পগবার অবসরের সিদ্ধান্ত উড়িয়ে দিলেন দেশম

রাশিয়া থেকে

স্পোর্টস রিপোর্টার মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ২৬ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫৩
রাশিয়া-উরুগুয়ে ম্যাচে গ্যালারিতে সেই নাতালি নেমসিনোভা
রাশিয়া বিশ্বকাপে টপ ফেভারিট দলগুলোর একটি ফ্রান্স। ব্রাজিল, জার্মানি, স্পেনের পরই ফ্রান্সের সম্ভাবনার কথা উঠে আসছে। এমনকি সবাই লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনার চেয়েও এগিয়ে রেখেছে ফরাসিদের। একঝাঁক তারকা ফুটবলারের সমন্বয় ঘটেছে এবারের ফ্রান্স দলটিতে। বিশ্বকাপে খেলছেও দারুণ। এরইমধ্যে দু’টি ম্যাচ জিতে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ফ্রান্স। আজ ডেনমার্ককে হারাতে পারলে ‘সি’ গ্রুপসেরা দল হয়েই নকআউট পর্বে যাবে ১৯৯৮ সালের চ্যাম্পিয়নরা। দল যখন উড়ছে ঠিক তখনই বিশ্বকাপ শেষে অবসরের ইঙ্গিত দিয়েছের পল পগবা।
চারদিকের সমালোচনায় বিদ্ধ হয়েই পগবার এমন সিদ্ধান্ত বলে ধারণা করছেন অনেকে। যদিও ডেনমার্ক ম্যাচের আগের পগবার অবসরের ঘোষণাকে মোটেও আমলে নিচ্ছেন না দেলটির কোচ দিদিয়ের দেশম। তার বিশ্বাস আগামী বিশ্বকাপে আরো শানিত পগবাকে দেখতে পাবে ফুটবল বিশ্ব।
বিশ্বকাপের মতো এত বড় মঞ্চে খেলার স্বপ্নটা সবারই থাকে। অথচ সেই স্বপ্নটাই আর দেখতে চান না ফ্রেঞ্চ ফুটবলের অন্যতম বড় তারকা পল পগবা। গত বিশ্বকাপেই সেরা তরুণ খেলোয়াড়ের পুরস্কার পাওয়া এই ফুটবলার চার বছর যেতে না-যেতেই নিজেকে বিশ্বকাপ থেকে গুটিয়ে নিতে চাইছেন। পগবা ইঙ্গিত দিচ্ছেন, সম্ভবত এটাই তার শেষ বিশ্বকাপ। পগবার এই ইঙ্গিতকে আমলে নিতে বারণ করেছেন দেশম। গতকাল লুঝনিকি স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে দেশম বলেন, ওর বয়স এখন ২৫। আগামী বিশ্বকাপে হবে ২৯ বছর। তখন আরো পরিণত ও অভিজ্ঞ হবে। আশা করছি কাতার বিশ্বকাপে আরো শানিত পগবাকে পাবে ফ্রান্স।
বিশ্বের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় হয়ে দুই বছর আগে জুভেন্টাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে এসেছিলেন পগবা। কিন্তু একসময়ের বিশ্বের সবচেয়ে দামি মিডফিল্ডারের খেলায় গত দুই মৌসুমে সেই ছাপ পাওয়া যায়নি। ভাবা হতো ২৫ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার ফ্রান্স দলে জিনেদিন জিদানের যোগ্য উত্তরসূরি হয়ে উঠবেন। কিন্তু এই দু’বছরে দর্শকদের ভাবনার প্রতিফলনটা পগবা মাঠে দেখাতে পারেননি। সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হতেও তাই সময় লাগেনি। দলের তারকা খেলোয়াড়ের কাছ থেকে কেই-বা নিস্প্রভ খেলা মেনে নিতে পারেন! ২০১৬ ইউরো ফাইনালে পর্তুগালের সঙ্গে হেরে যাওয়ায় সবচেয়ে বেশি সমালোচনা শুনতে হয়েছিল তাকে। এমন সমালোচনা কিছুতেই মানতে পারছেন না এই মিডফিল্ডার। তাই বিশ্বকাপ থেকেও নিজেকে সরিয়ে নিতে চাইছেন, ‘সম্ভবত এটাই আমার শেষ বিশ্বকাপ। আমাকে নিয়ে করা সমালোচনাগুলো আমি একেবারে ভুলে যেতে চাই, আমি সেসবের উত্তর দেব মাঠে।’ দেশমের বিশ্বাস আবেগের বশে নেয়া পগবার এই সিদ্ধান্ত দ্রুত পরিবর্তন হয়ে যাবে। ১৯৯৮ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক দিদিয়ের দেশমের অধীনেই এবারের বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে ফ্রান্স। আন্তোইন গ্রিজম্যান, পল পগবা, কিলিয়ান এমবাপ্পে, অলিভিয়ের জিরু, রাফায়েল ভারানে, উসমান ডেম্বেলে, স্যামুয়েল উমতিতির মতো তারকার অভাব নেই ফরাসি দলটিতে। প্রতিটি পজিশনেই সেরা সেরা ফুটবলার রয়েছে। ফরাসিদের কোনো অংশেই ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। কী গোলরক্ষক, কী ডিফেন্স, কী মিডফিল্ড আর কী ফরোয়ার্ড লাইন-আপে কোথাও ঘাটতি নেই ফরাসিদের। এর পরেও গ্রুপ সেরা হওয়ার লড়াইয়ে ডেনমার্কে ভয় পাচ্ছেন দলটির কোচ দিদিয়ের দেশম। আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে দেশম জানান, আমরা প্রতিটি প্রতিপক্ষকে সমীহ করি। আমাদের লক্ষ্য ম্যাচ বাই ম্যাচ এগুনো। আজকের প্রতিপক্ষ ডেনমার্ক অনেক শক্তিশালী। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা আছে ফ্রান্সের। যদি আজ নাইজেরিয়াকে বড় ব্যবধানে হারাতে পারে আর্জেন্টিনা। তবে, ম্যাচের আগে এসব নিয়ে ভাবতে চান না ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী এ তারকা। এটা বিশ্বকাপ এখানে প্রতিটি দলই নিজেদের সেরা প্রস্তুতি নিয়ে খেলতে এসেছে। সেখানে আর্জেন্টিনা প্রতিপক্ষ হলে সমস্যা কী?

