‘রাশিয়া বিশ্বকাপ সেরা বিশ্বকাপ’

রাশিয়া থেকে

সামন হোসেন, মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ১৪ জুলাই ২০১৮, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২২
আগামীকাল মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ৮৭ হাজার দর্শকের সামনে শিরোপা নিষ্পত্তি ম্যাচে মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়া ও ফ্রান্স। ফ্রান্স জিতলে দ্বিতীয়বারের মতো সোনালি ট্রফি ছুঁয়ে দেখার সুযোগ পাবে ফরাসিরা। ক্রোয়েশিয়ার প্রথম। আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থা (ফিফা) সভাপতিও চাইছেন নতুন কারো হাতে উঠুক রাশিয়া বিশ্বকাপের শিরোপা। গতকাল সকালে লুঝনিকি স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। ভলান্টিয়ারদের ট্র্যাকশ্যুট পরে সংবাদ সম্মেলনে আসেন তিনি। সেখানে উঠে আসে চলতি বিশ্বকাপের নানা দিক। রাশিয়া বিশ্বকাপকেই এ যাবৎকালের সেরা বিশ্বকাপ হিসেবে স্বীকৃতি দিলেন ফিফা সভাপতি।
কথা বলেন কাতার বিশ্বকাপ নিয়ে। ফুটবলে উন্নয়নশীল দেশগুলো নিয়ে ফিফার নতুন পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি। উঠে আসে ৪৮ দলের বিষয়টি। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়াম থেকে মানবজমিন-এর পাঠকদের জন্য ফিফা সভাপতি ইনফান্তিনোর কথোপকথন তুলে ধরা হলো।
রাশিয়াকে ধন্যবাদ
সত্যিকার অর্থেই রাশিয়া ফুটবলের দেশ। শুধু বিশ্বকাপ আয়োজন করেই নয়, এদেশের মানুষের আত্মার সঙ্গে
পৃষ্ঠা ১৭ কলাম ৪
 ফুটবল মিশে আছে। এজন্য রাশিয়া ফুটবল দলকে ধন্যবাদ দিতে চাই। তারা তাদের দেশের জন্য নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। তাদের দেখানো পথেই হাঁটবে উত্তরসূরিরা। এখানকার স্টেডিয়াম থেকে শুরু করে সবকিছুই অসাধারণ ছিলো। আমার বিশ্বাস এসব ব্যবহার

