কেন মানুষ মাজারে যায়?

শেষের পাতা

হাফিজ মুহাম্মদ ও সুদীপ অধিকারী | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪১
দিন-রাত মানুষের ভিড়। হরেক রকমের মানুষ। কারো কাছে নিছক জিয়ারত। কেউবা আসেন মনের আশা পূরণে। মাজারে এসে চাওয়া-পাওয়ার হিসাব মেলান তারা। শুধু সাধারণ মানুষ নয়, রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে অনেক সিনে তারকাও ভিড় করেন মাজারে।
সম্প্রতি দেশের বড় তিন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির প্রধানকে দেখা যায় সিলেটের হজরত শাহজালাল ও শাহপরান (রহ.)-এর মাজার জিয়ারত করতে। তাদের দু’জন নির্বাচনী প্রচারণাও শুরু করেছেন সেখান থেকে। হজরত শাহজালালের মাজার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করা বড় দলগুলোর জন্য একটা প্রথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিগত কয়েকটি নির্বাচনে এমনটাই দেখা গেছে। মাজার থেকে প্রচারণা শুরু করতে বাদ যান না বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীরাও।
রাজধানীর মিরপুর শাহ আলী মাজারের খাদেম সৈয়দ আনোয়ারুল হক। তিন পুরুষ ধরে তারা এখানে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। তার দাদা, বাবা এবং তিনি। ২০০৪ সালে তার বাবার মৃত্যুর পরে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন। সৈয়দ আনোয়ারুল হক মানবজমিনকে বলেন, আমরা পাপী বান্দারা তো সরাসরি আল্লাহ কিংবা তার রাসুলকে দেখিনি। তাদের তো ডায়রেক্ট পাওয়ার কোনো উপায়ও নাই। এই অলির মাজারে খেদমতের মাধ্যমে যদি আল্লাহকে পাই। বাবার দরবারে বসে আছি। মাগফিরাত, হাকিকত অনুযায়ী কাজ করে চলছি। রাজনীতিবিদরা মাজারে কেন যান তা জানতে চাইলে এ খাদেম বলেন, প্রত্যেকের উদ্দেশ্য ভালো থাকা। নির্বাচনে জয়লাভ করা, অলির আশীর্বাদ পাওয়াসহ নানা চাওয়া। এ কারণে তারা মাজার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। সময় পেলে মাজারে যান। পীরের কবরের পাশে যেয়ে ভালোমন্দ বলেন। তবে সবকিছুর মালিক তো আল্লাহ। পীর তো দিতে পারবে না। তারা মাত্র সুপারিশ করতে পারেন। এ মাজারের ভক্ত মাসুমা বেগম। বাবার দরবারে এসেছেন ‘মানত’ পৌঁছে দিতে। এ ভক্ত বলেন, আমি প্রায় সময় এখানে আসি। বাবার মাধ্যমে আল্লাহর কাছে সাহায্য চাই। মাসুমার মতে বড় বড় লিডাররা মাজারে যাওয়ার সময় কম পায়। যে জন্য শুধু নির্বাচনের আগে তাদের