষোভ: গণতন্ত্র, গণমাধ্যম ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতাবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে আগামীকাল শনিবার সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানিয়েছেন বিএফইউজে ও ডিইউজে (একাংশের) নেতৃবৃন্দ। শনিবার সকাল ১১টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। একই সময়ে সারা দেশে সব অঙ্গ ইউনিয়নে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাজবাড়ীতে ট্রেন-ভটভটি সংঘর্ষে নিহত ৩

সরকারকে আলোচনায় বসতে বাধ্য করতে হবে: মওদুদ

অশুভ শক্তিকে রুখে দিতে হবে: প্রেসিডেন্ট

সৌম্যের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়েকে সহজেই হারালো বিসিবি

জাতীয় ঈদগাহে আইয়ুব বাচ্চুর জানাজা সম্পন্ন

র আমাকে হত্যা করতে চায় এ খবর ভিত্তিহীন: সিরিসেনা

ময়মনসিংহ মেডিকেলের লোটে শেরিং এখন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী

এবার সৌদি বিনিয়োগ সম্মেলন বয়কট করল যুক্তরাষ্ট্র, বৃটেন ও আইএমএফ

তালেবান হামলায় কান্দাহারের গভর্নর, পুলিশপ্রধান ও গোয়েন্দাপ্রধান নিহত

খেলাফত মজলিসের আমীর হাবিবুর রহমানের ইন্তেকাল

বিকল্প ধারার তিন নেতাকে অব্যাহতি

ময়মনসিংহে মেইল ট্রেন লাইনচ্যুত

আইয়ুব বাচ্চুর জন্য স্টেজে কাঁদলেন জেমস

রূপগঞ্জে অপহৃত শিশুর বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

‘প্রত্যেক পাঠক-দর্শকের ভেতরে একজন মিসির আলি বাস করেন’

ক্ষমতায় গেলে প্রধানমন্ত্রী কে হবেন, জানতে চাইলেন কূটনীতিকরা