বাজপেয়ীর শেষকৃত্যে যোগ দিতে এসেছেন প্রতিবেশি দেশের প্রতিনিধিরা

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৭ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৩৯
ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীকে শুক্রবার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় মর্যদায় শেষ বিদায় জানানো হবে। বাজপেয়ীর শেষকৃত্যে উপস্থিত থাকবেন দেশ বিদেশের প্রতিনিধিরা। উপস্থিত থাকবেন প্রতিবেশি দেশের প্রতিনিধিরা। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পাকিস্তানের আইন ও তথ্য মন্ত্রী , শ্রীলঙ্কা ও নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে। শেষকৃত্যে যোগ দিতে ইতিমধ্যেই দিল্লি এসেছেন ভুটানের রাজা জিগমে খেসর ওয়াংচুকের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধিদল। বাজপেয়ীর মৃত্যুতে ভারত জুড়ে পালিত হচ্ছে সাতদিনের রাষ্ট্রীয় শোক। এই সাতদিন সরকারি সব অফিসে আদালতে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে। বন্ধ থাকবে সব সরকারি অনুষ্ঠানও।
গত বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় ভারতকে রতœহীন করে চলে গিযেছেন কবি ও রাজনীতিবিদ অটলবিহারী বাজপেয়ী। তাঁর অসাধারণ বাগ্মিতা অনেকসময় পুষ্ট হয়েছে কবিতার পংক্তিতে। মানব কল্যাণের শাশ্বত দর্শনকে বিভিন্ন আঙ্গিকে তিনি তাঁর কবিতায় তুলে ধরেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রাজধর্ম পালনে তিনি ছিলেন অবিচল। বৃহস্পতিবার রাতে তাঁর মরদেহ রাখা ছিল কৃষ্ণ মেনন মাগের বাসভবনে। শুক্রবার তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে দীনদয়াল উপাধ্যায় মার্গে বিজেপির নতুন সদর দফতরে। বিকেল পাঁচটায় সেনাবাহিনীর উপস্থিতিতে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে স্মৃতিস্থলে। সেখানে উপস্থিত থাকবেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা ছাড়া বিজেপির শীর্ষ নেতৃত এবং সব রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা। সেনাবাহিনীর তিন প্রধানের উপস্থিতিতে ২১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে অটল বিহারীকে শেষ বিদায় জানানো হবে। রাজঘাটের কাছে তাঁর সমাধিস্থলে একটি স্মৃতিস্মারক তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছে ভারত সরকার। শেষযাত্রায় তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে হাজির হয়েছিলেন বিজেপি কর্মী সমর্থকদের পাশাপাশি ঢল নেমেছে অগণিত সাধারণ মানুষেরও। ভারতের সব রাজনৈতিক দলের নেতারা বাজপেয়ীর বাসভবনে গিয়ে গত বৃহষ্পতিবারই শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। সকলে স্মৃতিচারণায় বাজপেয়ীকে একজন অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মনিরপেক্ষ মানুষ হিসেবে অভিহিত করেছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রংপুরেই এরশাদের সমাধি

লক্ষাধিক বিও অ্যাকাউন্ট বন্ধ

যে কারণে পুঁজিবাজারে পতন থামছে না

মিন্নি গ্রেপ্তার

হাসপাতালে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ভিড়

ছুরি নিয়ে কীভাবে গেল তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে

সব আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে

ঘাতকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, মামলা ডিবিতে

উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে উপজেলা পর্যায়ে কারিগরি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হচ্ছে

বাসর হলো না নবদম্পতির

১১ কোম্পানির দুধে সিসা ও ক্যাডমিয়াম

চীনা ডেমু ট্রেন আর কেনা হবে না

বিচারকদের নিরাপত্তা চেয়ে রিট

আসাদকে পাল্টা জবাব আরিফের

৩ মাস পর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু

বাঁচানো গেল না সার্জেন্ট কিবরিয়াকে