মাজারে দেখা যায়। মো. মুস্তাকিম আশরাফি নামে এক ভক্ত বলেন, আমরা বাবার দরবারে আসি একটু ভালো থাকার আশায়। অন্য আরেক ভক্ত মো. সেলিম বলেন, রাজনীতিবিদদের বেশিরভাগ দেশ পরিচালনার সময় অনেক ভুল করে থাকেন। তাই নির্বাচনে পরিত্রাণ পাবার লক্ষ্যে মাজারে যান তারা। এছাড়া আর অন্য কোনো উদ্দেশ্য নেই বলে আমি মনে করি। মো. জুলফিকার নামের এক খাদেম বলেন, মাজারের বিরুদ্ধে নানাজন নানা কথা বললেও নির্বাচন আসলেই রাজনীতিবিদদের মাজারে ভিড় পড়ে যায়। পীরদের কবর জিয়ারত করে নিজেদের পরিশুদ্ধি চান। পরিত্রাণ চান মন্দ কাজের। পরবর্তী নির্বাচনে জয়লাভের আশাও করেন অনেকে। জাহিদুল হাসান শাহ নামে এক ভক্ত বলেন, সবার চাওয়া-পাওয়া ভিন্ন। তবে অন্তর তো আলাদা নয়। পীরেরা ছিলেন পবিত্র মানুষ। তাদের মাধ্যমেই আমাদের পরিত্রাণ পেতে হবে। এজন্য নির্দিষ্ট পীরের ভক্ত ছাড়াও রাজনীতিবিদরা চলে যান মাজার ও দরবারে। তাদের মনের আশা সেসব পীর বাবারা অন্তর থেকে দেখতে পান।
সরজমিন রাজধানীর গুলিস্তান জামে মসজিদের বিপরীত পাশে অবস্থিত বাবা হজরত গোলাপ শাহ আউলিয়ার মাজারে গিয়ে দেখা যায়, বেশ কিছু সংখ্যক ভক্তের উপস্থিতি। শুধু ইসলাম ধর্মানুসারী নয়, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ সকল ধর্মের মানুষেরই আসা-যাওয়া আছে এই মাজার প্রাঙ্গণে। মূলত মানুষ তাদের মনের না পাওয়া আকাঙ্ক্ষা পূরণের লক্ষ্যেই আসে এখানে। অন্যদিনের তুলনায় শুক্র ও বৃহস্পতিবার এখানে ভক্তের সংখ্যা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। জানা যায়, প্রায় ২০০ বছর আগে হজরত সেকান্দার শাহ ইয়ামেনি (রহ.) ইসলাম ধর্ম প্রচারের উদ্দেশে এদেশে আসেন। তার মৃত্যুর পর তাকে নিমগাছতলি নামক স্থানে সমাহিত করা হয়। তখন এই মাজার নিমগাছতলির মাজার নামে লোকমুখে পরিচিত ছিল। এর কয়েক দশক পর হজরত গোলাপ শাহ (রহ.) নামক এক সুফি ভারত থেকে এসে সারা জীবন সেকান্দার শাহ বাবার খেদমত করে কাটিয়ে দেন। তার ইন্তেকালের পর তাকে সেকান্দার শাহ বাবার ডান পাশে সমাহিত করা হয়। তখন থেকেই এই মাজার গোলাপ শাহ বাবার মাজার নামে সবার কাছে পরিচিতি লাভ করে। সিলেট, চট্টগ্রাম, রাজধানীর আগারগাঁও, আরামবাগ, লালবাগসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গড়ে ওঠা প্রায় সকল মাজারেই মানুষ যায়, তাদের না পাওয়া চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মো: মাসউদুর রহমান

