নবীগঞ্জে চলছে র‌্যাব বিজিবি’র যৌথ টহল

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নবীগঞ্জ থেকে | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বুধবার
 নবীগঞ্জে শ্রমিকের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় সালিশের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে উপজেলা প্রশাসন। রাজনীতিবিদ, সুশীল সমাজ ও থানা পুলিশের কয়েক দফা উদ্যোগ ব্যর্থ হবার পর এবার শহরের শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে উপজেলা প্রশাসন। বুধবার সকাল ১১টায় একটি পক্ষকে (চরগাঁও, তিমিরপুর) নিয়ে আনুষ্ঠানিক বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে। এছাড়াও শহরের চরগাঁও রাজনগর গ্রাম থেকে আটক ৬ জনকে গতকাল কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। গত চারদিন ধরে র‌্যাব, বিজিবির যৌথ টহলে শহরের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। সোমবার দুপুরে চরগাঁও ও তিমিরপুর গ্রামের ব্যানারে আয়োজিত বৈঠক উপস্থিত হন উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদ বিন হাসান, নবীগঞ্জ-বাহুবল সার্কেলে নিয়োজিত হবিগঞ্জ পুলিশের সহকারীয় সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী। এ সময় সমাবেশের পাশে  র‌্যাব ও পুলিশের বিপুলসংখ্যক সদস্য মোতায়েন ছিল। প্রশাসনের কৌশলী ভূমিকায় অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সভার কার্যক্রম সমাপ্ত হয়।
বিকাল ৩টায় নির্বাহী অফিসারের বক্তব্যের মধ্যদিয়ে প্রশাসন নিয়ন্ত্রিত সমাবেশের সমাপ্তি ঘটে। এছাড়াও শহরের দু’দল শ্রমিক নিয়ন্ত্রিত অটোরিকশা (সিএনজি) স্ট্যান্ড অপসারণ করা হয়েছে। প্রশাসনের তরফ থেকে গুজব ও উত্তেজনা তৈরির নায়কদের শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে উপর মহলে ম্যাসেজ দেয়া হয়েছে। ওদিকে, শহরের চরগাঁও গ্রামে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার, দাঙ্গায় জড়িত চারজনকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার এবং মৎস্যজিবী অধ্যুষিত রাজনগর গ্রাম থেকে দু’জনকে গ্রেপ্তারের ফলে জনমনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আহূত বৈঠকের সফলতা কামনা করেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শহরের চরগাঁও গ্রামের প্রবেশমুখে (ডাকবাংলোর সামনে) এবং নবীগঞ্জ থানা সংলগ্ন রাজাবাদ পয়েন্টে অবস্থিত দুটি স্ট্যান্ড নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’দল শ্রমিকের সংঘর্ষ হয়। এ সময় চরগাঁও গ্রামের সাইফুল জাহান চৌধুরী লাঞ্ছিত হন। এ ঘটনায় মাছ বাজারে হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ উঠে। শ্রমিক সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাছবাজারে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। পরিকল্পিত গুজব ও দাঙ্গার ঘটনায় বিশেষ একটি মহলকে শনাক্ত করেছে পুুলিশ। ওদিকে, বিদ্যমান বিরোধ নিরসনে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মুশফিক হোসেন চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, নবীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও বিএনপির সভাপতি আলহাজ ছাবির আহমদ চৌধুরী, হবিগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. আবদুল মালিক, নবীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সভাপতি সুখেন্দু রায় বাবুল কয়েক দফা সমঝোতার উদ্যোগ নেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘আদালতে যাওয়ার মতো সুস্থ নন তিনি’

ফোনে তামিমের খবর নিলেন প্রধানমন্ত্রী

৫ দিনের রিমান্ডে হাবিব-উন নবী সোহেল

ডুবছে কৃষকের স্বপ্ন

আগাম জামিন পেলেন তরিকুল-খন্দকার মাহবুব-রেজাক খান

আসামী ছিনতাইয়ের মামলায় সোহেল গ্রেপ্তার: পুলিশ

যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যিক যুদ্ধে জিতবে কে!

‘রাজপথেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে’

তিন তালাককে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে অনুমোদন ভারতে

আপত্তি উপেক্ষা করেই আজ সংসদে পাস হচ্ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল

শহিদুল আলমের জামিন আবেদনের শুনানি আগামী সপ্তাহে

দুই দিনের রিমান্ডে বাসচালক

ক্রিস্টিন ফোর্ডের যৌন হয়রানির অভিযোগ এবং...

কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার

ঘরে ফিরলেন সৌদি ফেরত আরো ৪২ গৃহকর্মী

রাখঢাক রাখছেন না পর্নো তারকা ডানিয়েল স্টর্মি