খুলনায় পুলিশ কর্তৃক যৌন উত্ত্যক্তের ঘটনায় সাক্ষ্য দিল ছাত্রীরা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, শনিবার
খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার খারাবাদ বাইনতলা পুলিশ ফাঁড়ির সামনে স্কুলছাত্রীদের যৌন হয়রানি এবং এর প্রতিবাদ করায় যুবককে পেটানোর ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির কাছে সাক্ষ্য দিয়েছে স্কুলের ছাত্রী ও স্থানীয়রা। এদিকে  এ নিয়ে ওই এলাকায় সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক আতঙ্ক বিরাজ করছে। পাঁচ বছর ধরে পর্যায়ক্রমে ক্যাম্পে আসা পুলিশ সদস্যরা ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করছে। পুলিশ হওয়ার কারণে ছাত্রীরা ভয়ে এ বিষয়ে কারও কাছে অভিযোগ করতে সাহস পায়নি। এখন ছাত্রীরা ওই ক্যাম্পে নারী পুলিশ রাখার দাবি জানিয়েছে।
বাইনতলা খারাবাদ কলেজিয়েট স্কুলের শিক্ষার্থীদের দাবি, ক্যাম্পের পুলিশ সদস্যরা প্রায়ই স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত ও যৌন হয়রানি করে আসছে। এ কারণে পুরুষের পরিবর্তে নারী পুলিশ সদস্য নিয়োগ দিতে হবে।
তবে এলাকার সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে ক্যাম্পটি রাখার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন স্কুলের শিক্ষকরা। খারাবাদ বাইনতলা স্কুলের ঠিক পেছনে থাকা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে রয়েছে যৌথ বাহিনীর অস্থায়ী ক্যাম্প। ক্যাম্প থেকে স্কুলে আসতে অনেকটা পথ ঘুরে আসতে হয়। কিন্তু পুলিশ সদস্যরা পেছনে থাকা টয়লেটের ট্যাঙ্কির পাশ দিয়ে স্কুলের পুকুরে যাওয়া-আসার জন্য পথ তৈরি করেছেন। ক্যাম্পের জানালা দিয়ে স্কুলের ক্লাসরুম লক্ষ্য করা যায়। ওই স্থানেই রয়েছে টিউবওয়েল। ঘটনার শিকার ছাত্রী কেয়া জানায়, ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকেই সে পুলিশ কর্তৃক নানান কথা শুনে আসছে। ছোট হওয়ার কারণে সেসব কথার মানে বুঝতে পারেনি। ফলে তা তেমন গুরুত্ব দেয়নি। ১০ম শ্রেণিতে এসে পুলিশের কথার মানে বুঝতে পারে। দুই মাস আগে বাড়িতে বাবা ও ভাইকে বিষয়টি জানানো হয়। স্কুল থেকে কোচিংয়ে যাওয়া-আসার পথেই ক্যাম্প পড়ে।
ছাত্রী ফারহানা জানায়, ৮ম শ্রেণিতে থাকা অবস্থায় পুলিশ তাকে খারাপ কথা বলে। পথ দিয়ে যাওয়ার সময় শিষ দেয়। পানির জন্য কলে গেলে তাদের পানি না দিয়ে কীভাবে পানি খাবো- তা জানতে চায়। মৌমিতা জানায়, পুকুরে গোসল করার সময় পুলিশ সদস্যরা সঙ্গে গোসল করতে বলে। পুকুরকে সুইমিং পুল উল্লেখ করে বলে, এখানে এক সঙ্গে গোসল করলে অনেক মজা পাওয়া যাবে। তারা পুকুর থেকে গোসল শেষে খালি গায়েই স্কুলের পেছন থেকে চলে যায়। গোসল করার জন্য ক্যাম্প থেকে খালি গায়ে ও স্বল্প পোশাকে আসা-যাওয়া করে। স্কুলের সহকারী শিক্ষক মো. আতিয়ার রহমান বলেন, দুই বছর আগে একবার পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে স্কুলের মেয়েদের উত্ত্যক্ত করার কথা জানা যায়। সে সময় অভিযোগ নিয়ে আলোচনার পর ওই পুলিশকে বদলি করা হয়। এরপর পরিস্থিতি শান্ত হয়। অধ্যক্ষ আবুল কাশেম বলেন, আগে লিখিত বা মৌখিক কোনো রকম অভিযোগই পাওয়া যায়নি। ফলে বিষয়টিতে গুরুত্ব দেয়া হয়নি। খারাবাদ বাইনতলা স্কুল অ্যান্ড কলেজের কলেজ শাখার ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য মো. হাসিব গোলদার বলেন, আগেও কয়েকবার এ ক্যাম্পের পুলিশরা মেয়েদেরকে ইভটিজিং করেছিল। আমরা কমিটির লোকজনরা ক্যাম্পের আইসি-কে বলে মিটমাট করে দিয়েছি। এ প্রতিষ্ঠানের একেবারে পাশে পুলিশ ক্যাম্প। আর ক্যাম্পে আসে অল্প বয়সী ছেলেরা। এরা পোশাকের মূল্য বোঝেনা। দামি দামি মোটরসাইকেল চালায় আর যেখানে সেখানে সিগারেট টানে। এরা কাউকে পরোয়া করে না।
স্কুলের অদূরে থাকা শুভেচ্ছা কিন্ডারগার্টেন কোচিং পরিচালক আলী আহমেদ বলেন, পুলিশ কর্তৃক ছাত্রীরা প্রতিনিয়তই ইভটিজিংয়ের শিকার হয়। পুলিশ হওয়ায় ভয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করত না। বিষয়টি বিভিন্ন সময় বটিয়ঘাটার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে জানানো হয়। কিন্তু ক্যাম্প ইনচার্জ সেসব আমলে নিতো না। অভিযোগ দেয়ার কারণে এলাকার মানুষকে নানাভাবে অহেতুক হয়রানি করত। পুলিশ সদস্যরা মেয়েদের কাছে মোবাইল নম্বর চাইত। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার সরজমিন যান তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) মো. সজীব খান এবং সদস্য সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ওয়াসিম ফিরোজ ও বটিয়াঘাটা থানার ওসি মো. মোয়াম্মেল হক। তাদের কাছে অভিযোগকারী খারাবাদ বাইনতলা স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণির সাতজন ছাত্রী, একজনের ভাই নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির আইনের ছাত্র আহত তারেক মাহমুদ, ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বরসহ স্থানীয় কয়েকজনের লিখিত সাক্ষ্য দিয়েছেন। আগামী দুই কার্যদিবসের মধ্যে জেলা পুলিশ সুপার বরাবর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) সজীব খান। সজীব খান বলেন, ‘অভিযোগকারী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবো; এর বেশি কিছুই বলতে পারবো না।’

