এমন সাফল্য ভবিষ্যৎ ফুটবলারদের জন্য অনুপ্রেরণা

ফিফা বিশ্বকাপ-২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৬ জুলাই ২০১৮, সোমবার
শনিবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ২-০ গোলে হারায় বেলজিয়াম। এটাই বিশ্বকাপে বেলজিয়ানদের সেরা সাফল্য। এর আগে বিশ্বকাপে বেলজিয়ামের সেরা সাফল্য ছিল চতুর্থ স্থান। ১৯৮৬’র আসরে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে ফ্রান্সের কাছে ৪-২ গোলে হার দেখে তারা। ইতিহাস গড়ায় এই দল নিয়ে গর্বিত বেলজিয়াম কোচ রবার্তো মার্টিনেজ। আর এমন সাফল্য বেলজিয়ামের ভবিষ্যৎ ফুটবলারদের অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে বলেন মার্টিনেজ। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, আমরা বেলজিয়ামের ফুটবলে নতুন ইতিহাস গড়েছি। আর ছেলেরা এটার যোগ্য ছিল।
আমরা বিশ্বকাপ জিততে চেয়েছিলাম। আপনি যখন ব্রাজিলের মতো দলকে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠবেন, তখন শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা আরো বেড়ে যাবে আপনার। কিন্তু আমরা সেটা পারিনি। তবে, আমাদের আরো বাস্তববাদী হতে হবে। যখন আমরা পেছনে ফিরে এই টুর্নামেন্টের দিকে তাকাবো, তখন দেখব বেলজিয়ামের এই ছেলেরা ইতিহাস গড়েছে এবং এটাই সবকিছু। এতদিন বেলজিয়ামের ফুটবলে বড় প্রেরণা ছিল ১৯৮৬’র মেক্সিকো বিশ্বকাপের সাফল্য। এবারে এই বিশ্বকাপের সাফল্যও বেলজিয়ামের ভবিষ্যৎ ফুটবলারদের অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। এইপর্যায়ে পৌঁছাতে ৩২টি বছর লেগেছে আমাদের। দলের এমন সাফল্যে আমি সন্তুষ্ট। কোচের মতো গর্ব অনুভব করছেন বেলজিয়াম ডিফেন্ডার ভিনসেন্ট কম্পানি। ফ্রান্সের কাছে সেমিফাইনালের হার হতাশার হলেও সব মিলিয়ে খুশি তিনি। কম্পানি বলেন, তৃতীয় হতে পেরে আমি খুবই গর্বিত। আমরা তিনটা দিন খুব কষ্টের মধ্যে ছিলাম। কেননা ফ্রান্সের কাছে হারটা ছিল অনেক কঠিন। বিশ্বকাপে তৃতীয় হওয়া যেকোনো দলের জন্য বিশেষ কিছু। বেলজিয়ামের এই প্রজন্ম এক ধাপ এগিয়ে গেল। আমরা ফাইনালের কাছাকাছি ছিলাম। যদি আমরা ফাইনালে যেতে পারতাম, তাহলে আমরা শিরোপা জিততাম। সাত ম্যাচের মধ্যে ছয় জয় আমাদের সমর্থকদের জন্য উপহার। এবারের বিশ্বকাপে ‘জি’ গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠে বেলজিয়াম। শেষ ষোলোতে জাপানকে ৩-২ গোলে এবং কোয়ার্টার ফাইনালে আসরের সর্বাধিক পাঁচ বারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলকে ২-১ গোলে হারায় তারা। আর সেমিফাইনালে ফ্রান্সের কাছে ১-০ গোলে হার দেখে বেলজিয়াম।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কেউ বলতে পারবে না কারো গলা টিপে ধরেছি, বাধা দিয়েছি

মেজর মান্নান স্বাধীনতাবিরোধী - মহিউদ্দিন আহমদ

কেন আমাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে না?

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু আইসিসি’র

ভারতের বড় জয়

নওয়াজ মুক্ত, সাজা স্থগিত

সামনে আফগানিস্তান, সূচি নিয়ে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ

ঘণ্টায় দুজন ডেঙ্গু রোগী

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক গ্রেপ্তার

ড. কামালের সঙ্গে জোনায়েদ সাকির বৈঠক

খালেদার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি আসছে

মানবসেবার ব্রতই লোটে শেরিংকে তুলেছে এ পর্যায়ে

৫ দিনের রিমান্ডে হাবিব-উন নবী সোহেল

দেশে-বিদেশে শহিদুল আলমের মুক্তি দাবি

শুল্ক বাধা দূর হলে দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের বাণিজ্য দ্বিগুণ করা সম্ভব-বিশ্বব্যাংক

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের অস্ত্রের মহড়া