আজ লুঝনিকিকে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে ফ্রান্স ডেনমার্কের গ্রুপ সেরা হওয়ার লড়াই।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায় সরকার

হাসপাতালের বেডে থেকেও ভাঙচুর মামলার আসামি

তিন দফা, এক কাতারে বিরোধী আইনজীবীরা

‘সেমিফাইনালে’ চনমনে বাংলাদেশ

সবার জন্য উন্মুক্ত মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

ডাস্টবিনের ময়লাও খেয়েছি

খালেদার চিকিৎসা নিয়ে রিটের শুনানি পহেলা অক্টোবর

খালেদা জিয়ার আন্দোলন এখন কারাগারে

সিলেট বিএনপির সেক্রেটারি আলী কারাগারে

পাঁচ লাখ শটগানের কার্টিজ প্রাণঘাতী, ধ্বংসের নির্দেশ

রূপগঞ্জে প্রসূতির ওপর হামলা, যমজ শিশুর মৃত্যু

বিএনপির সমাবেশের পর লিয়াজোঁ কমিটি

ঢাকা দখলের ঘোষণা ১৪ দলের

প্রেসিডেন্টের আশা, সব দল নির্বাচনে অংশ নিবে

বাংলাদেশের রাজীবকে ফেসবুকের ফেলোশিপ প্রদান

শেহজাদের সেঞ্চুরিতে ভারতের বিপক্ষে আফগানদের পুঁজি ২৫২