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ঝিনাইদহের ওসি কবিরকে প্রত্যাহার

যশোরে পৃথক দুই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

হোটেলে যেতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকাকে কুপিয়ে জখম

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কার্যক্রম বন্ধ

বগুড়ায় ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই পথচারীর

ইয়েমেনির হামলায় নিহত ৮ সৌদি সেনা

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিচার দাবি, প্রত্যাবর্তনে কানাডাকে বিরোধিতা করার আহ্বান

চালককে গলাকেটে হত্যার পর অটো ছিনতাই

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা নীতিতে বড় পরিবর্তন এনে সামরিক শক্তি বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

ইংলিশ চ্যানেলে ব্রিজ নির্মাণ করে ফ্রান্সকে যুক্ত করার প্রস্তাব: বিদ্রুপের শিকার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের ২ গ্রুপের গোলাগুলি, নিহত ১

উত্তরাঞ্চলের কয়েক জায়গায় মৃদু ভূমিকম্প

‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমার একটা দাপটের সিনেমা করার ইচ্ছা ছিল’

স্বাক্ষর করে গরহাজির এমপিদের চিফ হুইপের চিঠি

কলেজে এসকেলেটর বিলাস, ৪৫৪ কোটি টাকার প্রকল্প

ইইউয়ে পোশাক রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে বাংলাদেশ