আলাপন

‘আমি এদিক থেকে ভাগ্যবতী’

বিনোদন

ফয়সাল রাব্বিকীন | ১২ আগস্ট ২০১৮, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:০০
চলতি সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় গায়িকা ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই এখন পর্যন্ত বেছে বেছে কাজ করে আসছেন তিনি। আর তার ফলও পেয়েছেন। তার গাওয়া বেশ কয়েকটি গান এরইমধ্যে শ্রোতাপ্রিয়তায় চলে এসেছে। বর্তমানে ডাক্তারি পড়াশোনার পাশাপাশি গান করছেন তিনি। দেশ বিদেশের স্টেজে শো করছেন নিয়মিত। নতুন গান কম করছেন, বেছে করছেন। আর প্লেব্যাকেও বেশ সরব এ শিল্পী।
সব মিলিয়ে কি খবর? দিনকাল কেমন কাটছে? ঐশী বলেন, ভালো আছি খুব। সময়ও ভালো যাচ্ছে। গান ও পড়াশোন নিয়েও সময় চলে যাচ্ছে। গানের ব্যস্ততা কি রকম? ঐশী বলেন, গানের ব্যস্ততা চলছে মোটামুটি। আসলে ডাক্তারি পড়ার পাশাপাশি গানের জন্য সময় বের করা কঠিন। তারপরও আমি যতটুকু পারছি সময় বের করে ভালো ইভেন্টগুলোতে অংশ নেয়ার চেষ্টা করছি। নতুন গান একটু কম করছি। প্লেব্যাক করছি নিয়মিত। গানবাংলার ‘উইন্ড অফ চেঞ্জ’ এর চতুর্থ মৌসুমেও দেখা যাবে ঐশীকে। এ বিষয়ে জানতে চাই। গানবাংলা আমার হৃদয়ের অনেক কাছের প্রতিষ্ঠান। তাপস ভাই ও মুন্নী ভাবী আমাকে গানের ক্ষেত্রে সব সময় অনুপ্রেরণা দিয়ে আসছেন। আমার গাওয়া ‘দিল কি দয়া হয় না’ গানটি অত্যান্ত সুন্দরভাবে গানবাংলায় প্রচারের পর অনেক সাড়া পাই। এরপর থেকে নিয়মিত আমি গানবাংলা পরিবারের সহযোগীতা পেয়ে আসছি। আর ‘উইন্ড অফ চেঞ্জ’ হলো এমন একটি মিউজিক কোলাবরেশন যা বাংলা গানকে আন্তর্জাতিকভাবে তুলে ধরে। এর অংশ হিসেবে আসছে ঈদে ‘উইন্ড অফ চেঞ্জ’ এর চতুর্থ মৌসুমে গেয়েছি একটি গান। গানটির শিরোনাম ‘দুই কূলে সুলতান’। গানটিতে বিদেশী স্বনামধন্য বাদ্যযন্ত্রীরা আমার সঙ্গে বাজিয়েছেন। সব মিলিয়ে অসাধারণ একটি কাজ হয়েছে। আমার বিশ্বাস ভালো লাগবে সবার। নতুন গান নিয়ে কি পরিকল্পনা? ঐশী বলেন, নতুন গান নিয়ে পরিকল্পনা হলো কম গান করা, বেছে বেছে গান করা। আমি অনেক গানের প্রস্তাব পাই। কিন্তু গতানুগতিক কাজ করতে চাই না। সে কারণে সম্মানের সঙ্গে অনেক প্রস্তাবই ফিরিয়ে দেই। আসলে সত্যি বলতে ভিন্নধর্মী কাজ করতে খুব ভালো লাগে। মন দিয়ে সেরকম কিছু কাজ করতে চাই। গতানুগতিক কাজ করার আর ইচ্ছে হয় না। আর প্লেব্যাক এর কি খবর? ঐশী বলেন, সিনেমার গান নিয়মিত করছি। আসলে সিনেমার গানে একটা চ্যালেঞ্জ থাকে। কখনও ফোক গাইছি, কখনও আইটেম আবার কখনও মেলোডি। বিভিন্ন এক্সপ্রেশনে সেখানে গাইতে হয়। তাই বেশি বেশি ভালো চলচ্চিত্রের গান গাইতে চাই। এই সময়ের মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি অবস্থা কেমন মনে হয়? ঐশী বলেন, এখন অবস্থা মোটামুটি ভালো। কোম্পানিগুলো গানে বিনিয়োগ করছে। তাছাড়া নিজের কাছে স্বত্ব রেখেও গান করা যাচ্ছে। এখন ডিজিটালি গান প্রকাশ হচ্ছে। শ্রোতারা ইউটিউবে সহজেই গান শুনতে পারছেন। সব মিলিয়ে অবস্থা সামনে আরও ভালো হবে বলে বিশ্বাস করি। পরিবারের সহযোগীতা কেমন গানের ক্ষেত্রে? ঐশী বলেন, একেবারে শতভাগ। পরিবারের সহযোগীতা ও উৎসাহ না থাকলে আমি এ পর্যন্ত আসতে পারতাম না। আমার বাবা ও মা দুজনই আমার গান নিয়ে অনেক বেশি সচেতন। রেকর্ডিং হোক আর স্টেজ, তারা সব সময় আমার সঙ্গে ছায়ার মতো লেগে থাকেন। এই উৎসাহ ও সহযোগীতা পাওয়াটা ভাগ্যের বিষয়। আমার মনে হয় আমি এদিক থেকে ভাগ্যবতী।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায় সরকার

হাসপাতালের বেডে থেকেও ভাঙচুর মামলার আসামি

তিন দফা, এক কাতারে বিরোধী আইনজীবীরা

‘সেমিফাইনালে’ চনমনে বাংলাদেশ

সবার জন্য উন্মুক্ত মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

ডাস্টবিনের ময়লাও খেয়েছি

খালেদার চিকিৎসা নিয়ে রিটের শুনানি পহেলা অক্টোবর

খালেদা জিয়ার আন্দোলন এখন কারাগারে

সিলেট বিএনপির সেক্রেটারি আলী কারাগারে

পাঁচ লাখ শটগানের কার্টিজ প্রাণঘাতী, ধ্বংসের নির্দেশ

রূপগঞ্জে প্রসূতির ওপর হামলা, যমজ শিশুর মৃত্যু

বিএনপির সমাবেশের পর লিয়াজোঁ কমিটি

ঢাকা দখলের ঘোষণা ১৪ দলের

প্রেসিডেন্টের আশা, সব দল নির্বাচনে অংশ নিবে

বাংলাদেশের রাজীবকে ফেসবুকের ফেলোশিপ প্রদান

শেহজাদের সেঞ্চুরিতে ভারতের বিপক্ষে আফগানদের পুঁজি ২৫২