২০১৮-০২-২২ ২১:৫৪:২৪

আল্লাহর সাথে শিরক করা যাবেনা শিরক করা হারাম

মো: হাফিজ উদ্দিন

২০১৮-০২-২২ ০৮:৩৮:৪৯

"যারা আল্লাহর রাস্তায় নিহত হয়েছে, তোমরা তাঁদেরকে মৃত বলো না।" এটা আল-কুরানের কথা। যারা মাজারের বিরুদ্ধে কথা বলছেন, তাদের জন্য এই একটি আয়াতই যথেষ্ট। অবশ্য আল্লাহ যাদের অন্তরে মোহর মেরে দিয়েছেন তারা তো আর এসব বুঝবে না। তারা তো ইবলিশ শয়তানের মতোই আদমরূপী অলি আউলিয়াদের মানবেই না। তারা কুরানের এ আয়াতগুলোকে আজীবন এড়িয়ে যাবেই।

সৈয়দ মোহাম্মদ হাবিবু

২০১৮-০২-২২ ০৫:৪২:২২

মতামত দেওয়ার জন্য যে যোগ্যতা দরকার তা হয়তো আমার নেই,, আর তাই ভুল হলে ক্ষমা করবেন ( পাঠকদের কাছে অনুরোধ ) কথিত পীর মহোদয়েরা লক্ষ লক্ষ টাকা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে,, তারা দিচ্ছে শুধু বেহেস্ত পাবার লোভে,,, কিছু কিছু পীরের মুরিদদের নামাজ রোজা হজ্ব জাকাত কিছুই করতে হয় না ,,,, শুধু পীর বাবাজির আনুগত্য শিকার করলেই হলো,,,, কেউ ডানা ধরে কেউ আবার পাখায় চড়ে বেহেস্ত পাবে? অথচ একমাত্র বিশ্ব নবী হজরত মোহাম্মদ (সা:) ছাড়া বাকী সবাই কেয়ামত দিবসে ইয়া নাফছি ইয়া নাফছি বলে ছুটে দৌড়াবে,,,,, আল্লাহ্ তায়ালা আমাদের সবাইকে ঈমান রক্ষা করে জীবন যাপন করার তৌফিক দান করুন,,,,

রবি

২০১৮-০২-২২ ১৮:৩৪:২৫

আমাদের দুর্ভাগ্য যে আমরা হকপন্থি কোন নেতা পাইনি। এসব শিরক দিয়েই যারা নির্বাচনি প্রচারণা শুরু করে, তেমন মানুষদের হাতেই আমাদের শাসনভার!!

mijanur

২০১৮-০২-২১ ২৩:১১:০৫

ইসলাম কে জানতে ও মানতে আল - কোরআন কে ফলো করতে হবে, কোনো মাযারের বাবাকে নয়, একজন আলেমের চাইতে মায়ের দোয়া দ্রুত আল্লাহর দরবারে পৌছায়, সুতরাং মায়ের সেবা যত্ন করতে হবে এবং সঠিক ইসলামের আইন মানতে হবে।

nasir

২০১৮-০২-২২ ১০:৪০:৩৩

মাজারে যাওয়া শিরক।আর শিরক কখনো আল্লাহ ক্ষমা করেন না।চাইবে আল্লাহর কাছে।আল্লাহর কাছে চাইতে হলে দরুদ পড়ে চাইতে হয়।মৃত ব্যক্তি থেকে কোন কিছু আশা করা বোকামি।আল্লাহ আমাদের সহীহ বুঝ দান করুক।

Tofazzel Hossain

২০১৮-০২-২২ ১০:৩২:৫৫

Majar jiarat is haram. So request everybody, pray salat and don't go to majar

আবুল হাসনাত, বাঘা, গ

২০১৮-০২-২১ ২১:২০:৩৩

মৃত্যুর পর মানুষ কাউকে কিছু দিতে পারেনা, তিনি যতবড়ো ওলী হন আর গাউছুল আজম হন। মাজার জিয়ারত করে কিছু শুরু করা বিদাতি কাজ বলে আলেমরা বলেন।

Jasim Uddin

২০১৮-০২-২২ ১০:০৯:০৬

আল্লাহ বলেন: فَإِنَّكَ لَا تُسۡمِعُ ٱلۡمَوۡتَىٰ ‘‘(হে নবী!) নিশ্চয়ই আপনি মৃতকে শুনাতে পারবেন না।”[সূরা আর-রূম ৩০:৫২] আর আপনারা কি বলছেন?

নাজমুল হাসান

২০১৮-০২-২১ ২০:০৪:০১

সব শিরক। আর যারা মাজারে যে আল্লাহ নিকট চায় তারা আল্লাহকে আপমান করে কারন আল্লাহ বান্দার মধ্যে কোন মাধ্যম প্রয়োজন নাই। যেমন কোন সন্তান মায়ের নিকট কিছু চাইলে খালার দরকার হয়না আল্লাহ বান্দার জন্য মায়ের চাইতে কুটিগুন করুনা ময়। আপনার যে কোন প্রয়োজন ছালাতের মাধ্যমে শরাশরি আল্লাহকে বলুন।

