বিকিনি পড়ে শরীর দেখানোর ইচ্ছে নেই

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক | ১৩ আগস্ট ২০১৮, সোমবার
বলিউডের বেশিরভাগ অভিনেত্রী রোগা হলেও সোনাক্ষি সিনহা কখনও সেই পথে হাঁটেননি। প্রথম থেকেই তিনি স্থুলকায়। তাতেই তিনি জনপ্রিয় হয়েছেন এবং সাফল্য পেয়েছেন। সোনাক্ষির অভিনয়-পারফরমেন্স প্রশংসিত হয়েছে। কিন্তু মুটিয়ে যাওয়া নিয়ে সব সময়ই ট্রোলড হতে হয় তাকে। বেশিরভাগ মানুষ তার রুপ, মেধা ও অভিনয়ের প্রশংসা করলেও কিছু মানুষ সব সময়ই তার শারীরিক গঠন নিয়ে কথা বলেন। সম্প্রতি এর কড়া জবাব দিয়েছেন সোনাক্ষি। একটি এফএম ষ্টেশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আমি ছোটবেলা থেকেই নিজের ইচ্ছেমতো চলতে ভালোবাসি।
যে যাই ভাবুক আমি সেদিকে লক্ষ্য রাখি না। আমার ওজন অন্যান্য নায়িকাদের তুলনায় একটু বেশি। আর আমি এমনই থাকতে চাই। এমনভাবেই আমি কমফোর্টেবল। একেবারে রোগা হবার চিন্তুাভাবনা আমার মাথায় নেই। এভাবেই আমি কাজ করে চলেছি। হ্যা, তবে বিকিনি পড়ে শরীর দেখানোর ইচ্ছে নেই আমার। তাই বিকিনি পড়ার মতো শারীরিক গঠনও দরকার নেই আমার।  কাজটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। লোকের কথায় কান দিলে আপনার কাজের কাজ কিন্তু কিছুই হবে না। থেমে থাকতে হবে। কারণ অনেক মানুষ রয়েছেন যারা কাজের চাইতে বেশি ব্যস্ত থাকেন আরেকজনের দোষ ধরবার জন্য। তাই এসবে পাত্তা দেই না আমি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

পিংকু

২০১৮-০৮-১৩ ০০:১৯:৩৩

ঠিক ই অাছে। বিকিনি পরে শরীর দেখানোর কি দরকার অভিনয় ভালো হলে শাড়ীর চাইতে ভালো পোষাক অাছে নাকি?

আপনার মতামত দিন

বিতর্কের মধ্যে মালদ্বীপে ভোট গ্রহণ শুরু

ইরানে সামরিক মহড়ায় হামলা চালালো কে?

বৌদ্ধ ধর্মগুরু যখন যৌন নির্যাতনকারী

ডোমারে নৈশ কোচের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

‘এখন পর্যন্ত এ নিয়ে কোনো সমস্যায় পড়তে হয়নি’

কোটচাঁদপুরে ‘গোলাগুলিতে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

জামায়াতকে বাদ দিয়ে নতুন ধারার রাজনীতির সূচনা

আওয়ামী লীগ ছাড়া জাতীয় ঐক্য হতে পারে না

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন ২৯শে সেপ্টেম্বর

চাকরি না পেয়ে সুইসাইড নোট লিখে খুবি ছাত্রের আত্মহত্যা

আলোচনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৪৩ ধারা

ঢাকায় দুই থানায় বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে আরো মামলা

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে ঐশ্বরিক কাজ করেছে বাংলাদেশ

মালয়েশিয়ায় ৫৫ বাংলাদেশি শ্রমিক গ্রেপ্তার

আশা খোঁজার চেষ্টা

ইভিএম নিয়ে সন্দেহ দূর করতে হবে