কলকাতায় বাংলাদেশি ও ভারতীয় পণ্যের স্থায়ী প্রদর্শন কেন্দ্র হচ্ছে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৭ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:০৩
কলকাতায় বাংলাদেশি ও ভারতীয় পণ্য প্রদর্শনের জন্য একটি স্থায়ী প্রদর্শন কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। এই লক্ষ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার কনফেডারেশন অব ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড অ্যাসোসিয়েশনস এবং ইন্দো-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির মধ্যে একটি সমাঝোতাপত্র স্বাক্ষরিত হয়েছে। ঠিক হয়েছে, এই প্রদর্শন কেন্দ্রে বাংলাদেশে যে সব ভারতীয় পণ্য রফতানি করা হয় সেগুলি যেমন থাকবে তেমনি বাংলাদেশ থেকে যে সব পণ্য ভারতে রপ্তানীর সুযোগ রয়েছে সেই সব পণ্যও স্থায়ী প্রদর্শন কেন্দ্রে জায়গা পাবে। এদিন কলকাতায় একটি পাঁচতারকা হোটেলে সিডব্লুবিটিএ ইন্ডিয়া বাংলাদেশ বিজেনেস একসেলেন্স অ্যাওয়ার্ড প্রদান উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছিল। এই সভায় ভারত ও বাংলাদেশের শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীরা বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন ইন্দো-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাতলুব আহমাদ এবং সহসভাপতি সোয়েব চৌধুরী, পশ্চিমবঙ্গের পৌর ও নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফরহাদ হাকিম, সিডব্লুবিটিএ-র সভাপতি সুশীল পোদ্দার, কার্যকরী সভাপতি পবন জাজোদিয়া, সাধারণ সম্পাদক রাজেশ ভাটিয়া এবং কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো. সাইফুল ইসলাম। আলোচনায় বক্তারা দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণ করার লক্ষ্যে আরো বেশি করে দুই দেশের পণ্য আমদানি এবং রপ্তানি বৃদ্ধি করার ওপর জোর দিয়েছেন। পাশাপাশি বাংলাদেশের পণ্য ভারত যাতে আরো বেশি করে আমদানি করে, সেদিকে দুই দেশের শিল্পপতিদের উদ্যোগ নিতে হবে বলে বাংলাদেশের বক্তারা জানিয়েছেন।
তারা আরো বলেছেন, আমদানি-রপ্তানির যাবতীয় বাধা দূর করতে হবে। সহযোগিতা বৃদ্ধি করতে হবে দুই দেশের বণিক সভাগুলোর মধ্যে। এ দিন বাণিজ্য ও ব্যবসা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য দুই দেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি সাংবাদিকদের পুরষ্কৃত করা হয়েছে। বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি আলমগীর কবির, খালিদ আইজাজ আনোয়ার, সাংবাদিক শামিমা আখতার এবং কলকাতার শিরে।পাদ্রোগী হরভজন সিং, প্রদীপ্ত মজুমদার, সুবীর ঘোষ এবং সাংবাদিক অম্বর মুখার্জি, স্নেহাশীষ শূর, তারকেশ্বর মিশ্র ও উদিত প্রসন্ন মুখার্জীকে পুরস্কৃত করা হয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রংপুরেই এরশাদের সমাধি

লক্ষাধিক বিও অ্যাকাউন্ট বন্ধ

যে কারণে পুঁজিবাজারে পতন থামছে না

মিন্নি গ্রেপ্তার

হাসপাতালে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ভিড়

ছুরি নিয়ে কীভাবে গেল তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে

সব আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে

ঘাতকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, মামলা ডিবিতে

উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে উপজেলা পর্যায়ে কারিগরি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হচ্ছে

বাসর হলো না নবদম্পতির

১১ কোম্পানির দুধে সিসা ও ক্যাডমিয়াম

চীনা ডেমু ট্রেন আর কেনা হবে না

বিচারকদের নিরাপত্তা চেয়ে রিট

আসাদকে পাল্টা জবাব আরিফের

৩ মাস পর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু

বাঁচানো গেল না সার্জেন্ট কিবরিয়াকে