মোঃ ওমর ফারুক

২০১৮-০২-২১ ১৯:২২:০৯

মাজারের পীর যিনি কবরে শুয়ে আছেন তার কি আল্লাহর নিকট সুপারিশ করার কোন সুযোগ আছে? তিনি ও তো নবী ( সাঃ) সাফায়াতের জন্য ব্যাকুল।একমাত্র নবী (সাঃ) ছাড়া কারোই আল্লাহর দরবারে সুপারিশ করার কোন ক্ষমতা নাই। তাই মাজার কাউকে কিছু দিতে পারেনা বা আল্লাহর নিকট সুপারিশ করার কোন ক্ষমতা নাই। মাজার কিছুলোকের ধান্দার মাধ্যমে আয় করার কৌশল ছাড়া আর কিছুই না। ইসলামিক নিয়মে মাজার সম্পর্কে কোন ব্যাখা নাই

Md Junaid Anis

২০১৮-০২-২১ ১৮:১৬:২৮

১. শরীয়তের দৃষ্টিতে কবরের উপর ঘর তৈরি করা হারাম৷ ২. গায়রুল্লাহর নামে মানত করা হারাম৷ ৩. গায়রুল্লাহর কাছে কোন কিছু চাওয়া হারাম৷

হাসান

২০১৮-০২-২১ ১৬:৪২:১৯

ইসলামে মাযারকেন্দ্রিক কোন চাওয়াপাওয়ার বিধান নেই,যারা বিশ্বাস করে মাযারে শায়িত পীর তাদের প্রার্থনা আল্লাহর কাছে পৌঁছে দেবে তাদের সাথে আবূ জেহেলের কোন তফাত নেই,আবুজেহেলের যে পরিণতি হয়েছে তাদেরও তাই হবে।এরা ঘোর মুশরিক।

Ibraham

২০১৮-০২-২১ ১৩:১৬:১৮

ধর্মভিত্তিক রাজনীতির চেয়ে আরো ভয়াবহ ধর্ম ব্যবসা আমাদের দেশে চলছে। ইসলাম ধর্ম সমর্থন করে না এমন দুটি প্রথা মুসলিম সমাজকে গিলে খেয়েছে। অবৈধ পীর ব্যবসা ও মাজার ব্যবসার মাধ্যমে ধর্মব্যবসায়ীরা কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ধর্মান্ধ লোকজনের কাছ থেকে । এটা মুসলমানদের ইসলাম না জানার কূফল। কুরআন এবং সহীহ হাদীসের চর্চা নাই। খালি পীর বাবা আর তাদের শিরকী কেচ্ছা-কাহিনী নিয়ে লিপ্ত থাকলে এসবই হবে। আল্লাহ আমাদের হেদায়াত দান করুন। সঠিক পথ দেখান।

মোহাম্মাদ নোমান

২০১৮-০২-২১ ১১:০৮:২০

মাজারে যাওয়া শিরক।আর শিরক কখনো আল্লাহ ক্ষমা করেন না।চাইবে আল্লাহর কাছে।আল্লাহর কাছে চাইতে হলে দরুদ পড়ে চাইতে হয়।মৃত ব্যক্তি থেকে কোন কিছু আশা করা বোকামি।আল্লাহ আমাদের সহীহ বুঝ দান করুক।

আপনার মতামত দিন

কল্যাণপুরে রিজভীর নেতৃত্বে বিএনপির বিক্ষোভ

রাশিয়ায় এলাহি কান্ড

নরসিংদীতে দুই সন্তানকে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যা

মার্কিন পণ্যের ওপর ইইউ’র শুল্ক আরোপের সিদ্ধান্ত কার্যকর

কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে টপলেস যুবতী

কি বার্তা দিলেন মেলানিয়া!

ময়মনসিংহে মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ২

‘এবার কমেডি গল্পে ভালো কিছু দেখানোর চেষ্টা ছিলো’

মাথা নিচু করে মাঠ ছাড়লেন মেসি

দুই কিংবদন্তীর দেখা

শেষ ষোলতে ফ্রান্স, পেরুর বিদায়

জল্পনা উড়িয়ে লড়াইয়ের অপেক্ষায় ব্রাজিল-নেইমার

নির্বাচন গাজীপুরে আলোচনায় খুলনা

ভ্লাদিমির পুতিনই যেখানে তারকা

ব্রাজিল বাড়িতে এলাহি আয়োজন

কৌশল নিয়ে বিএনপিতে নানা চিন্তা