জায়গায় জায়গায় গণ্ডগোল পাকিয়েছে ইংলিশ সমর্থকরা

রাশিয়া থেকে

স্পোর্টস রিপোর্টার, মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ১৩ জুলাই ২০১৮, শুক্রবার
ম্যাচ শেষ হওয়ার পরও স্টেডিয়াম ছাড়ছিলো না দু’দলের সমর্থকরা। লুঝনিকি স্টেডিয়ামের একপাশে দাবার কোর্ট আঁকা সাদা-লাল জার্সি পরে উল্লাস করছিলো ক্রোয়েটরা। অন্যদিকে মাথায় হাত দিয়ে বসেছিলো ইংলিশ সমর্থকরা। দু’দলের কাউকেই স্টেডিয়াম থেকে বের করতে পারছিলো না লুঝনিকির নিরাপত্তা কর্মীরা। বাধ্য হয়েই স্টেডিয়ামে ফ্লাড লাইট বন্ধ করেই এদের বের করা হয় স্টেডিয়াম থেকে। স্টেডিয়ামের বাইরে বের হয়েই বিপত্তি বাধায় ইংলিশ সমর্থকরা। মদে বুঁদ হয়ে থাকা ইংলিশরা শুরুতেই আপত্তিকর আচরণ করেন ভলান্টিয়ারদের সঙ্গে, যাদের সার্ভিসে নির্বিঘ্নে স্টেডিয়ামের আশপাশে চলাচল করছিলেন সাধারণ দর্শকরা।
খেলা ছাড়া অন্যদিন রাত একটা পর্যন্ত চালু থাকে মস্কোর মেট্রো।
তবে খেলার দিন আরো দুই ঘণ্টা বাড়িয়ে তা বন্ধ করা হয় রাত তিনটায়। এটা জানার পরও রাত তিনটার পর মেট্রতো গিয়ে ঝামেলা পাকায় তারা। লুঝনিকির পাশে স্পার্তিভো মেট্রো স্টেশন খোলা না পেয়ে সেখানকার নিরাপত্তা কর্মীদের ওপর চড়াও হয় ইংলিশ সমর্থকরা। সেখান থেকে বের হয়ে একজন কলোম্বিয়া সমর্থকদের পেটায় তারা। ইংলিশরা গণ্ডগোল করেছে রেড স্কয়ার, ক্রেমলিনেও। সেখানে দফায় দফায় ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকদের সঙ্গে হাতাহাতি হয়েছে তাদের। তবে ইংলিশ সমর্থকদের এমন উগ্র আচরণের পরও রাশিয়ান পুলিশ কোনো ধরনের কঠিন পদক্ষেপ নেয়নি। প্রতিটি জায়গাতেই তারা ঝামেলা মিটিয়ে ইংলিশদের হোটেলে পৌঁছে দিয়েছে। হারের পর ভালো আচরণও করতে দেখা গেছে কিছু ইংলিশদের। ম্যাচে আগে যারা জার্সি, ক্যাপ কিনে স্টেডিয়ামে ঢুকেছিলেন, ম্যাচ শেষে সেবব বিক্রি করতে দেখা গেছে একদল ইংলিশ সমর্থককে। স্বপ্ন ভঙ্গের পরও ইংলিশ ফুটবলারদের পারফরমেন্সে তারা কিন্তু খুশি। মেট্রোতে জন রোস নামে এক ইংলিশ ভদ্রলোক বলেন, আমরা ওদের নিয়ে গর্ব করতে পারি। আমার বিশ্বাস এই দলটিই একদিন বিশ্ব জয় করবে। এই সময় মেট্রোতে কিছু বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী ইংলিশ সমর্থকদের ধৈর্য্য ধরার আহ্বান জানান। এদের উদ্দেশে জন বলেন, এটা আমাদের সমস্যা- আমরা অল্পতে খুব আশাবাদী হয়ে, সহজেই কষ্ট পাই।  এদিকে ইংলিশদের মুখের বুলি ‘ইটস কামিং হোম’ গানটিকে উল্টে দিয়ে মস্কোর রোডে রোডে ক্রোয়েটরা গেয়ে চলছে ‘ইংল্যান্ড গোয়িং হোম’। রাশিয়ানরাও এর সঙ্গে সূর মেলাচ্ছে। অন্যরা ইংল্যান্ডের বিদায়ে খুশি হতে না পারলেও রাশিয়ানরা যে খুশি হয়েছে- তা স্টেডিয়ামের উপস্থিত দর্শকদের উচ্ছ্বাস দেথেই বোঝা যাচিছলো।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

প্রেমিকার ছেলের ছুরিকাঘাতে প্রেমিক নিহত

মানবজমিনে রিপোর্ট প্রকাশের পর বয়স্কভাতা পেলেন ময়ূরী বেগম

পদ্মা সেতুতে বসল অষ্টম স্প্যান

জামায়াতের ক্ষমা চাওয়ার দাবি যুক্তিসঙ্গত: নজরুল

সাভারে ২ নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভারতের কাশ্মীরে হামলা: পারমাণবিক শক্তিধর দুই দেশের দ্বন্দ্ব বিশ্বের জন্য কত বড় হুমকি?

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নিহত

দিল্লিতে হাই কমিশনের ‘নিরাপত্তা লঙ্ঘনে’র কড়া প্রতিবাদ পাকিস্তানের

কাশ্মির হামলাকে ভয়াবহ আখ্যা দিলেন ট্রাম্প

শপথ নিয়েছেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপিরা

সৌদি ক্রাউন প্রিন্সের সফরে প্রটোকল ভাঙলেন নরেন্দ্র মোদিও

শ্যামলীতে র‌্যাবের গুলিতে ১৭ মামলার আসামী নিহত

হাসিনার প্রশ্ন, ভারতের নাগরিকত্ব বিল কেন?

বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী আবুধাবির ২ প্রধান ব্যবসায়ী গ্রুপ

শামিমার সন্তানের নাগরিকত্ব কী!