করে ভবিষ্যতে রাশিয়া বিশ্ব ফুটবলের উপরের সারিতে থাকবে। ফিফা রাশিয়া ফুটবল ফেডারেশনকে নিশ্চয়তা দিচ্ছে
 দেশটির ফুটবল উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতা করার।
রাশিয়া মানুষ সম্পর্কে সকলের ধারণাই পাল্টে গেছে
একটি বিশ্বকাপ রাশিয়ার মানুষের সম্পর্কে আগের ধারণা পাল্টে দিয়েছে। এই বিশ্বকাপ উপলক্ষে মিলিয়ন মিলিয়ন মানুষ শুধু মস্কো নয়, সেইন্ট পিটার্সবার্গ, কাজান, সামারাসহ বিভিন্ন শহরে ঘুরেছে। তারা দেখেছে রাশিয়ার জনগণ কতোটা আন্তরিক। রাশিয়ার সংস্কৃতি, ইতিহাস, মানবতার ইতিহাস অনেক সমৃদ্ধ। যারা রাশিয়া সফরে এসেছেন তারা এ সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন। আমি মনে করি এসব কারণেই রাশিয়া সম্পর্কে মানুষ ভালো একটা ধারণা নিয়ে যেতে পারবে। এই বিশ্বকাপ শুরুর আগে অনেকে বলেছিলো ইতিহাসের জঘন্য বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে এটি। কিন্তু একমাসের জার্নিতে প্রমাণ হয়েছে রাশিয়া বিশ্বকাপ সর্বকালের সেরা বিশ্বকাপের একটি।
দল বাড়লেও খেলার মান কমবে না
বিশ্বকাপে দল বাড়ার বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত হবে। আমরা চাইছি আগামী বিশ্বকাপ ৪৮ দল নিয়ে করতে। ফিফার আগামী সভাতেই বিষয়টি চূড়ান্ত হবে। এতে ফুটবলের মান কমবে না। বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে ১৩ দল নিয়ে। বাড়তে বাড়তে এখন ৩২ দলে দাঁড়িয়েছে। দল বাড়লেও কিন্তু খেলার মান কমেনি। দিন দিন ফিফার সদস্য সংখ্যা বাড়ছে। এবার ৩২ দলের মধ্যেও বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইতালি সুযোগ পায়নি। বিশ্বকাপের বাইরে আছে নেদারল্যান্ডসের মতো শক্তিধররা। চিলি লাতিন আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন, আফ্রিকা চ্যাম্পিয়ন ক্যামেরুন, আমেরিকার, তুরস্কের মতো দল যারা নিয়মিত বিশ্বকাপে খেলে। তারা নেই এবারের বিশ্বকাপে। পানামা বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো অংশ নিয়েছে। দু’টি গোলও করেছে তারা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম গোল করে শিরোপা জয়ীদের মতো উচ্ছ্বাস করেছে দেশটি। বিশ্বকাপে অংশ নেয়ার ফলে পানামায় নতুন নতুন স্টেডিয়াম হচ্ছে। সেখানকার ছেলে মেয়েরা ফুটবল কোচিংয়ে ভর্তি হচ্ছে। এতে ফুটবলের মান বাড়ছে। সুতরাং দল বাড়লেও মানের হের-ফের হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।
এবারের বিশ্বকাপতো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ
ইউরোপ থেকে বেশি দল সুযোগ পেয়েছে বলে তারা ফাইনাল খেলছে। এমন অভিযোগ ঠিক না। লাতিন থেকে মাত্র পাঁচটি দল সুযোগ পায় বিশ্বকাপে। এরাই কিন্তু বিশ্ব ফুটবল শাসন করে। ফ্রান্স, স্পেনতো নতুন উঠে এসেছে। এখানে লাতিনের কোটা বাড়ানো কিংবা ইউরোপের কোটা কমানোর কিছু নেই। বরং এই বিশ্বকাপ অন্য অঞ্চলের জন্য একটা ইঙ্গিত বহন করবে। ভবিষ্যতে তারা ভালো করার জন্য তাদের চেষ্টাটা বাড়িয়ে দেবে।
৪৮ দলের বিশ্বকাপ
ফিফার কাউন্সিল সভায় ৪৮ দলের বিষয়টি চূড়ান্ত হবে। তখন বলতে পারবো ২০২২ নাকি ২০২৬ এ এটি চালু হবে ৪৮ দলের বিশ্বকাপ। তবে আপাতত বিশ্বকাপ ৩২ দলের বিশ্বকাপ হচ্ছে।
নেইমারের বার বার পড়ে যাওয়ার প্রসঙ্গে
নেইমার গ্রেট খেলোয়াড়। অসাধারণ খেলেছে এই বিশ্বকাপে। এর বাইরে আমি কিছুই বলতে চাই না বলেই হাসিতে ফেটে পড়েন ইনফান্তিনো। হাসি থামিয়ে একপর্যায়ে বলেন, আমার চেয়ে আপনারা বিষয়টি নিয়ে ভালো বলতে পারবেন। তবে ভবিষ্যতে নেইমারের কাছে আরো স্কিল আশা করি।
কাতারের আবাহওয়া
জুন জুলাইতে কাতারে প্রচণ্ড গরম থাকে। তাই সেখানকার বিশ্বকাপ নভেম্বর ডিসেম্বরে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এটার তারিখও চূড়ান্ত হয়েছে এরই মধ্যে। ২১শে নভেম্বরেও শুরু হয়ে টুর্নামেন্ট শেষ হবে ১৮ ডিসেম্বর। ইউয়েফার সঙ্গে আলোচনা করে ২০২২ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লীগও এগিয়ে আনার কাজ সেরে রেখেছে ফিফা।
২০৩০ সালের বিশ্বকাপ কোন ফরম্যাটে
এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ ৩২ দলের। আগামী কাউন্সিল সভায় ৪৮ দলের বিষয়টি চূড়ান্ত পর্বে। ৪৮ দলের বিশ্বকাপ হলে মেক্সিকো আমেরিকা ও কানাডায় নিশ্চয়ই ফরম্যাটও ভিন্ন হবে।
থাইল্যান্ডে আটকে যাওয়া ফুটবলারদের বিষয়ে-
থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে যাওয়া ১৪ ফুটবলারকে বিশ্বকাপের ফাইনাল দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলো ফিফা। কিন্তু উদ্ধার হওয়া শিশুদের চিকিৎসকরা বলেছেন তাদের স্বাস্থ্যগত সমস্যার কারণে তারা ফাইনাল খেলা দেখতে পারছে না। তবে ওদের বিষয়ে ফিফার ভিন্ন চিন্তা আছে। ওদের আমরা লন্ডনে ফিফার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানাতে পারি। এমনকি কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালেও হয়তো থাকতে পারে ওরা। তবে দুঃখের বিষয় হলো- এই ফুটবলারদের যে ব্যক্তিটি উদ্ধার করেছে। সে গতকাল রাতে মারা গেছে। ওর জন্য ফিফা দুঃখপ্রকাশ করেছে। ওর পরিবার, বন্ধুবান্ধবদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছে।
কি কারণে এই বিশ্বকাপ সেরা
বিশ্বকাপ সেরা হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। শুধু মাঠের খেলার কারণেই নয়। মাঠের বাইরের যথেষ্ট কারণ আছে। এই বিশ্বকাপ ৯৮ পার্সেন্ট স্টেডিয়াম দর্শকে ভরা ছিলো। এক মিলিয়ন দর্শক বিভিন্ন দেশ থেকে বিশ্বকাপ দেখতে এসেছে। তিন বিলিয়ন দর্শক টিভিতে খেলা দেখেছে। এক বিলিয়ন দর্শক ফাইনাল দেখবে। ফিফা ডিজিটাল চ্যানেলে ১১ বিলিয়ন টাইম ভিজিট হয়েছে, সাত বিলিয়ন দর্শক ফ্যানফেস্টে খেলা দেখেছে। মাঠে রেফারির ভুল সিদ্ধান্ত শূন্যে চলে এসেছে। ভিএআর প্রযুক্তি যুক্ত হওয়া মাঠে ফাউলের সংখ্যাও কমে এসেছে। এই বিশ্বকাপে মাত্র একটি ম্যাচ গোলশূন্য হয়েছে। ক্রোয়েশিয়ার মতো নতুন শক্তির দল উঠে এসেছে বিশ্বকাপে। রাশিয়ার হোটেল, বিমানবন্দর, নিরাপত্তা সবকিছু অসাধারণ ছিলো। এসব মিলিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপ সেরার স্বীকৃতি পাচ্ছে।
মরোক্কো আয়োজক হতে না পারা
মরোক্কোর বিষয়টি দুঃখজনক। তারা তিনবার চেষ্টা করেও  হোস্ট হতে পারেনি। আসলে এখানে ফিফার কিছু করার নেই। সরাসরি ভোটের মাধ্যমে আমরা আয়োজকদের বেছে নেয়। সেখানে হয়তো মরোক্কোর যোগাযোগ কমছিলো বলেই তারা পারছে না। তবে আমরা আশাবাদী ভবিষ্যতে হয়তো মরোক্কোতেও বিশ্বকাপ হবে।
ফিফা ডেভেলপমেন্ট প্রোগাম
৪৮ দলের বিশ্বকাপের আগে আমাদের ডেভেলপমেন্ট নিয়ে অনেক পরিকল্পনা আছে। প্রতিদিন কমপক্ষে দশটি নতুন নতুন আইডিয়া আমার মাথায় আসে। আমরা চেষ্ঠা থাকবে শুধু ইউরোপ নয়, এশিয়া, আফ্রিকাতে ডেভলোপমন্টে কাজ করার। শুধু ফরোয়ার্ড প্রোগ্রামই নয়, এজন্য আমাদের নতুন নতুন টুর্নামেন্ট চালু করতে হবে। একটি দল চার বছরে ছয়টা ম্যাচ খেললে কিভাবে তার খেলার মানের উন্নতি ঘটাবে। বিষয়টি মাথায় নিয়েই কাজ করছি আমরা। ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ নতুন করে করারও ভাবনা আছে। কারন ক্লাবের উপরই নির্ভর করে সেদেশের ফুটবলের ভবিষ্যৎ। মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। এটা ভেবেই নারী ফুটবলেও জোর দিবো আমরা।
ভলান্টিয়ার নিয়ে
এই বিশ্বকাপে সতের হাজারের অধিক ফিফা ভলান্টিয়ার কাজ করছে। তাদের সয়াহতায় সাংবাদিক থেকে শুরু করে দর্শকরা নিবিঘ্নে স্টেডিয়ামে আসতে পারছে। কিন্তু এদের কোনো পারিশ্রমিক দিচ্ছে না ফিফা। নিজে ভলান্টিয়ারের জার্সি পরে এসেছেন দেখিয়ে  ফিফা সভাপতি বলেন, এটা আসলে ভলান্টিয়ার জব। তবে আমি ফিফা প্রেসিডেন্ট আমি পয়সা পাচ্ছি। নিশ্চয়ই তারাও কিছু পাবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকেই কাজটি করছি’

নরসিংদীতে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের মামলা, গ্রেপ্তার ১৩

সিবিআইকে রাজ্যে ঢুকতে দেবেন না মমতা

শ্রীনগরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১০ মামলার আসামী নিহত

শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টে মরিচবাঁটা, বই-চেয়ার ছোড়াছুড়ি!

নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বিশ্বাস করার কোনো কারণ নেই: মার্কিন থিংক ট্যাংক

নিরপরাধীদের হয়রানি না করতে পুলিশকে নির্দেশনা দেবে ইসি

আপিল করলেই খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বৈধ!

ইসির হস্তক্ষেপ চেয়ে বিএনপির চিঠি

সব সাম্প্রদায়িক শক্তি ধানের শীষে ভিড়েছে

মেগাজোট: আসন নিয়ে দরকষাকষি

শতভাগ সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না-কবিতা খানম

সংখ্যালঘুদের স্বার্থবিরোধী কাজে জড়িতদের মনোনয়ন না দেয়ার দাবি

নরসিংদীতে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ৪

পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিপুণ রায় চৌধুরী

সম্পাদকদের দৃষ্টিতে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক (অডিও)