‘জীবন্ত’ পুতুল !

রকমারি

| ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০০
শুধু শিশু বয়সে নয়, ভালো পুতুল পেলে অনেকেরই তা নিয়ে খেলার ইচ্ছা হয়৷ এক ব্রিটিশ শিল্পী এমন পুতুল সৃষ্টি করছেন, হাতে নিয়ে যাকে ‘জীবন্ত’ করে তোলা যায়৷ এমন নমনীয়, অভিনব পুতুলের আকর্ষণ বেড়ে চলেছে৷


ডাইনোসরটি দেখতে বিপজ্জনক হলেও আসলে কিন্তু কোনো ক্ষতি করতে পারে না৷ তার ওজন মাত্র কয়েক গ্রাম৷ দক্ষতার সঙ্গে হাত চালিয়ে বিলুপ্ত প্রাণীটিকে আবার জাগিয়ে তোলা হয়৷

বার্নাবি ডিক্সন এই পুতুলটি তৈরি করেছেন৷ ২৮ বছর বয়সি এই ব্রিটিশ শিল্পী ব্রিস্টল শহরের কাছে ব্রিজওয়াটারে হাতে করে এমন পুতুল গড়েন৷ তাঁর প্রথম সৃষ্টিকর্ম ছিল ড্যাবচিক নামের একটি হাঁস৷ তিনি বলেন, ‘‘আগে যে পুতুল দেখেছি, মানে গতানুগতিক পুতুল – সেগুলির মধ্যে স্টপ মোশনের মতো নড়াচড়ার ক্ষমতা ও ভার টের পাওয়া যায় না৷ স্টপ মোশনের ফলাফলই আমার কাজের ভিত্তি৷ আমি ভাবছিলাম, কীভাবে স্টপ মোশন চরিত্রগুলির মতো বাস্তবসম্মত, জীবন্ত পুতুল তৈরি করতে পারি৷’’
তাঁর সৃষ্টিকর্মের বৈশিষ্ট্য হলো, পুতুলের মধ্যে হাত হড়কে যায় না৷ বার্নাবি হাতদুটিকে কেন্দ্র করে তার চারিপাশের অংশ গড়ে তোলেন৷ যেমন, তাঁর সর্বশেষ সৃষ্টিকর্ম রেড ইন্ডিয়ান পুতুল মানু৷ এই কৌশলে তিনি পুতুলের হাত-পা আরো সহজে নাড়াচাড়া করতে পারেন৷

পুতুল নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা করতে বার্নাবি প্রায়ই এই ওয়ার্কশপে চলে আসেন৷ পুতুলের হাত-পা ধাতু দিয়ে তৈরি৷ শরীরের মধ্যে উপকরণ হিসেবে রজন, সিলিকন ও প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়৷ ইন্টারনেটেই সেই সব উপকরণ অর্ডার দেন তিনি৷ বার্নাবি ডিক্সন বলেন, ‘‘এই সব পতুল গড়ার অন্যতম প্রধান চ্যালেঞ্জ হলো, দু-দুটি বিষয় নিয়ে ভাবতে হয়৷ একদিকে ভাবি, আমি আদর্শ পুতুল সৃষ্টি করতে চাই৷ অন্যদিকে নিজের হাতের মধ্যে সেটি বসানোর কথা ভাবতে হয়৷ অসামঞ্জস্যতা রাখতে হয়৷ এমনভাবে সেটি নড়াচড়া করে, যা হয়তো ভাবাই যায় না৷’’

বার্নাবি ডিক্সন তাঁর ইউটিউব চ্যানেলের জন্য পুতুলগুলিকে আসল জগতে নিয়ে গিয়ে তাদের অভিজ্ঞতা ক্যামেরায় ধারণ করেন৷ তাঁর প্রথম সৃষ্টিকর্ম ডাবচিক-ই হলো প্রধান চরিত্র৷ সপ্তাহে একটি করে ভিডিও প্রকাশ করেন তিনি৷ সেই হাঁসের অ্যাডভেঞ্চার দেখতে সাড়ে তিন লাখের বেশি ব্যবহারকারী নিজেদের নথিভুক্ত করেছেন৷

সূত্র- DW



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রংপুরেই এরশাদের সমাধি

লক্ষাধিক বিও অ্যাকাউন্ট বন্ধ

যে কারণে পুঁজিবাজারে পতন থামছে না

মিন্নি গ্রেপ্তার

হাসপাতালে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ভিড়

ছুরি নিয়ে কীভাবে গেল তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে

সব আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে

ঘাতকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, মামলা ডিবিতে

উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে উপজেলা পর্যায়ে কারিগরি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হচ্ছে

বাসর হলো না নবদম্পতির

১১ কোম্পানির দুধে সিসা ও ক্যাডমিয়াম

চীনা ডেমু ট্রেন আর কেনা হবে না

বিচারকদের নিরাপত্তা চেয়ে রিট

আসাদকে পাল্টা জবাব আরিফের

৩ মাস পর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু

বাঁচানো গেল না সার্জেন্ট কিবরিয়াকে